fbpx

‘কারও পাতে জোড়া ডিম, কারও ডিমে নাকি নেই কুসুম’, একুশে মিমে ভাসছে ফেসবুক

২১শে জুলাই মানে কলকাতা যানজট। ২১শে জুলাই মানে জনপ্লাবন। ২১শে জুলাই মানে জেলা জেলা থেকে মানুষের ছুঁটে আসা। ২১শে জুলাই মানে তো আবার ডিমভাতও বটে। এদিন প্রত্যেক বছর ফেসবুক জুড়ে ঘুড়ে বেড়ায় ‘ডিমভাত’ মিম। এবছরও মজার ডিম্ভাত মিমে মেতে উঠেছেন নেটিজেনরা। ‘কেউ পাচ্ছেন জোড়া ডিম আবার কারও ডিমে নাকি নেই কুসুম’। আর ডিম বিতরণের এই দায়িত্বে আছেন তৃণমূলের তরুণ-তুর্কি দেবাংশু এবং সুপ্রিয়। এদিকে সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র কুনাল ঘোষ বলেছেন, ‘ডিম নিয়ে কোনো বিশৃঙ্খলা চলবে না।’ আর এই মিমে ভাসছেন ৮-৮০ সকলেই। 

6
বিখ্যাত বলিউড সিনেমা করন-অর্জুন এর একটি ছবিতে রাখী, ‘সলমান এবং শাহরুখ গাইছেন এ বন্ধন তো প্যায়ারকা বন্ধন হ্যে’। কিন্তু মিমে চলে আসছে তার হাতে থালা। আর তারা নাকি বলছেন, ‘খুব খিদে পেয়েছে ডিমভাত দাও গো। আর তাতেই মেতে উঠছেন নেটিজেনরা।’ ‘বাজা সানাই আর বাজা রে ঢোল, খুশির দিনে আজ নেচেছে মন’- গানটি সবারই চেনা কিন্তু এভাবে ট্রেনে চেপে যে ২১শে জুলাই মানুষ নাকি এসেছেন নাচতে নাচতে। আর ২ টো বাজলেই নাকি এভাবেই সকলে ছোটে ডিমভাত খেতে। কিছুদিন আগে বর্ধমানের একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে নেটমাধ্যমে যেখানে দেখা যায় ডিজে বাজিয়ে নাচতে নাচতেই চলছে শহীদ দিবসের র‍্যালি।

সব মিলিয়ে ডিমভাত নিয়ে ছড়িয়ে আছে নানান রকম মিম। আর মিমেই একেবারে মেতে উঠেছে সারা বাংলা। অবশ্য ডিম ভাত খাবার পরই নাকি ফিরে যাচ্ছেন তৃণমূল কংগ্রেস সমর্থকরা। গুগলে ডিম ভাত খুঁজলেই উঠে আসছে ডিম ভাত দিবস। তাই বিরোধীরা কটাক্ষ ছুড়ে দিয়েছেন, যেখানে দিনটি শহীদ দিবস সেখানে কেবল ডিমভাতই কি উদ্দেশ্য হতে পারে? তাহলে কি ২১শে জুলাই হয়ে উঠছে ডিম ভাত দিবস!

google-news-icon

লেটেস্ট খবর