fbpx

কেজিএফ চ্যাপ্টার ২ দেখতে গিয়ে ভয়ানক পরিনতি যুবকের, ঘটনায় হতবাক সবাই

অনীশ দে, কলকাতা: মানুষ দৈনন্দিন জীবনের সমস্ত চিন্তা, দুঃখ ভোলার জন্য সচরাচর বিনোদনের দিকে ঝোঁকে। কিন্তু এই বিনোদনের জন্য যদি কাউকে প্রাণ হারাতে হয় তবে তা খুবই দুঃখজনক। সম্প্রতি এমনই এক ঘটনার সাক্ষী থাকলো কর্ণাটক রাজ্য। গত ১৪ই এপ্রিল মুক্তি পায় যশ (Yash) অভিনীত ও প্রশান্ত নীল (Prashant Neel) পরিচালিত কেজিএফ চ্যাপ্টার ২ । মোট পাঁচটি ভাষায় মুক্তি পায় কে জি এফ চ্যাপ্টার ২- তামিল, তেলেগু, হিন্দি, মালায়ালাম, কন্নড় (KGF Chapter 2 controversy)।

kgf 2.jpg featute

এখনও পর্যন্ত ৭০০ কোটি টাকার গণ্ডি পেরিয়েছে ছবিটি। প্রশান্ত নীল প্রমাণ করে দিয়েছেন যে নায়ক কেন্দ্রিক ছবি এখনও দর্শকদের প্রিয়। কিন্তু এই ছবি দেখতে গিয়েই দুর্দশা ঘটলো এক যুবকের। আসলে কর্ণাটকের এক যুবক কেজিএফ চ্যাপ্টার ২ ছবিটি দেখতে যান রাজশ্রী সিনেমা হলে এবং সেখানেই ঘটলো বিপদ। বসন্ত কুমার নামের এই যুবক সিনেমা দেখতে গিয়ে এক ব্যক্তির সাথে বচসায় জড়ান।

kgf 2

সূত্র অনুযায়ী বসন্ত সামনের সিটে পা রাখায় এক যুবকের সাথে তার খানিকক্ষণ বচসা হয়। কিন্তু তারপরে সেই লোকটি হল ছেড়ে চলে গেলেও বসন্ত সম্পূর্ণ ছবি শেষ করেন। কিন্তু তারপরে যা ঘটতে চলেছিল, তা কেউ কোনোদিন দুঃস্বপ্নেও ভাবেনি। লোকটি বচসার পরে বেরিয়ে গেলেও, বসন্ত ছবি শেষ করে হল ছাড়া মাত্রই দেখে সেই লোকটি দাড়িয়ে আছে একটি পিস্তল নিয়ে (KGF Chapter 2 controversy)। এরপর সেই পিস্তলের গুলিতে ছিন্নভিন্ন হয়ে যায় বসন্তের বুক।

KGF 2

ঘটনার পরেই ওই যুবককে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ডাক্তার জানায় এই যাত্রায় তার প্রাণ রক্ষা হয়েছে। মুক্তির আগে থেকেই কেজিএফ চ্যাপ্টার ২- এর সাথে জড়ায় নানা বিতর্ক। অনেকে বলেন এই ধরনের ছবি যুবসমাজকে ভুল দিকে চালনা করবে। এই ছবি আসার আগে কন্নড় ছবি দেখার চল একেবারেই ছিল না ভারতবর্ষে। এছাড়াও এই ছবি যে পরিমাণে লক্ষিলাভের মুখ দেখেছে সেটা এস এস রাজামৌলির ছবি বাহুবলী ও সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া RRR ছাড়া অন্য প্যান ইন্ডিয়ান ছবিরা দেখেনি।

আরও পড়ুন:এক গানের বাঁধনে হিরো আলম-রানু! জুটির নয়া গানে হাসির ফোয়ারা নেটপাড়ায়, রইল ভিডিও

এই ছবির সিনেমাটোগ্রাফী থেকে শুরু করে অ্যাকশন, মানুষের সবটাই ভালো লাগছে। অনেকে আবার বলছে বক্স অফিসে এই ছবির আয় ছড়িয়ে যাবে এস এস রাজা মৌলির ‘বাহুবলী ২’ এবং বলিউড তারকা আমির খানের ‘দঙ্গল’ – কে। এই ছবি নিয়ে এত আলোড়নের অন্যতম কারণ এই ছবির সম্পাদকের বয়স। এই ছবির এডিটিং করেছে ১৯ বছরের এক ছেলে।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর