fbpx

‘পায়নি সম্মান, ব্লক করা হয় ফোন…’ অনির্বাণের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানালেন তাঁরই ফেসবুক পেজের অ্যাডমিন

সম্প্রতি অনির্বাণের ফেসবুকে একটি পোস্ট করা হয়। যা দেখে চোখ কপালে ওঠে অনির্বাণ ভক্তদের।

অনীশ দে, কলকাতা: বাংলা চলচ্চিত্র জগতের উজ্জ্বল নক্ষত্রের মধ্যে অন্যতম অনির্বাণ ভট্টাচার্য্য (Anirban Bhattacharya)। প্রথম জীবনে নাট্যমঞ্চ ও পরবর্তীতে বড় পর্দা, দু’জায়গাতেই সমান তালে দর্শকদের মনোরঞ্জন দিয়েছেন অভিনেতা (Anirban Bhattacharya)। তবে অভিনেতার খ্যাতি ও তার পাশাপাশি বিতর্ক যেন সমান্তরাল ভাবে ক্রমবর্ধমান। সম্প্রতি অনির্বাণের ফেসবুকে একটি পোস্ট করা হয়। যা দেখে চোখ কপালে ওঠে অনির্বাণ (Anirban Bhattacharya) ভক্তদের। অবশ্য পোস্টটি অনির্বাণ নিজে করেননি, করেছে তাঁর ডিজিটাল পেজের অ্যাডমিন। সেখানে গুরু গম্ভীর অভিযোগ তোলা হয় এক প্রযোজনা সংস্থার বিরুদ্ধে।

anirban 6

পোস্টটিতে বলা হয়, ২০১৮ সালে অনির্বাণের ভক্ত হিসেবে একটি ফ্যানপেজ (Anirban Bhattacharya Fan Club) শুরু করা হয়। পরবর্তীতে সেই ফ্যান পেজের অ্যাডমিনই হয়ে ওঠেন অনির্বাণের ইনস্টাগ্রাম এবং ফেসবুক হ্যান্ডেলের অ্যাডমিন। অবশ্য যে কোনও তারকার সোশ্যাল মিডিয়া পেজই তাঁর ডিজিটাল ম্যানেজার দেখভাল করে। বিশেষ করে বাংলা ইন্ডাস্ট্রিতে এই কাজ করতে গেলে কোনও রকম যোগ্যতা লাগে না, লাগে শুধুমাত্র পরিচিতি। অনির্বাণের (Anirban Bhattacharya) অফিসিয়াল সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলের সেই অ্যাডমিন আরও জানায়, অনির্বাণের খ্যাতি যখন আস্তে আস্তে বৃদ্ধি পেতে থাকে তখন এক নামজাদা প্রযোজনা সংস্থা সবটা নিজের হাতের মুঠোয় আনতে চায়।

anirban 7

কয়েকদিন আগেই অনির্বাণের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট সেই প্রযোজনা সংস্থা হ্যাক করে বলেও অভিযোগ জানানো হয়। তাই আর কোনো প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে যাওয়ার আগেই অনির্বাণের ফেসবুকের দায়িত্ব নিজের কাঁধে আর রাখতে চায় না এই অ্যাডমিন। মাত্র ৪০০ ফলোয়ারের সঙ্গে শুরু হয়েছিল অনির্বাণ ফ্যান পেজ। কিন্তু এখন যেন তাঁর খ্যাতির প্রচার নিয়ে যুদ্ধ বেঁধে যাচ্ছে। তাই তাঁরা আর যুক্ত থাকতে চায় না অনির্বাণের সাথে। কিন্তু সমস্যার উৎস কোথায়? সে বিষয়েও আলোকপাত করেছেন তাঁরা।

এই অ্যাডমিন জানান, প্রথমদিকে অনির্বাণ যে প্রযোজনা সংস্থার সঙ্গে চুক্তিতে রয়েছেন তাঁরা নানা প্রোমো পোস্ট করার আবেদন জানতেন তবে পরবর্তীতে সেই প্রযোজনা সংস্থার তরফ থেকে নানা হুমকি দেওয়া হত এমনকী বিনা পয়সায় কাজও করানো হত। অনির্বাণ নিজেও কোনোদিন এই অ্যাডমিনদের কোনও সম্মান দেননি। এছাড়াও অনির্বাণের জন্য একাধিক বিজ্ঞাপনের ব্যবস্থা করেছেন তাঁর এই ডিজিটাল টিম, কিন্তু কখনই তাদের কোনোরকম গুরুত্ব দেওয়া হয়নি। নিজেদের প্রাপ্য টাকা অনির্বাণের কাছে চাইতে গেলে অনির্বাণ তাদের ফোন ব্লক করেন, জানান এই অ্যাডমিন।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর