fbpx

Tithi Basu: ‘কী কালো বগল’, বোল্ড অবতারে ছবি দিতেই নোংরা কটাক্ষের শিকার হয়েছিলেন ‘ঝিলিক’

সামাজিক মাধ্যমে বেজায় অ্যাক্টিভ তিথি। হামেশাই ছবি দেন সাহসী অবতারে। বরাবরই গোলগাল চেহারার তিথি মেদ ঝড়িয়ে এই মুহূর্তে একেবারে তন্বী।

জয়িতা চৌধুরি,কলকাতাঃ স্টার জলসার ( Star Jalsha ) জনপ্রিয় ‘মা’ ( Maa ) ধারাবাহিকের ঝিলিকের কথা মনে আছে? অভিনয় থেকে বেশ কয়েক গজ দূরে থাকলেও জনপ্রিয়তা এক বিন্দুও কমেনি ঝিলিক ওরফে অভিনেত্রী তিথি বসুর ( Tithi Basu )। ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে হামেশাই অকপট অভিনেত্রী। ছোট্ট মেয়েটির সাহসী অবতারে ছবি ইনস্টারগ্রামে ( Instagram ) দেখা রীতিমত চমকে জান দর্শকরা। নিজের চোখকেই অবিশ্বাস্য লাগে তাঁদের। ছোট্ট মিষ্টি মেয়েটি কবে যে প্রাপ্তবয়স্কা হলেন তা নিয়ে ভেবে কুল পাননি নেটিজেনরা।

tithi basu 2সামাজিক মাধ্যমে বেজায় অ্যাক্টিভ তিথি। হামেশাই ছবি দেন সাহসী অবতারে। বরাবরই গোলগাল চেহারার তিথি মেদ ঝড়িয়ে এই মুহূর্তে একেবারে তন্বী। দিন-দিন আরও বেশি আকর্ষণীয় হয়ে ওঠার জন্য যেমন প্রশংসা পাচ্ছেন একাধারে, তেমনই পাল্লা দিয়ে বাড়ছে গালমন্দ শোনার অভ্যাসও। দিনকয়েক আগেই সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি কালো রঙের শরত ড্রেস পরে ছবি দিয়েছিলেন তিথি। ক কাঁধ খোলা সেই ড্রেসে দেওয়ালে পিঠ ঠেকিয়ে পোজ দিয়েছিলেন অভিনেত্রী। ডান হাতটি উপরে তোলা, ফ্লন্ট করছেন হাতের সুবিশাল ট্যাটু। এই ছবি দেখেই নেটিজেনদের একাংশের রোষের মুখে পরেন অভিনেত্রী।

tithi basu কেউ লিখেছেন, ‘কী কালো বগল’, কারুর আবার উপদেশ ‘বগলটা ভালো করে ক্লিন করো’। কেউ কেউ তো এই ছবিকে অশ্লীল আখ্যা দিয়েছেন। শর্ট ড্রেসের ফাঁক দিয়ে তিথির অন্তর্বাস বেরিয়ে এসেছে, অথচ সেইদিকে হুঁশ নেই তাঁর, জমিয়ে হয়েছে সমালোচনা। যদিও ট্রোলারদের খুব একটা বেশি পাত্তা দেন না তিথি। নেগেটিভিটি থেকে এক গজ দূরে থাকেন তিনি।
এ প্রসঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে তিথি জানান, ‘আগে কমেন্ট ডিলিট করতাম। এখন আর করি না। যে যা ইচ্ছে কমেন্ট করুক। আমি ওসব নিয়ে আর ভাবি না।‘ মাঝে মাঝে তাঁর ইনস্টাগ্রাম লাইভ নিয়েও জল্পনা থাকে তুঙ্গে। কারণ প্রায়শই তাঁকে দেখা যায় ক্রিকেটার দেবায়ুধ পালের সঙ্গে।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর