fbpx

Aishwarya Rai Bachchan: দেবদাসের বিশে পায়ে স্মৃতিমেদুর ঐশ্বর্য! পারোর সেই সাজ দেখে আজও প্রেমে হাবুডুবু খান অভিষেক

প্রত্যুষা সরকার, কলকাতা: এমন অনেক সিনেমা আছে যেগুলো দর্শক দেখেন, উপভোগ করেন এবং তারপর থিয়েটার ছাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভুলে যান সেই সিনেমার কথা। তবে এরই মধ্যে এমন কিছু সিনেমা আছে যেগুলি বছরের পর বছর দেখার পরেও পুরনো হয় না। বারবার দেখলেও যেন মন ভরে না। এমনই এক সিনেমা হল সঞ্জয় লীলা বানসালির ‘দেবদাস‘ ( Devdas )। যা চিরকাল মানুষের হৃদয়ে গেঁথে আছে।

২০০২ সালের ১২ জুলাই মুক্তিপ্রাপ্ত, ‘দেবদাস’ সিনেমাটি প্রয়াত কিংবদন্তি অভিনেতা দিলীপ কুমারের একই নামের একটি চলচ্চিত্রের রিমেক। এই ছবিতে মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করতে দেখা যায় বলিউডের বাদশাহ শাহরুখ খান, ঐশ্বর্য রাই বচ্চন ( aishwarya rai bachchan ) এবং মাধুরী দীক্ষিতকে। গত মঙ্গলবার ২০ বছর পূর্ণ হয়েছে এই আইকনিক ফিল্মটির। ২০ বছর পূর্তিতে ‘দেবদাস’এ পারো চরিত্রের কিছু অসাধারণ ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন ঐশ্বর্য।

img 20220713 141651

ইনস্টাগ্রামে তাঁর পোস্টটির ক্যাপশনে তিনি বেশ কয়েকটি রেড হার্ট, রেইনবো এবং একটি তারার ইমোজির আকারে তাঁর আবেগের একটি স্ট্রিং অবলম্বন করেছেন। ঐশ্বর্যের ( aishwarya rai bachchan ) এই পোস্ট অনেক ভক্তকে নস্টালজিক করে তুলেছে। এমনকী অভিষেক বচ্চন, যিনি সর্বদা সোশ্যাল মিডিয়ায় তার স্ত্রীকে সমর্থন করেন, তিনি একটি রেড হার্ট ইমোজি দিয়ে ছবিটিতে মন্তব্য করেছেন। শুধু ঐশ্বর্য নই মাধুরী দীক্ষিতও তাঁর সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন একটি ভিডিও।

ছবিটির কাহিনীর পাশাপাশি, ‘বাইরি পিয়া’, ‘সিলসিলা ইয়ে চাহাত কা’, দোলা রে দোলা’ সহ ছবির গানগুলিও সেই সময় ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়েছিল এবং এগুলি এখনও অনেকের কাছে খুবই প্রিয়। ছবিতে পারোর ভূমিকায় অভিনয় করেন ঐশ্বর্য রাই বচ্চন ( aishwarya rai bachchan ), দেবদাস শাহরুখ খান এবং চন্দ্রমুখীর চরিত্রে দেখা যায় মাধুরী দীক্ষিতকে এছাড়াও ছবির কিছু বিশেষ চরিত্রে অভিনয় করেছেন কিরণ খের এবং জ্যাকি শ্রফও।

img 20220713 141220

১৯১৭ সালে শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের উপন্যাসের উপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে এই ছবি। গল্পটি একজন ধনী আইন স্নাতকের জীবন অনুসরণ করে যে তার শৈশব বন্ধুকে ( aishwarya rai bachchan ) বিয়ে করতে ভারতে ফিরে আসে। যাইহোক, তাঁদের বিবাহ প্রত্যাখ্যান তাকে মদ্যপান এবং মানসিক যন্ত্রণার দিকে একটি কুৎসিত রাস্তার দিকে নিয়ে যায়। ছবিটি মুক্তি পাওয়ার পর থেকে প্রচুর অ্যাওয়ার্ডস পেয়েছে। এমনকি এটি ব্রিটিশ একাডেমি ফিল্ম অ্যাওয়ার্ডস (বাফটা) এর জন্য মনোনীত হয়েছিল।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর