Advertisement

বড় খবর: বিয়ের দু’মাসের মাথাতেই মা হতে চলেছেন আলিয়া ভাট, সুখবর জানালেন গাঙ্গুবাঈ

বলিউডের পাওয়ার কাপলদের মধ্যে হত একটি জুটি হল রণবীর এবং আলিয়ার জুটি। তাদের দুষ্টু মিষ্টি সম্পর্ক সকল নেটিজেনদেরই খুব প্রিয়। এই জুটির অনুরাগীদের সংখ্যাও কিছু কম নেই। প্রসঙ্গত টানা পাঁচ বছর একে অপরের সঙ্গে সম্পর্কে থাকার পর ১৪ এপ্রিল সম্পর্কের শুভ পরিণয় ঘটিয়েছিলেন বলিউডের এই জুটি। আর বিয়ের দুমাস কাটতে না কাটতেই কাপুর পরিবারে এল সুখবর। মা হতে চলেছেন আলিয়া ( alia bhatt pregnancy ) । খবরটি এদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেই শেয়ার করলেন তিনি।

নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে আজকে আলিয়া ভট্ট নিজেই কথাটি শেয়ার করলেন ( alia bhatt pregnancy ) । ইনস্টাগ্রামে তিনি একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন। ছবিতে দেখা যাচ্ছে হসপিটালের বেডে শুয়ে রয়েছেন আলিয়া। পাশে বসে রয়েছেন রণবীর ( alia bhatt pregnancy ) । ছবির নিচে আলিয়া ক্যাপশন দিয়েছেন ” আমাদের সন্তান শীগ্রই আসছে”। এই ছবি পোস্ট হওয়া মাত্রই উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে ইনস্টাগ্রাম জুড়ে ( alia bhatt pregnancy ) ।

 

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Alia Bhatt 🤍☀️ (@aliaabhatt)

প্রসঙ্গত, সামনেই আসতে চলেছে রণবীর কাপুর এবং আলিয়া ভট্ট অভিনীত ছবি ব্রহ্মাস্ত্র। ৭ বছর আগে থেকে শুরু হয়েছিল এই ছবির শুটিং। আর এই ছবির শুটিং -এর সময় থেকেই একে ওপরের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন রণবীর এবং আলিয়া। দীর্ঘ অপেক্ষার পর এই বছর ৯ সেপ্টেম্বর প্রকাশ পাবে সেই ছবি। আর এই জন্যই অনেকে মনে করছেন যে ছবির প্রমোশনের জন্যই বোধ হয় আলিয়া এরূপ ছবি পোস্ট করেছেন।

যদিও আলিয়া ভট্টের বাবা মহেশ ভট্ট এই ধোঁয়াশা দুর করেছেন। তিনি জানিয়েছেন যে দাদু হয়ে ওঠার জন্য তিনি প্রস্তুতি চালাচ্ছেন। তার ছোট্ট আলিয়া যে এখন নিজেই একজন মা হতে চলেছে, একথা জেনে বেজায় খুশি মহেশ ভট্ট। এছাড়াও আলিয়া ভট্টের মা সোনি রজদান জানিয়েছেন যে তারা সবাই আলিয়া এবং রণবীরের জন্য খুবই খুশি। তারা এতটাই আনন্দিত যে তা ভাষায় ব্যক্ত করা সম্ভব নয়। একজন নতুন প্রাণ পৃথিবীতে আনা অনেক আনন্দের।

বহু সেলিব্রিটি কমেন্ট বক্সে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আলিয়া এবং রণবীরকে। টাইগার শ্রফ, মৌনি রায়, ঈশান খট্টর সহ অন্যান্য বহু অভিনেতা অভিনেত্রীরা শুভেচ্ছা জানিয়েছেন এই জুটিকে।



Follow us on


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement
Back to top button
Advertisement
Advertisement