fbpx

Anupamaa: বাবার পরিচয়ে নয়, হোটেলের পরিচারিকা থেকে অভিনয়! কতটা কষ্টের ছিল অনুপমার জীবন?

বাংলায় জনপ্রিয়তার শিখরে পৌঁছেছিল শ্রীময়ী’। বাংলা ঘরের গৃহিণীর আত্মজীবনীর খ্যাতি পৌঁছেছিল হিন্দি সিরিয়ালের জগতে। বাংলার শ্রীময়ীর অনুকরণে শুরু হয় ‘অনুপমা’। এখানেই মুখ্যচরিত্রে অভিনয় করেন রূপালি গঙ্গোপাধ্যায়। তবে বাংলা ধারাবাহিকের থেকেও বেশি খ্যাতি অর্জন করে অনুপমা। তবে অনুপমার জীবনের সংগ্রামের সঙ্গে মিল রয়েছে রূপালিরও।

১২ বছর বয়সে ফিল্মের জগতে কাজ শুরু করেছিলেন রূপালি। আর্থিক সংকটের মুখোমুখি হয়ে পরিবারের পাশে দাঁড়াতেই অভিনয়ের সূত্রপাত। রূপালির বাবা অনিল গঙ্গোপাধ্যায় বিখ্যাত পরিচালক ছিলেন। কিন্তু, সিনেমায় আর্থিক সংকটের মুখোমুখি হতে হয়। একজন নায়িকার পরিবর্তে বাবার সিনেমায় সুযোগ পান অভিনেত্রী। কিন্তু পরপর দুটি ছবি ফ্লপ হয়। আরও দৈন্যদশার মধ্যে পড়েন পরিবার সমেত। তবে এসময় অনেকে বলেন অভিনয় ছেড়ে দিতে। কিন্তু অনুপমার মতো জেদ নিয়েই অভিনয়ে টিকে থাকবেন স্থির করেন। বুটিক থেকে ওয়েট্রেস সব কাজই করেন তিনি। কিন্তু কোনোভাবেই অভিনয় ছেড়ে আসেননি। এমনকি ওয়েট্রেস পোশাকে বাবার মুখোমুখি হন। সেদিনও মনে করেছিলেন কোনও কাজ ছোটো নয়।
img 20220724 213115
এরপর বিজ্ঞাপনের কাজ শুরু করেন। এসময় আলাপ হয় স্বামী অশ্বিনের সঙ্গে। স্বামীর হাত ধরে বড়ো পর্দা ছেড়ে টেলিভিশন দুনিয়ায় পা রাখেন। বাবার পরামর্শে অভিনয়ে শান দিতে থাকেন। সারাভাই ভার্সেস সারাভাইয়ের অফার আসে অভিনেত্রীর কাছে।ধারাবাহিকটি দর্শকের খুব পছন্দ হয়। সেখানে তৈরি হয় আরও একটা পরিবার। আর ফিরে তাকাতে হয়নি রূপালিকে। কিন্তু মাতৃত্বের খবর আসতেই অভিনয় জীবন থেকে বিরতি নিতে হয়। দীর্ঘ বিরতির পর আবার ফিরে যান অভিনয়ে ‘অনুপমা’র মাধ্যমে। এখন তার দুটো সংসার একটা বাড়িতে একটা শুটিংয়ে। দাপুটে অভিনয় করে তাক লাগিয়ে দেন ধারাবাহিকে। হার না মানা জীবনে অবশেষে সাফল্যের মুখ দেখেছেন অভিনেত্রী।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর