fbpx

নেতাজির আদলে পূজিত হয়েছিল ‘বাপ্পা’, কেমন কেটেছিল স্বাধীন ভারতে গণেশ চতুর্থী?

লেখক অনুজ ধর এক না দেখা ভিডিয়ো শেয়ার করলেন নিজের ফেসবুকে। যা দেখে স্তম্ভিত সবাই।

অনীশ দে, কলকাতা: রাত পোহাতেই গণেশ চতুর্থীর উৎসবে মেতে উঠেছে গোটা ভারতবর্ষ। প্রতি বছরের মতই এইবারও মুম্বাই তাঁর চেনা আন্দাজে সেজে উঠেছে। এই মুহূর্তে গণেশ পুজোয় (Ganesh Chaturthi) ব্যস্ত বলিউডের সমস্ত তারকা। এমনকী প্রচুর জায়গায় তারকাদের আদলে গড়ে তোলা হয়েছে গণেশ মূর্তি। সমস্ত রাজ্যে কাল থেকেই সাজ সাজ রব। আর তাঁরই মাঝে লেখক অনুজ ধর (Anuj Dhar) এক না দেখা ভিডিয়ো শেয়ার করলেন নিজের ফেসবুকে। যা দেখে স্তম্ভিত সবাই। ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে, নেতাজির (Subhas Chandra Bose) আদলে তৈরি হয়েছে গণেশ মূর্তি। এই ভিডিয়ো দেখে আপামর ভারতীয়রা যেন আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছে।

netaji 8

ভিডিয়ো শেয়ার করে অনুজ ধর (Anuj Dhar) লিখেছেন, ১৯৪৬ সালে মুম্বাইতে নেতাজির সাজে সাজানো হয়েছিল গণেশ দেবতাকে। আইএনএ ট্রায়াল এবং আরআইএন- এর উদ্যোগে পুজো হয়।অহিংসা নয়, নেতাজিই যে আমাদের স্বাধীনতার স্বপ্ন পূরণ করেছিলেন, তা বোঝার জন্য এর চেয়ে বড় প্রমাণ আর কী দরকার? এই প্রশ্ন যেন গান্ধীবাদীদের আর নেতাজি ভক্তদের মতাদর্শের লড়াই আরও উস্কে দিল। অনুজ ধর (Anuj Dhar) সুভাষ চন্দ্র বোসকে (Subhas Chandra Bose) নিয়ে বহু বছর গবেষণা করছেন। নেতাজিই যে গুমনামি বাবা সেটা আগেই জানিয়েছেন তিনি।

সেই নিয়ে ছবিও তৈরি করেন পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়। অনুজ ধরের এই পোস্টটি টুইটারে শেয়ার করেছেন পরিচালক। অবশ্য এই তথ্য মানতে নারাজ সুভাষ কন্যা। জাপানে বিমান দুর্ঘটনায় মৃত্যু যে নেতাজির হয়েছিল, সেই বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী তাঁর মেয়ে অনিতা বোস। মৃত্যুর পর নেতাজির দেহের অবশেষ আনা হয় টোকিওর রেনকোজি মন্দিরে আনা হয়। এই বছর অনিতা বোস জানিয়েছেন যে সেই মন্দির থেকে নেতাজির দেহাবশেষ নিয়ে যদি ডিএনএ পরীক্ষা করা হয়, তাহলেই সব পরিষ্কার হয়ে যাবে।

netaji 7

অবশ্য ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ক্ষমতায় আসার পর থেকেই বলেছেন, তিনি নেতাজির দেহাবশেষ দেশে ফিরিয়ে আনবেন। কিন্তু এখনও পর্যন্ত তা সম্ভব হয়নি। বলাই বাহুল্য, নেতাজির মৃত্যু নিয়ে নানা গুনীর নানা মত রইলেও ভারতবাসীর কাছে আজও তিনি একজন নায়ক, অনুপ্রেরণা। তাই তাঁর অন্তর্ধান রহস্য নিয়েও বারংবার মুখে কুলুপ এঁটেছে ভারত সরকার। অন্যদিকে অনুজ ধর নতুন প্রজন্মকে নেতাজি সম্বন্ধে অবগত করার দায়িত্ব যেন নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন। উল্লেখ্য, কমিশনের কাছে তিনি হেরে গেলেও সত্যের খোঁজে আজও তিনি মগ্ন।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর