fbpx

রিল ও রিয়েল লাইফে নেই! আজকের সিরিয়ালের ন্যাকামি, কূটকাচালি নিয়ে মুখ খুললেন পর্দার ‛ঠাম্মি’

বাংলার প্রথম থেকে শেষ সুপারস্টার সবার সঙ্গেই কাজ করেছেন তিনি। যে কোনও চরিত্রকেই যেন মাটির মানুষের আঙ্গিক দিতেন মিতা চট্টোপাধ্যায়।

অনীশ দে, কলকাতা: টলিউড ইন্ডাস্ট্রির চেনা মুখ মিতা চট্টোপাধ্যায়। একাধিক প্রজন্মের সঙ্গে অভিনয়ের অভিজ্ঞতা রয়েছে তাঁর (Mita Chatterjee)। বাংলার প্রথম থেকে শেষ সুপারস্টার সবার সঙ্গেই কাজ করেছেন তিনি। যে কোনও চরিত্রকেই যেন মাটির মানুষের আঙ্গিক দিতেন মিতা চট্টোপাধ্যায় (Mita Chatterjee)। এই মাসের ২০ তারিখ ৯০ বছরে পা দিলেন এই বরিষ্ঠ অভিনেত্রী। ছোট পর্দা হোক কিংবা বড় পর্দা, তাঁর দাপুটে অভিনয়ের সামনে হার মানতে হয়েছে একাধিক অভিনেতা-অভিনেত্রীকে। ধারাবাহিক ‘জন্মভূমি’র সেই ‘পিসিমা’ চরিত্র আজও সকলের মনে রয়েছে। তবে এই মুহূর্তে ছোট পর্দায় যে ধরনের কাজ হচ্ছে, তা দেখে একেবারেই খুশি নন মিতা চট্টোপাধ্যায় (Mita Chatterjee)।

mita 2

এক সংবাদমাধ্যমের সাক্ষাৎকার চলাকালীন এই বিষয়ে জানিয়েছেন অকপট মিতা চট্টোপাধ্যায়। নতুন ধারার ধারাবাহিকগুলোর বিষয়বস্তুর প্রাসঙ্গিকতা এবং সমাজে তার প্রভাব কীভাবে পড়ছে জানতে চাইলে বিস্ফোরক দাবি করেন মিতা চট্টোপাধ্যায় (Mita Chatterjee)। তিনি জানান, বিষয়টি সমাজ সমীক্ষকরা ভালো বলতে পারবেন। কারণ সমাজের উপর বিনোদনের প্রভাব কোন দিকে বহমান তা তাঁরাই ভালো মতো জানেন। মিতা চট্টোপাধ্যায় আরও জানান, ‘আমি যদি সেই নিয়ে কথা বলি তাহলে অপর পক্ষ বলবে তোমরা কি বদলটা মানতে পার না! পুরনো কোনও জিনিস আঁকড়ে থাকা যায় না।’

mita 3

অবশ্য এরপরেই তিনি একজন সাধারণ মানুষ হিসেবে বলেন, সিরিয়ালের দৃশ্য নকল করার প্রবণতা সামান্য হলেও সাধারণ মানুষের মধ্যে রয়েছে। বিশেষ করে এই প্রবণতা লক্ষ্য করা যায় ছোটদের মধ্যে। ‘আমাদের ছোটবেলায় সেভাবে চাহিদার তোড় ছিল না! বড়জোর বলতে পারতাম, জামাটা কী সুন্দর ছিল। কিন্তু, সেই জামা পেতে লুটোপুটি খাব তা নয়’, তিনি আরও জানান। এছাড়াও নিজের পরিপ্রেক্ষিতে আজকের ধারাবাহিকে বিশ্লেষণ করে মিতা চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘এখন যেভাবে সাজগোজ করিয়ে অভিনেতাদের পর্দার সামনে দাঁড় করানো হয় যেভাবে সেট তৈরি হয়, আমাদের সকলের বাড়ি কি সেই রকম?

mita 4

মূলত বর্তমান সময়ের ধারাবাহিকগুলোর সঙ্গে যে সাধারন মানুষের দৈনন্দিন জীবনের কোনরকম মিল নেই, সেই দিকে আলোকপাত করেছেন অভিনেত্রী। বাংলা ধারাবাহিকের নারী চরিত্রদের বেশভূষা নিয়েও টিপ্পনী কাটেন তিনি। মিতা চট্টোপাধ্যায় জানান, এইরকম ঝকমকে, দামি গয়নার সেট ছোটদের আকাঙ্খাকে দিন দিন বাড়িয়ে দিচ্ছে। সিরিয়ালে নারী চরিত্ররা ভারী গয়না পরে ঘুরে বেড়ালেও বাস্তবে আমরা কি তা কল্পনা করতে পারি? অবশ্য তিনি এই ওপর পক্ষের যুক্তি মাথায় রেখে বলেছেন, অনেকেই হয়তো বলবেন যে এটাতো বাস্তব নয় শুধুমাত্র বিনোদনের জন্যই তৈরি। কিন্তু নিজের দৃষ্টিভঙ্গি থেকে অভিনেত্রী বলেন, ‘যদি আমার দ্বারা কারও কোনও ক্ষতি হয় সেক্ষেত্রে সেই দায় আমারই। এই ছোট মনগুলোকে পীড়িত করলে TRP ওঠে না পড়ে যায় বুঝতে পারি না!’

google-news-icon

লেটেস্ট খবর