fbpx

অল্প বয়সেই বিশ্ব জোড়া খ্যাতি, KGF 2 এডিট করে রাতারাতি জনপ্রিয় ১৯ বছরের কিশোর

বলিউডে এখন আর নিজেদের সিনেমায় চলে না। বলিউডের হল মালিকেরা আজকাল বক্স অফিস কাঁপানোর জন্য দক্ষিনি ছবির উপরেই বেশি নির্ভরশীল। আর হবে নাই বা কেন চলতি বছরে দক্ষিনি ছবির দাপটে হেলে পড়েছে বলিউডের ছবি। খুব কম ছবিই আছে যারা দক্ষিনি ছবির আশেপাশে ঘেষতে পেরেছে। সেটাও এক্কেবারেই নগন্য। পুষ্পা, আরআরআর নতুন সালে এই সিনেমাগুলো বক্স অফিসে রাজ করে বেড়িয়েছে। এসব সুনামি তো না হয় গেল, এবার এল আরেক নয়া ঝড় নাম ‘কেজিএফ ২’।

এই ঝড়ের দাপট যে কতটা ভয়ানক সেটা তো ইতিমধ্যেই বোঝা যাচ্ছে। রীতিমত হলে ঢোকার জন্য ও টিকিট কাটার লড়াই লেগে লেগেছে এই সিনেমাটি দেখার জন্য। কেবলমাত্র বলিউড বললে অবশ্য ভুল বলা হবে কারণ শুধু বলিউড নয় সারা ভারতেই বহু প্রতীক্ষিত সিনেমা ছিল এই সদ্য মুক্তপ্রাপ্ত কেজিএফ ২। সাউথের সবথেকে সুপারহিট সিনেমা ছিল এই ছবির প্রথম পার্ট। মুক্তির পর থেকেই অনুরাগীদের অনুরোধ শুরু হয়ে যায় যে ছবির দ্বিতীয় পার্ট যেন শীঘ্রই আনা হয়।

  KGF 2
KGF 2

আরও পড়ুন…………মুম্বইয়ের দামি স্কুল নয়! ছেলেকে ভর্তি করালেন মুর্শিদাবাদের স্কুলেই, অরিজিতের সরলতার প্রশংসায় নেটপাড়া

পরিচালক অবশ্য নিরাশ করেননি। এই সিনেমার মূল ইউএসপি পয়েন্ট হল একটি সেটি হল সিনেমার সম্পূর্ণ এডিটিং ও কারুকার্য ( VFX work for KGF )। মূলত যে নিখুঁত উপায়ে তারা ভিএসএক্স এর কাজ করেছেন তা সত্যিই অভাবনীয়। ভারতের মত দেশে এরকম লেভেলের ভিএফএক্সের কাজ হতে পারে সেটা এই সিনেমাটি না দেখলে বোঝার অন্ত নেই। প্রথমবারের মতই এবারের পার্টেও বেশ ভালো এডিটিং ও ভিএফএক্সের কাজ করা হয়েছে। একথা অবশ্য দর্শকের মুখে মুখে ঘুরছে।

  KGF 2
KGF 2

আরও পড়ুন………রণালিয়ার বিয়ে উপলক্ষে জামাইকে ২.৫০ কোটির উপহার শাশুড়ির, রইল ছবি

প্রসঙ্গত এই এডিটিং নিয়ে সামনে এলো একটি আশ্চর্যজনক ঘটনা। জানা গেছে সম্পূর্ণ এই এডিটিং সম্পাদনা করেছে মাত্র ১৯ বছরের একটি ছেলে। ছেলেটির নাম উজ্জ্বল কুলকারানি। মাত্র ১৯ বছর বয়সে ভিএফএক্সের কাজ শিখেই কাজ করছেন তাবড় তাবড় এডিটিং প্রজেক্টে। কেজি এফ ২ এর সম্পূর্ণ এডিটিং সম্পূর্ণ করেছে উজ্জ্বল। অল্পবয়সী কিশোর এডিটরের হাতের কাজ দেখে মুগ্ধ নেটবাসী। বেশ মোটা অঙ্কের টাকাও নিয়েছে সে। শুধুমাত্র এই সিনেমাটির এডিটিং এর জন্য বরাদ্দ ছিল ৩০০ কোটি টাকা। তবে টাকা বড় কথা নয় সাউথ ইন্ডাস্ট্রিতে, এখানে দর্শককে কল্পনার জগতে নিয়ে যেতে আর তাক লাগানোটাই মূল উদ্দেশ্য।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর