fbpx

গুটকা বিক্রির জেরে কারাবাস! বিগ বি, শাহরুখ সহ ৩ অভিনেতার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের আদালতে

অনীশ দে, কলকাতা: ভারতবর্ষে এই মুহূর্তে ছবির মান ও ব্যবসার নিরিখে বলিউডের তুলনায় অনেকগুণ এগিয়ে দক্ষিণী ছবি। সাধারন দর্শক অবশ্য তাতে খুবই খুশি। তাদের মতে বলিউড অভিনেতারা ভালো ছবি বানাতেই চান না। সম্প্রতি বিমলের অ্যাড ঘিরে সোশ্যাল মিডিয়াতে আলোড়নের সৃষ্টি হয়। পূর্বে বিমলের অ্যাডে দেখা যেত শুধু অজয় দেবগনকে (Ajay Devgan), কিন্তু পরবর্তীকালে তাকে যোগ দেন শাহরুখ খান (SRK) এবং অক্ষয় কুমার (Akshay Kumar)। অক্ষয় কুমারকে এই অ্যাডে দেখার পরে তার অনুগামীরা তার উপর থেকে বিশ্বাস হারিয়ে ফেলে। যার জেরে ক্ষমা চেয়ে টুইট করেন অক্কি।

কিন্তু এবার এক অভূতপূর্ব ঘটনার সম্মুখীন হলেন অমিতাভ বচ্চন (Amitabh Bachchan), রণবীর সিং (Ranveer Singh), অক্ষয় কুমার, অজয় দেবগন এবং শাহরুখ খান। বিহারের মুজাফফরপুরের সমাজকর্মী তামান্না হাশমি এই পাঁচ অভিনেতার বিরুদ্ধে ৪৬৭, ৪৬৮, ৪৩৯, ১২০বি ধারায় মামলা দায়ের করেছেন আদালতে (Case file against Big B)। চার্জশিটে আরও বলা হয়, শুধুমাত্র কিছু টাকার জন্যে এই সমস্ত তারকারা নিজেদের খ্যাতি ভাঙিয়ে গুটকার প্রচার করছেন, যা একে বারেই মেনে নেওয়া যায় না। ২৭শে মে আদালতে এই মামলার শুনানি (Case file against SRK)।

bimal 2

এক সময় কমলা পাসন্দ পান মসলার বিজ্ঞাপনে দেখা গিয়েছিল রণবীর সিং এবং অমিতাভ বচ্চনকে। কিন্তু পরবর্তীকালে অমিতাভ বচ্চনের অফিসের তরফ থেকে জানানো হয়, “বচ্চন যখন ব্র্যান্ডের সাথে যুক্ত হন, তখন তিনি সচেতন ছিলেন না যে এটি সারোগেট বিজ্ঞাপনের আওতায় পড়ে। এখন, তিনি ব্র্যান্ডের সাথে চুক্তি বাতিল করেছেন এবং প্রচারের জন্য প্রাপ্ত অর্থ ফেরত দিয়েছেন।”

akki vimalm 2

জনগণের রোষানলের মুখে পড়ার পর অক্ষয় কুমারও ক্ষমা চান। তিনি টুইটারে লেখেন, “আমি দুঃখিত। আমি আমার সমস্ত ভক্ত এবং শুভাকাঙ্ক্ষীদের কাছে ক্ষমা চাইছি। গত কয়েকদিন ধরে আপনাদের প্রতিক্রিয়া আমাকে গভীরভাবে প্রভাবিত করেছে। যদিও আমি তামাককে সমর্থন করিনি এবং করব না। সবিনয়ের সাথে, আমি পিছিয়ে যাচ্ছি। আমি একটি বিশেষ কারণে জন্যে এই বিজ্ঞাপন করেছি, এই বিজ্ঞাপন থেকে প্রাপ্ত টাকা ব্যয় হবে ভালো কাজে। ”

আরও পড়ুন:‘সকালের ঘুম ভাঙতো তার হাতের চা খেয়ে’, ফাঁস হল পল্লবী দে-র জীবনের গোপন তথ্য
তিনি আরওলেখেন, “বাধ্যতামূলক চুক্তির আইন অনুযায়ী ব্র্যান্ডটি নির্দিষ্ট সময়কাল পর্যন্ত বিজ্ঞাপন প্রচার চালিয়ে যেতে পারে, তবে আমি ভবিষ্যতে ব্র্যান্ড এনডোর্স করার ব্যাপারে অত্যন্ত সচেতন থাকার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি। বিনিময়ে আমি চিরকাল আপনাদের ভালবাসা এবং শুভেচ্ছা চাইব।” সম্প্রতি তেলেগু সিনেমার রাজপুত্র মহেশ বাবুও এমনই এক বিতর্কে জড়ান।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর