fbpx

দেশের এই বিখ্যাত ক্রিকেটারের বায়োপিক বানাতে গিয়ে ব্যর্থ! অবশেষে মিতালী রাজ হন সৃজিতের সহায়

অনীশ দে, কলকাতা: টলিউডের হাতেগোনা পরিচালক আছেন যারা জাতীয় স্তরে সুনাম কুড়িয়েছেন। যাদের মধ্যে অন্যতম হচ্ছেন সৃজিত মুখোপাধ্যায় (Srijit Mukherji)। কয়েকদিন আগেই টোটা রায় চৌধুরী নিজেও জানিয়েছেন রণবীর সিং (Ranveer Singh), আলিয়া ভাট (Alia Bhatt), করণ জোহর (Karan Johar) সবাই এক ডাকে চেনেন সৃজিতকে (Srijit Mukherji)। সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে তার আসন্ন বলিউড ছবির টিজার। ছবিটি ক্রীড়াবিদ মিতালি রাজের (Mithali Raj) বায়োপিক। ছবির নাম শাবাশ মিঠু। তবে কয়েকদিন আগেই এক নতুন রহস্যভেদ করলেন ফেলুদা পরিচালক। তিনি জানান, তিনি প্রথমে মিতালির বায়োপিক বানাতে চাননি। একটি সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সৃজিত (Srijit Mukherji) এই সত্যের উপর আলোকপাত করেন।

srijit 5

তিনি বলেন, “আমি অনেকদিন ধরেই ভায়াকমের সাথে ক্রিকেট বায়োপিক করার চেষ্টা করছিলাম। আমরা একজনকে প্রাধান্য দিয়েছিলাম, কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত তা বাস্তবায়িত হয়নি। পরিবর্তে একদিন, আমি ভায়াকম থেকে বিশেষভাবে অজিতের (আন্ধারে) কাছ থেকে এই অফারটি পেয়েছিলাম এবং তিনি বলেছিলেন যে এই বায়োপিকটি হচ্ছে মিতালি রাজকে নিয়ে, যিনি স্পষ্টতই মহিলা ক্রিকেট গেমের কিংবদন্তি।” কিন্তু কোন ক্রিকেটারকে নিয়ে নিয়ে তিনি ছবি বানাতে চেয়েছিলেন? তিনি ক্রিকেটের মহারাজ সৌরভ গাঙ্গুলি।

srijit 4

মিতালির বায়োপিক বানাতে সৃজিত শেষমেশ রাজি হলেন কিভাবে? সেই প্রসঙ্গে সৃজিত জানান, ” “আমি খুব, খুব উত্তেজিত ছিলাম কারণ ক্রিকেট আমার নেশা। আমি অন্য যেকোন কিছুর চেয়ে ক্রিকেটের প্রতি বেশি অনুরাগী, এমনকি সিনেমার চেয়েও বেশি। ক্রিকেট আমার প্রথম প্রেম, কিন্তু আমি কখনই ক্রিকেটের ওপর কোনো ফিল্ম, এমনকি কোনো স্পোর্টস ফিল্মও বানাইনি, এবং আমি ভেবেছিলাম ক্রিকেটের ওপর আমার প্রথম স্পোর্টস ফিল্ম বানানোর এটি একটি সুবর্ন সুযোগ হবে, এবং সেটা সত্যিও। মিতালি কিংবদন্তি। তাই আমি স্ক্রিপ্টটি পড়েছি, এটি পছন্দ করেছি এবং এভাবেই এটি শুরু হয়েছিল।”

srijit 3

সৌরভ গাঙ্গুলীর বায়োপিক করার ইচ্ছা প্রকাশ সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের অনেকদিন আগেই জানিয়েছেন। এমনকি ছিন্নমস্তার অভিশাপের রিলিজের সময় এক অনুষ্ঠানে সৃজিত ও সৌরভ দুজনেই উপস্থিত ছিলেন। সেই অনুষ্ঠানেও দাদা জানান, সৃজিত অনেকদিন ধরেই তার পিছন পিছন ঘুরছে এই বায়োপিকের কারণে। তবে সৌরভ গাঙ্গুলি সৃজিতের নির্দেশনায় তার বায়োপিক বানাতে অনুমতি দেবেন কিনা, তা নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে। কারন বলিউডে শাবাশ মিঠু সৃজিতের প্রথম ছবি না। হিন্দি চলচ্চিত্রের তার আগমন ২০১৭ সালে বেগম জান – এর হাত ধরে। এই ছবির মুখ্য চরিত্রে বিদ্যা বালন থাকলেও বক্স অফিসে ছবি মুখ থুবড়ে পড়ে। তাছাড়াও সৃজিতের নির্দেশনায় তৈরি শেরদিল সম্প্রতি মুক্তি পায়, সেই ছবিটিও বলিউডে ফ্লপ করে।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর