fbpx

Janmashtami 2022: ‛কেষ্টা বেটাই চোর’ অনুব্রত মন্ডলকে ধুয়ে দিতে পিছপা হল না আমূল সংস্থাও

‘কেষ্টা বেটাই চোর!’ জন্মাষ্টমীতে শুভেচ্ছা বার্তার মধ্যে কি রাজনীতির গন্ধ? প্রশ্ন নেটিজেনদের

মন্টি শীল, কলকাতা: ঘরে ঘরে জাঁকজমকের সঙ্গে পালিত হচ্ছে জন্মাষ্টমীর মহোৎসব। হিন্দু পুরাণ মতে, আজকের এই পবিত্র দিনেই আবির্ভাব ঘটেছিল ভগবান শ্রী কৃষ্ণের ( Krishna Janmashtami )। আর তাই প্রতিটা হিন্দু ঘরে জাঁকজমকের সঙ্গে পালিত হচ্ছে জন্মাষ্টমীর। তৈরি হচ্ছে নানা রকমের মিষ্টান্ন, ভোগ, হচ্ছে পুজোর আয়োজন তোড়জোড়। আর এমন শুভ মুহূর্তে জন্মাষ্টমীর শুভেচ্ছা বার্তা প্রেরণ করলেন ভারতবর্ষের সর্ববৃহৎ ডেয়ারি সংস্থা আমূল ( Amul )। এদিন সংস্থা তাঁর নিজস্ব সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে একটি পোস্ট করে দেশবাসীর উদ্দেশ্যে শুভেচ্ছা বার্তা প্রেরণ করেন।

কিন্তু এই সংস্থার তরফে দেওয়া শুভেচ্ছা বার্তাতে এক অদ্ভুত বিতর্কের গন্ধ খুঁজে পেলেন নেটিজেনরা, শুরু হল বিতর্কের। কিন্তু কি এমন ঘটল যার দরুন এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হল? সংস্থার তরফে করা পোস্টে একটি আমূল বাটারের ছবির সঙ্গে লেখা রয়েছে ‘শুভ জন্মাষ্টমী’ এবং তাঁর নীচে লেখা রয়েছে ‘কেষ্টা বেটাই চোর!’ আর বিতর্কের সূত্রপাত সংস্থার এই মন্তব্যের পর থেকেই। কারণ এই মন্তব্যের মধ্যে এক রাজনৈতিক গন্ধ খুঁজে পেলেন নেটিজেনরা।

19c31

সাধারণত ভগবান শ্রী কৃষ্ণকে মাখন চোর বলে জেনে থাকবেন, কিন্তু অনেকেই এর সঙ্গে বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মন্ডলের যোগসূত্র খুঁজে পেলেন। কারণ ঘটনাচক্রে অনুব্রত মন্ডলের অপর নাম কেষ্ট মন্ডল। কারণ, বিগত ১১ ই আগস্ট কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা বা সিবিআই’এর হাতে গ্রেফতার হন বীরভূম জেলার তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি অনুব্রত মন্ডল। তাঁর বিরুদ্ধে মূলত অভিযোগ, তিনি গুরু পাচার কান্ডের অন্যতম কান্ডারি। যদিও সেই সমস্ত বিষয় সম্পূর্ণরূপে বিচার বিভাগীয় এবং তদন্ত সাপেক্ষ।

কিন্তু এই ছবি সামনে আসার পর স্বাভাবিক ভাবেই নেটিজেনরা আলোচনার এক নতুন বিষয়বস্তু খুঁজে পেলেন তাঁতে কোনও সন্দেহের অবকাশ নেই। বলে রাখা ভাল, এর আগে শিক্ষক দুর্নীতি মামলায় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা বা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের হাতে গ্রেফতার হন রাজ্যের ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। যার পর স্বাভাবিক ভাবেই কিছুটা অস্বস্তিতে পড়েছিল রাজ্যের বর্তমান শাসকদল। এরপর নেটদুনিয়া জুড়ে ভাইরাল হতে দেখা যায় সেই সম্পর্কিত বেশ কিছু মিম। এর রেশ কাটতে না কাটতেই ফের কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার হাতে গ্রেফতার হন রাজ্যের আরও এক নেতা অনুব্রত মন্ডল। যার পর সোশ্যাল মিডিয়াতে এই ধরনের পোস্ট স্বাভাবিক ভাবেই শাসকদলের অস্বস্তি আরও কয়েক গুণ বৃদ্ধি পেতে চলেছে তা আর বলতে বাকি থাকে না।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর