fbpx

Ditipriya Roy:’রানি রাসমণি’র হাত ধরে আকাশ ছোঁয়া, অল্প বয়সেই ছোট পর্দা থেকে বড় পর্দায় লাফ দিতিপ্রিয়ার

বাঙালি ভোলেনি সাদা থান, গায়ে চাদর একজন দৃঢ়চেতা মহিলা।যিনি টিভির পর্দায় আসা মাত্র দর্শক চোখ ফেরাতে পারে না। আট থেকে আশি প্রত্যেক সিরিয়াল প্রেমী দর্শক সন্ধ্যে সাড়ে ছ’টা মানেই বুঝতেন জি বাংলার রানি রাসমণিকে। ২০১৭ সালের ২৪ জুলাই শুরু হয়েছিল করুণাময়ী রানি রাসমণি ৷ খুব অল্প দিনের মধ্যেই মানুষের মনে মণিকোঠায় জায়গা করে নেয় এই ধারাবাহিক ৷ বিভিন্ন চরিত্রের সাবলীল অভিনয় ও উপস্থাপনা একে সাফল্যের চূড়ায় নিয়ে যায় ৷ কিন্তু সবচেয়ে বেশি আকর্ষণীয় বিষয়, এই ধারাবাহিকে বাঙালি খুঁজে পায় আর এক অভিনেত্রী দিতিপ্রিয়া রায়কে ( Ditipriya Roy ) ৷
img 20220810 140020

রানিমার চরিত্রে অল্পবয়সি মেয়ে দিতিপ্রিয়া তাক লাগিয়ে দেন দর্শকদের। মাত্র ১৫ বছর বয়সেই রানি মার ছোট বেলা থেকে একেবারে বৃদ্ধা বয়স অবধি সমস্ত বয়সের ছবি পর্দায় ফুটিয়ে তোলেন অবলীলায়। দিতিপ্রিয়ার অভিনয় ছিল রানি রাসমণির প্রাণকেন্দ্র।তাই কেরিয়ারে আর কখনও ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। এখন কি করছেন রানিমা ওরফে দিতিপ্রিয়া?

১৩ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২২ শেষ হয়েছে ধারাবাহিকের সম্প্রচার। আর তারপরই জীবনটাই পাল্টে গেছে দিতিপ্রিয়া। মাত্র চারবছর কি তারও কম বয়স থেকে টেলিভিশনের পরিচিত মুখ ছিলেন দিতিপ্রিয়া। যীশু সেনগুপ্তর কন্যা, সন্দীপ্তার মেয়ে ইত্যাদি একাধিক চরিত্রে দর্শকদের ভালোবাসা পেয়েছেন। তবে রানি রাসমণি ইন্ডাস্ট্রিকে দিয়েছে একজন ভরসাযোগ্য অভিনেত্রী।
img 20220810 135913

‘রাজকাহিনী’ ছবিতে স্বল্প সময়ে বড়পর্দায় একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে দেখা গেলেও টানা চার বছর ধারাবাহিকের চাপে আর বড়োপর্দায় আসা হয়নি। রাসমণি নামে তার এত খ্যাতি হয় যে দিতিপ্রিয়ার লক্ষ্য আবার ভেঙেচুরে নিজেকে অন্য কাঠামো দেওয়া। তাই বিভিন্ন বিজ্ঞাপনের প্রধান মুখ থেকে একাধিক ওটিটি সিরিজে তাবড় তাবড় অভিনেতার সঙ্গে চুটিয়ে অভিনয় করছেন। সম্প্রতি প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের মেয়ের চরিত্রে ‘আয় খুকু আয়’ ছবিতে অভিনয় করেছেন। এখন পাভেল পরিচালিত ‘কলকাতা চলন্তিকায়’ একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন।সেখানে তার বিপরীতে রয়েছে জনপ্রিয় ইউটিউবার তথা অভিনেতা কিরণ দত্ত। অচেনা উত্তম ছবিতেও রয়েছেন দিতিপ্রিয়া। এছাড়াও হাতে রয়েছে বহু বিগ বাজেট ছবি। ওটিটি সিরিজে রুদ্রবীণার অভিশাপে সাঝ চরিত্রেও অত্যন্ত প্রশংসিত হয়েছেন। ওটিটির হাত ধরেই মুম্বাই পাড়ি দিয়েছিলেন। তবে কি মুম্বাই ঘরবাড়ি হয়ে গেল দিতিপ্রিয়ার?

দিতিপ্রিয়া জানিয়েছেন বাংলা ইন্ডাস্ট্রির মতো ভালোবাসা আর কোথাও পাব না।দিতিপ্রিয়া বাংলাতেই থাকতে চান। রানি রাসমণিকে আজও ভুলতে পারেননি। অভিনেত্রী জানান, আজ যেটুকু সাফল্য পেয়েছেন সেটুকু রাসমণির জন্যই। তাই আবার এরকম ভালো চরিত্র পেলে আবার ছোটপর্দায় ফিরবেন। তবে সব রকম স্বাদ নিতে চান অভিনেত্রী।উনিশটি বসন্ত পার করে কুড়ির যৌবনে পা রাখা উচ্ছ্বসিত দিতিপ্রিয়ার চোখে এখন হাজার স্বপ্নের ভীড়।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর