fbpx

Laal Singh Chaddha: ক্রিকেট জগতে ‘লাল সিং’কে বয়কটের ডাক! টুইট করেই আমির খানকে ধুয়ে দিলেন মন্টি পানেসার

মন্টি পানেসার লিখেছেন, ‘আমির খান এই সিনেমায় একজন মূর্খের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। ফরেস্ট গাম্পও একজন মূর্খ ছিলেন। এটা যথেষ্ট অপমানজনক।

বয়কট ট্রেন্ডের আঁধারে ছেয়েছে গোটা দেশ। এর আগেও এই ধারা মানুষের মধ্যে তীব্র ভাবে লক্ষণীয় হলেও সময়ের সঙ্গে যেন ঘোর বৃদ্ধি পেয়েছে। বলিউড ( Bollywood ) সুপারস্টার আমির খানের ( Superstar Aamir Khan ) ‘লাল সিং চাড্ডা’  ( Laal Singh  Chaddha ) সিনেমাকে নিয়ে বেশ উত্তেজনা ছড়িয়েছে দেশ-বিদেশে। সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে শুধুই বয়কটের ডাক। এমন এক অশনি সময়ের মধ্যে দিয়েই আপাতত দিন কাটছিল ‘লাল সিং চাড্ডা’র। এই সবের মাঝেই বড় পর্দায় সম্প্রচার। তবে এটা ঠিক যে, রিলিজের পর রিভিউ খুব একটা ভাল আসেনি। সেই সঙ্গে বেড়ে যায় নেতিবাচক প্রতিক্রিয়ার পরিমাণ। এমতাবস্থায়  এই সিনেমার বিরুদ্ধে বয়কটের ডাক দেয় ইংল্যান্ডের প্রাক্তন ক্রিকেটার মন্টি পানেসার ( Monty Panesar )। 

লাল সিং চাড্ডা নিয়ে টুইট করতে গিয়ে মন্টি পানেসার লিখেছেন, ‘ফরেস্ট গাম্প কথাটি শুধু মাত্র মার্কিন সেনাবাহিনীর সঙ্গে যায়। কারণ, ভিয়েতনাম যুদ্ধের সময়কালে সেনাবাহিনীতে অনেক স্বল্প বুদ্ধি সম্পন্ন মানুষজনকে নিয়োগ করা হয়েছিল। কিন্তু লাল সিং চাড্ডা সিনেমার মাধ্যম দিয়ে ভারতীয় জওয়ান ও শিখ সম্প্রদায়ের অসম্মান করা হচ্ছে।’

laal singh chaddha1

শুধু তাই নয়, মন্টি পানেসার আরও লিখেছেন, ‘আমির খান এই সিনেমায় একজন মূর্খের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। ফরেস্ট গাম্পও একজন মূর্খ ছিলেন। এটা যথেষ্ট অপমানজনক।’ নিজেদের প্রতিটি টুইটের মধ্যে দিয়ে ‘লাল সিং চাড্ডা’কে বয়কটের ডাক দেন খেলোয়াড়।

তবে ইংল্যান্ডের এই প্রাক্তন ক্রিকেটর বয়কটের ডাক দিলেও অন্য সুর গাইছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন ওপেনার আকাশ চোপড়া। এই সিনেমা তাঁর মুখে শোনা যায়নি কোনও অভিযোগ। সিনেমার প্রশংসা করে তিনি অসাধারণ বলেছেন। যার জেরে নেটমাধ্যমে তাঁকে নিয়েও শুরু হয়েছে বিতর্ক। তাঁর ইউটিউব চ্যানেলে ক্রমাগত সাবস্ক্রাইবারও পড়তে শুরু হয়েছে ভীষণ ভাবে। 

উল্লেখ্য, সিনেমাটি মুক্তির তারিখ যতই এগিয়েছে, ততই বয়কটের ডাক আরও চড়াও হয়েছে নেটমাধ্যম জুড়ে। কেন এই বিতর্কের সূত্রপাত? এই প্রসঙ্গে জানা গিয়েছে, সিনেমা মুক্তির আগেই হটাৎ ইন্টারনেটে আমির খানের ২০১৫ সালের একটি সাক্ষাৎকার ভাইরাল হয়ে যায়। যেখানে মিস্টার পারফেকশনিস্টকে বলতে শোনা যায়, দেশে বাড়তে থাকা অন্যায়-অপরাধ পরিস্থিতি জেরে তাঁদের  দেশ ছেড়ে চলে যাওয়ার ভাবনা আসে। মূলত, এই মন্তব্যকে প্রসঙ্গ করে প্রথমে বিতর্কের সূত্রপাত। এরপর থেকে লাল সিং চাড্ডাকে নিয়ে একাধিক ইস্যুতে বুঁদ হয় নেটিজেনরা। ওঠে বয়কটের ডাক।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর