fbpx
Thursday, October 6, 2022

Ssc Recruitment Scam : শুধুই ‘কোটি’ টাকার গল্প! ৫০২ দিন অতিক্রম করেও রাস্তায় ‘কুকুর-বিড়ালের মতো পড়ে’ আন্দোলনরতরা

নেহা চক্রবর্ত্তী, কলকাতা : গান্ধীমূর্তির পাদদেশে এসএসসি ( SSC ) চাকরি প্রার্থীদের আন্দোলনের আজ ৫০২ তম দিন। তবে দিনের সংখ্যা নিয়ে একদমই ভাবতে নারাজ আন্দোলনকারীরা। তাঁদের দাবি একটাই, নিয়োগপত্র দিতে হবে। টানা ৫০২ দিন ধরে পথে অবস্থান করে চলেছেন শিক্ষক চাকরি প্রার্থীরা। তাঁরা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন স্কুলে যোগ না দেওয়া পর্যন্ত কোনওভাবে অবস্থান থেকে উঠবেন না( SSC Scam ) ।

img 20220729 222107

উল্লেখ্য, প্রথম আন্দোলন শুরু হয়েছিল ২০১৯-এ কলকাতা প্রেস ক্লাবের সামনে। তখন প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সময় আন্দোলনকারীদের যাঁরা নেতৃত্ব দিয়েছেন শুধু তাঁরা চাকরি নিয়ে সরে পড়েছেন আন্দোলনের মঞ্চ ছেড়ে। বর্তমানে শিক্ষামন্ত্রী তথা শিল্পমন্ত্রী এখন ইডির হেফাজতে। চলছে তল্লাশিও একের পর এক সাথে আদালতে মামলাও ।

আন্দোলনকারীরা বলছেন,”এত কিছুর পরও আমরা এখনও রাস্তায় বসে আছি।শারীরিক ও মানসিক ভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ছি। আর কত দিন এভাবে চলবে?” দক্ষিণেশ্বরের রাজশ্রী দাসের কথায়,”আমাদের বিদ্যালয়ে থাকার কথা আমরা সে জায়গায় রাস্তায় পরে আছি ভিখারি বা কুকুর বিড়ালের মত। কিন্তু যারা পাশ করেননি তাঁরা রয়েছেন বিদ্যালয়ে। এটা জীবন জীবিকার লড়াই শুধু নয় সামাজিক সমস্যা। আগামী ভবিষ্যত এই দুর্নীতির কারণে যে বঞ্চিত হবে তা আর বলে দিতে হবেনা নতুন করে”। মুর্শিদাবাদের শহিদুল্লাহর কথায়, “সারা রাজ্যে দুর্নীতি প্রাতিষ্ঠানিক রূপ পেয়েছে। গ্রাম বাংলায় ধারণা তৈরি হয়েছে টাকা না দিলে চাকরি হবে না। টাকার মাধ্যমে চাকরি বিক্রি হয়েছে তাতে সন্দেহ নেই। পরীক্ষা দিতে যাওয়ার সময়ও শুনেছিলাম টাকা না দিলে চাকরি হবে না। আমরা ভেবেছিলাম মেধা দিয়ে চাকরি পাব। আমাদের চেনা বন্ধু যে ভালভাবে পাশ করতে পারেনি, সে এখন চাকরি করছে। একেবারে পরিকল্পিত স্ক্যাম।” রাজশ্রী আরও বলেন,” আমরা রোদ জল বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে রাস্তায় ফুটপাথে পরে আছি ,প্রচণ্ড দাবদাহে হসপিটালেও ভর্তি থেকেছি, আমাদের সহযোদ্ধারা অনেকেই অসুস্থ হয়ে পড়েছে। লেডিস টয়লেট নেই, না আছে খাবারের ব্যবস্থা। বজ্রপাতের সময় বাড়ির লোক জানতেও পারেন না তাদের ছেলেমেয়েরা বেঁচে আছে নাকি বাজ পরে মারা গিয়েছে। এই কঠিন অবস্থা থেকে মুক্তি চাই। চাই সুস্থ সমাজে ফিরতে। চাই স্কুলে ফিরতে।” প্রত্যেককে এগিয়ে আসতে এবং সমাজকে দুর্নীতিগ্রস্ত থেকে মুক্ত করার আবেদন নিয়ে আজ ৫০২ দিনের অবস্থানে তাঁরা।

 

google-news-icon

লেটেস্ট খবর