fbpx

Ujjaini Mukherjee: “মাঝরাতে পরিচালকরা ফোন করত”, বিনোদন জগৎ নিয়ে এ কী বললেন সারেগামাপা-এর উজ্জয়িনী

কেরিয়ারের শুরুতেই পেয়েছেন সঙ্গীত পরিচালকের কূপ্রস্তাব! উজ্জয়িনী মুখার্জির বিষ্ফোরক মন্তব্যে শোরগোল নেটমাধ্যমে

মন্টি শীল, কলকাতা: সাধারণত বিনোদন জগতে কান পাতলে শোনা যায়, বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন সিনে তারকারা কাস্টিং কাউচের শিকার হয়েছেন। যাকে কেন্দ্র করে একাধিক আলোচনায় সরব হয়েছেন নেটনাগরিকরা। কিন্তু আপনি কি জানেন, ইদানিং এই কাস্টিং কাউচের প্রসঙ্গ উঠে এসেছে সঙ্গীতের সুরেলা জগতে? হ্যাঁ ঠিকই শুনেছেন। সম্প্রতি বাংলা তথা ভারতবর্ষের জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী উজ্জয়িনী মুখার্জি’র ( Ujjaini Mukherjee ) মন্তব্যে উঠে এল এমনই কিছু চাঞ্চল্যকর তথ্য। যাকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যেই ব্যাপক শোরগোল পড়ে গিয়েছে নেটদুনিয়াতে।

শোনা যায়, গায়িকা উজ্জয়িনী মুখার্জি ( Ujjaini Mukherjee ) একজন মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান। শৈশব থেকেই তিনি পড়াশোনায় তিনি অত্যন্ত মেধাবী ছিলেন। তাঁর বাবা পেশায় ছিলেন একজন চাকুরিজীবী। জানা গিয়েছে, উজ্জয়িনী প্রথম গানের অনুপ্রেরণা পান তাঁর পিসি এবং তাঁর তাঁর মা’য়ের কাছ থেকে। এরপর সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তিনি ধীরে ধীরে এগোতে শুরু করেন টেলিভিশন রিয়ালিটি শো’এর দিকে। সূত্র অনুযায়ী, ২০০৫ সালে তিনি প্রথমবার জি বাংলা  ‘সারেগামাপা’তে নিজের প্রতিভা প্রকাশ করার সুযোগ পান। যদিও সেখানে বিজয়ী না হতে পারলেও, পরবর্তী সময়ে ‘সারেগামাপা এক মে অর এক তু’ থেকে তিনি বিজয়ী পুরস্কার অর্জন করেন।

31c32

শুরু হয় একজন সঙ্গীত শিল্পী হিসেবে উজ্জয়িনীর পথ চলা। পরিচয় হতে শুরু হয় সঙ্গীত জগতের নামীদামি শিল্পীদের সঙ্গে। কিন্তু বিনোদন জগতের মূল কেন্দ্রবিন্দু মুম্বাইতে পা রাখার পর কিছু ভয়াবহ অভিজ্ঞতার সাক্ষী হন উজ্জয়িনী। এক সাক্ষাৎকারে গায়িকা বলেন, ‘রিয়ালিটি শোতে বিজয়ী হওয়ার পর একজন নামী সঙ্গীত পরিচালকের কাছ থেকে তাঁর পরবর্তী সিনেমাতে গান করার সুযোগ আসে। যা শোনার পর স্বাভাবিক ভাবেই ভীষণ উত্তেজিত হয়ে ওঠেন তিনি। এরপর একদিন তিনি তাঁর স্টুডিওতে ডেকে গানের অনুশীলন করালেন।’ এই পর্যন্ত সব কিছু ঠিক ছিল। কিন্তু এরই মাঝে ঘটল বিপত্তি।

গায়িকার এদিনের করা মন্তব্য অনুযায়ী, ‘একদিন প্রায় মধ্য রাতে সেই সঙ্গীত পরিচালক তাঁকে ফোন করে বিভিন্ন রকমের অশালীন মন্তব্য করতে শুরু করলেন। এমন পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়ে স্বাভাবিক ভাবেই হতবাক হয়ে যান তিনি।’ এরপর উজ্জয়িনী সেই পরিচালকে প্রশ্ন করেন, ‘কেন তিনি তাঁর সম্পর্কে এমন মন্তব্য করছেন? উত্তরে সেই পরিচালক তাঁকে কিছু অশালীন প্রস্তাব দেন।’ এমন পরিস্থিতিতে তিনি তাঁর লক্ষ্যে অবিচল থেকে গায়িকা বলেন, ‘তিনি তাঁকে সম্মান করেন এবং তাঁর এমন কোনও অভিসন্ধি নেই।’ যদিও এই ঘটনা সেদিনের মত মিটে গেলেও পরবর্তী সময়ে সেই সঙ্গীত পরিচালক তাঁকে সিনেমাতে গান করার সুযোগ করে দেন। এরপর একের পর এক সফলতা অর্জন করতে শুরু করেন উজ্জয়িনী। কিন্তু শিল্পীর এই মন্তব্যে যে বিনোদন জগতে ফের এক নতুন বিতর্কের সূত্রপাত তা আর বলতে বাকি থাকে না।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর