fbpx

Gaatchora: দাদু-নাতির ‘স্পেশাল বন্ডিং’! গাঁটছড়ার দৃশ্য দেখে মিঠাই থেকে ‘টোকা’ বলে কটাক্ষ অনুরাগীদের

বাংলা ধারাবাহিকে এখন ধুন্ধুমার কান্ড। TRP তালিকায় এককালে শীর্ষে থাকা গাঁটছড়া ও মিঠাইয়ের দিকে আজও মুখিয়ে আছে দর্শক। তাই একের পর এক চমক আসতে থাকে। যেমন সিড-মিঠাই ওরফে আদৃত-সৌমিতৃষা, এবং খড়ি – ঋদ্ধি ওরফে গৌরব-সোলাঙ্কির কেমেস্ট্রিতে মজে আম বাঙালি। তবে মিঠাই ইতিমধ্যেই একটি আদর্শ পরিবার হিসেবে নিজেকে প্রমাণ করেছে। মিঠাইয়ের সাফল্যকে অনুকরণ করেই অন্য ধারাবাহিক গুলি সেজে উঠছে। এবার গাঁটছড়ার সেটেও দেখা গেল ভাবগত মিল। ঠিক যেন গল্পটি মিঠাইয়ের ছাঁচে তৈরি হচ্ছে।

শুরু থেকেই মনোহরায় দাদু-ঠাম্মা অর্থাৎ সিদ্ধেশ্বর মোদক ও তার স্ত্রী র ভূমিকা মিঠাই পরিবারে অনস্বীকার্য ছিল। মিঠাই-সিডকে কাছাকাছি আনাই হোক বা পরিবারের ছোটদের বিয়ে দেওয়াই হোক সব সময় ‘অ্যাক্টিভ’ ভূমিকায় ছিলেন। সিদ্ধার্থের সঙ্গে তাঁর দাদুর যে সম্পর্ক তা ধারাবাহিক না দেখলে বোঝা যাবে না। গাঁটছড়া ধারাবাহিকেও এখন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় দেখা যাচ্ছে দাদু-ঠাম্মাকে। নাতি ও নাতবউদের সম্পর্ক কাছাকাছি আনতেই হানিমুনের ব্যবস্থাও করেছেন তারা। আবার প্রায়ই বর্ষীয়ান দাদু ঠাকুমার চিরাচরিত প্রেম দেখিয়ে দর্শককে আনন্দ দিচ্ছেন। পাশাপাশি ঋদ্ধি খড়িও দাদু-ঠাম্মাকে দেখেই সম্পর্কের গুরুত্ব বুঝছে।

এমন অজস্র সিন দেখানো হচ্ছে যেখানে গাঁটছড়ার দাদু তাঁর গৃহিণীকে খাইয়ে দিচ্ছেন। আর তাদের দেখাদেখি চুপিচুপি খড়িও তাঁর ঋদ্ধিমান বাবুকে খাইয়ে দিচ্ছে। এমন প্রেমের দৃশ্য গাঁটছড়াতে বিরল।কারণ ঋদ্ধি কড়ির রেষারেষি জানে না এমন কেউ নেই। তাদের মধ্যে এমন গদ গদ প্রেম দেখে মিঠাই প্রেমীরা ক্ষুব্ধ হয়ে বলছে, “আর কতদিন কনসেপ্ট টুকে চলবে?”কেউ বলছেন ” মিঠাইয়ের মিষ্টি দাদু -ঠাম্মার সঙ্গে কেউ পেরে উঠবে না”।শুধুই তাই নয়,মিঠাইয়ের সঙ্গে পাল্লা দিতে একই সময় বিয়ের দৃশ্য,হানিমুন সবই দেখানো হয়েছে। একই সময় প্রোমোও আসছে দুই ধারাবাহিকের- সবই কী কাকতালীয়! টুকে টুকেই চলছে ধারাবাহিক গুলো, এমন অভিযোগ করছেন মিঠাই ভক্তরা। TRP তালিকায় এই দুটি সেরা ধারাবাহিকের লড়াই লেগেই থাকে। খড়ি আর মিঠাই কে বেশি জনপ্রিয় ?এর উত্তর দেওয়া সহজ নয়। কিন্তু দাদু ঠাম্মার দৌলতে যে খড়ি-ঋদ্ধির প্রেম জমে উঠেছে গাঁটছড়ায় তা বলাই যায়। এখন খড়ি-ঋদ্ধি কাছাকাছি এলেই গাঁটছড়া প্রেমীরা খুশি।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর