fbpx

এখনও মোছেনি পরাজয়ের গ্লানি, আর কত মেজাজ হারাবেন মিস্টার অধিনায়ক

লর্ডস টেস্টে জেতার পর হেডিংলে টেস্টেও ইংল্যান্ডের কাছে পরাজিত ভারত। আরও একটা লজ্জার ব্যাটিং বিপর্যয়ের সম্মুখীন ভারতীয় ব্যাটিং লাইন আপ। আর তারপরেই ফের মেজাজ হারালেন বিরাট। চতুর্থ দিন সকালে মাত্র ৬৩ রানে ৮ টি উইকেট হারিয়ে কার্যত ইংল্যান্ডকে জয় উপহার দেয় ভারত। ইংল্যান্ড জেতে ৭৬ রান ও একটি ইনিংসে। তৃতীয় দিন সকালে মাত্র দুটো উইকেট হারিয়ে ক্রিজে টিকে থাকলেও বাকি ম্যাচে ভারত কার্যত ধারাবাহিক ভাবে পর্যুদস্ত হয়েছে ইংল্যান্ডের কাছে। স্বাভাবিকভাবেই এরকম অতি সাধারণ পারফরম্যান্সের পরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখে পড়তেই হত ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে। কিন্তু প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে আবারও শিরোনাম হয়ে উঠলেন কোহলি। ইতিমধ্যেই ভাইরালও হয়েছে সাংবাদিক সম্মেলনে কিছুটা অংশ।

ম্যাচ পরবর্তী সাংবাদিক সম্মেলনে এক ক্রীড়া সাংবাদিক প্রশ্ন করেন, “বিরাট, তুমি বলেছিলে ইংল্যান্ড দলকে ব্যাটিংয়ের সময় আরও শক্তিশালী দেখাচ্ছিল। তাহলে কি তুমি মনে করো যে টিম ইন্ডিয়া ব্যাকফুটে খেলতে গিয়ে ব্যর্থ হয়েছে ? ব্যাকফুটে খেলাই আগামীতে আপনার রণকৌশলের একটা গুরুত্বপূর্ণ অংশ হতে চলেছে?”  প্রশ্ন শুনে বিরাটকে একটু বিরক্ত লাগছিল। কার্যত মেজাজ হারানোর উপক্রম হয় বিরাটের।উত্তরে বলেন, “সত্যি কথা বলতে কি, আমি এই প্রশ্নের কী উত্তর দেব জানিনা। আপনি কি করে ব্যাকফুটে খেলতে পারবেন যখন সেই বল ব্যাক অফ লেইংথে থাকে না? ৮০ শতাংশ লেন্থে তাহলে ব্যাটসম্যান শুরুতেই খেলবে, ব্যাকফুটে নয়।”

ভারতীয় ক্রিকেট টিম,বিরাট কোহলি,সংবাদ সম্মেলন,ক্রীড়া সাংবাদিক,Indian cricket team,Virat Kohli,press conference,sports journalist

কোহলির জবাবে ওই সাংবাদিক বলেন, “স্পষ্টতই ইংল্যান্ড ফুল লেন্থ বোলিং করছিল, কিন্তু মনে হয়েছিল যখন ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা ব্যাকফুটে গিয়ে রান করার সুযোগ পেয়েছেন, তখন খেলোয়াড়রা সেই সুযোগের অনেকটাই নষ্ট করেছেন।” প্রশ্ন শুনে বিরাট কিছুক্ষণ চুপ থাকার পর ক্ষোভের সঙ্গেই উত্তর দেন, “ঠিক আছে। ধন্যবাদ।” কোহলির দুই শব্দের এই উত্তর সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হতে শুরু করে। একজন সাংবাদিকের সাথে ভারতীয় অধিনায়ক এর এরকম আচরণ দেখে অনেক ভক্তই মাইক্রোব্লগিং সাইটে নিজেদের হতাশা প্রকাশ করেন। তাদের মতে শুধু তার কাজ করতে গিয়ে ভারতীয় অধিনায়ক অহংকারের শিকার হন ওই সাংবাদিক। শুধু তাই নয়, সাংবাদিকের প্রশ্ন পছন্দ না হওয়ায় তিনি তাকে ব্যঙ্গ করতেও ছাড়েনি। প্রসঙ্গত, এটি প্রথম ঘটনা নয় যখন বিরাট সাংবাদিকের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করেছেন। অতীতেও তিনি অনেক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের সাথে কথা কাটাকাটিতে লিপ্ত হয়েছেন। ভাবমূর্তিও ক্ষুণ্ণ হয়েছে একাধিক সময়ে।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর