fbpx

Lalkuthi: অনামিকা নামেতেই জিনির রহস্য ফাঁস! বিক্রমকে চমকে দিয়ে প্রকাশ্যে ইনি কে?

লালকুঠিতে ( Lalkuthi ) হল রহস্য উন্মোচন। ফিরে এল জিনি। বিক্রম চেয়েছিল অনামিকাই জিনি হোক। সন্দেহের তালিকায় ছিল তিন জনের নাম। মহুয়া, নার্স রূপালি ও অনামিকা তিনজনের নাম। তিন জনকে সন্দেহ করার যথেষ্ট কারণ রয়েছে বিক্রমের কাছে। সবার সঙ্গে জিনির স্বভাবগত মিল ছিল, এবং প্রত্যেকেরই লালকুঠির সঙ্গে এক গভীর যোগ ছিল। তাই রহস্য ক্রমশ ঘনীভূত হয়ছিল এই তিন মূর্তিকে ঘিরে। দর্শকের প্রায় স্থির নিশ্চিত বিশ্বাস জন্মেছিল ‘অনামিকাই জিনি’। কিন্তু সকলকে ঠিক বোল্ড করে দিয়ে ‘ অনামিকাই জিনি’ হল । তবে বিষয়টা হল ‘অশ্বত্থামা হত ইতি গজ’।কীরকম ভাবে?

আসলে অনামিকাই জিনি হল। তবে ধারাবাহিকের চরিত্র অনামিকা নয়। বাস্তবের নায়িকা অনামিকা চক্রবর্তী ( Anamika Chakraborty ) এল জিনির ভূমিকায়। নাম বিভ্রাট ঘটল ধারাবাহিকে। হোটেল রুমের বাইরে কালো হুডি পরা জিনির সঙ্গে সাক্ষাৎ হল বিক্রমের। বিক্রম একেবারে স্থির নিশ্চিত ছিল সেদিন হোটেলে জিনি আসবেই। সেখানেই বারো বছর পর জিনি এল বিক্রমের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে। কিন্তু তাকে দেখেই চমকে উঠল বিক্রম। না! অনামিকা বিক্রমের স্ত্রী, কিন্তু সে জিনি নয়। জিনি আসলে জিনিই। সেই ছোট চুল। গায়ে কালো হুডি। একেবারে পুরুষালি চালচলন।

জিনি ফিরে এসে জানালো তার অসহায়তার কথা, প্রতিহিংসার কথা, বাড়ি বেদখল হয়ে যাওয়ার যন্ত্রনার কথা। সর্বোপরি জিনি জানাল যে সমস্ত বিপদের কথা বিক্রমকে জানাতে গিয়েও সেদিন তার সাহায্য না পাওয়ার কথা। দেশে ফিরে সব ভুলে অনামিকার সঙ্গে সম্পর্কে জড়ানোর কথা। জিনিকে তো ভুলেই গিয়েছিল বিক্রম। নতুন বিয়ে সংসারে জিনি অনেকবার ভয় দেখানোর চেষ্টা করেছে। বিক্রম অনামিকাকে দেখে অনেক সময় সে প্রচন্ড ক্ষুব্ধ হয়েছে। কিন্তু বিক্রমকে অনামিকার প্রতি দুর্বল হতে দেখে সরে যায়। তবে মুখোমুখি দাঁড়িয়ে সে জানায় প্রতিহিংসার কথা। বিক্রম যেন জিনিকে সামনে পেয়েও সংকোচে রয়েছে, আশাহতের মতো ছটফট করতে দেখা যায়।

ভৌতিক আবহ দিয়ে শুরু হয়েছিল ‘লালকুঠি’ ( lalkuthi )। তবে টানটান ভৌতিক গল্প নয়, বরং অনেক বেশি রহস্যে মোড়া ছিল। কিন্তু মানুষ জিনিকে দেখে আশাহত দর্শক। কেউ আবার রুকমা অর্থাৎ ধারাবাহিকের অনামিকাকেই জিনি হিসাবে দেখতে চেয়েছিল। দর্শকদের আশায় জল ঢেলে এসেছে নতুন জিনি। তার কথাবার্তাতেই প্রকাশিত হয়েছে প্রতিহিংসা পূরণ করতে এসেছে। তবে কি অনামিকা-বিক্রম- জিনির ত্রিকোণ প্রেমের গল্প শুরু হবে। সাংসারিক কূটকাচালির গল্প শুরু হলে বিরক্ত হবে দর্শক। তবে জিনির ভাগ্য নির্ধারণ করবেন ‘লালকুঠির’ নির্মাতারা।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর