Karishma Kapoor: বন্ধুর সাথে যৌনতার প্রস্তাব দেয় সঞ্জয়, করিশমার বিস্ফোরক মন্তব্যে তোলপাড় বি-টাউন

অনীশ দে, কলকাতা: মুক্তি নব্বইয়ের দশকে গোবিন্দা, অক্ষয় কুমার, সালমান খান এবং কিং শাহরুখ খানের বেশির ভাগ ছবিতেই তাদের বিপরীতে দেখা গিয়েছে কারিশমা কাপুরকে(Karisma Kapoor)। রোমান্টিক কমেডি হোক বা অ্যাকশন থ্রিলার সব ধরনের ছবিতেই সাবলীল ছিলেন কারিশমা(Karisma Kapoor)। এমনকি গোবিন্দার সাথে তিনি এত কাজ করেছেন যে গোবিন্দার বিপরীতে তাকে ছাড়া আর কাউকে ভাবাই যায় না। কিন্তু সফলতার শিখরে পৌঁছে তিনি(Karisma Kapoor) বলিউড ছেড়ে দেন ব্যক্তিগত জীবনের জন্য। আর অন্যদিকে তার ব্যক্তিগত জীবন যেনো দিন দিন বিপর্যস্ত হয়ে পড়ছিলো।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Karisma Kapoor (@therealkarismakapoor)

 একসময় বলিউডে এমনও সোনা যায় যে অমিতাভ বচ্চনের বৌমা হতে পারেন কারিশমা(Karisma Kapoor)। অভিষেক বচ্চনের(Abhishek Bachchan) সাথে করিশমার সুগভীর সম্পর্কের কথা তখন প্রায় সবাই জানত এবং দুই পরিবারের মধ্যে বিয়ের কথাও এগোয় অনেকদূর। এমনকি রিফিউজি ছবির শুটিং চলাকালীন কারিনা কাপুর অভিষেককে জামাইবাবু বলে ডাকতেন এমনটিও জানা যায়। কিন্তু ভাগ্যের লিখন কেউ বদলাতে পারে না, শেষ পর্যন্ত কাপুর ও বচ্চন পরিবারের ভুল বোঝাবুঝির জন্য সম্পর্কটি আর গড়ে ওঠে না। এরপর ২০০৩ সালে সঞ্জয় কাপুরকে(Sanjay Kapur) বিয়ে করেন করিশমা(Karisma Kapoor)।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Karisma Kapoor (@therealkarismakapoor)

 বিয়ের পর একাধিকবার অপমানিত হতে হয়েছিল করিশমাকে, এমনকি স্বামী সঞ্জয় কাপুরের(Sanjay Kapur) ব্যবহার ছিল অত্যন্ত খারাপ। ২০১৩ সালে স্বামী সঞ্জয়ের বিরুদ্ধে ডিভোর্স ফাইল করে সন্তানদের নিয়ে বাপের বাড়ি চলে আসে কারিশমা। সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে চাঞ্চল্যকর দাবি করে বসেন কারিশমা। এই সাক্ষাৎকারে তিনি জানান বিয়ের পর তারা যখন হানিমুনে যান তখন এক রাতের জন্য তাকে নিলামে তোলা হয়। এমনকি সঞ্জয় তার বন্ধুদের সাথে যৌন সম্পর্কে আবদ্ধ হওয়ার জন্য বলে কারিশমাকে(Karisma Kapoor)। কিন্তু সে তা মেনে না নেয়ায় বেধড়ক মার খেতে হয়।

 এতো কিছুর পরেও সেই সম্পর্ককে সুদূরপ্রসারী করতে চেয়েছিলেন কারিশমা। তিনি আরো জানান যে বিয়ের পরেও সঞ্জয়(Sanjay Kapur) তার প্রথম স্ত্রী- এর সাথে শারীরিক সম্পর্ককে আবদ্ধ ছিল। আর শুধু সঞ্জয় নয় তার শাশুড়িও কারিশমাকে অমানুষিক অত্যাচার করেছে ও গায়ে হাত তুলেছে। দীর্ঘ ১০ বছর এরকম জীবন কাটানোর পর শেষ পর্যন্ত সন্তানদের ভালোর জন্য শশুরবাড়ি ছেড়ে চলে আসেন কারিশমা কাপুর।

আরও পড়ুন: উচ্ছেবাবু নাকি বং ক্রাশ! আদৃতের নতুন লুকে হেসে লুটোপুটি খেল মিঠাই

রুপোলি পর্দায় করিশমাকে শেষ দেখা যায় ২০১২ সালে। কিন্তু ডেঞ্জারাস ইশক নামের ছবিটি ডাহা ফ্লপ করায় তিনি বড়ো পর্দা থেকে বিরতি নেন এবং টেলিভিশন শো- এর ডিকে মনোনিবেশ করেন। বেশ কিছু ব্র্যান্ড প্রমোশন সহ এই টেলিভিশন শোগুলিতে বিচারকের ভূমিকায় দেখা যায় তাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button