fbpx

পুজোর ময়দানেও ‘খেলা হবে’, মোহনবাগান-ইস্টবেঙ্গলের ফুটবলারদের কাঁধে চেপেই ভবানীপুর আসছেন উমা

বঙ্গ জয়ের পর খেলা হবে স্লোগানের কাঁধে ভর করেই ইতিমধ্যেই দিল্লি জয়ের স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছে মমতা ব্রিগেড। শেষ বিধানসভা নির্বাচনেও বাংলার অলিতে গলিতে হিন্দোল তুলেছিল ‘খেলা হবে’ স্লোগান। এবার ভোটের ময়দান ছেড়ে দুর্গাপুজোর পুজোর ময়দান মাতাতে চলেছে এই স্লোগান। আর তা নিয়েই বর্তমানে জোর চর্চা বঙ্গ রাজনীতিতে। কারণ তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জির গড় ভবানীপুরেই এবার পুজোর থিম হতে চলেছে ‘খেলা হবে’।

সূত্রের খবর, ভবানীপুর দুর্গোৎসব সমিতি এই বছর পুজোর থিম হিসেবে বেছে নিয়েছে খেলা হবে স্লোগান। পেশায় ফ্যাশন ডিজাইনার তথা শান্তিনিকেতনের অধ্যাপক শিল্পী সৌমেন ঘোষ এবার ভবানীপুরে মণ্ডপ ও প্রতিমা নির্মাণের দায়িত্বে রয়েছেন বলে জানা যাচ্ছে। প্লাস্টার-প্যারিস দিয় তৈরি হচ্ছে সনাতনী একচালার মূর্তি। যা নিয়েই নতুন উদ্যোম দেখা দিয়েছে ভবানীপুরের পুজো উদ্যোক্তাদের মধ্যে। এদিকে একুশের নির্বাচনে কার্যত জনশ্রুতিতে পরিণত হয়েছে ‘খেলা হবে’ স্লোগান। শুধু জনপ্রিয় হয়েইছে তাই নয়, বিজেপিকে কার্যত ভোট ময়দানের মাঠ ছাড়াও করে দিয়েছে।

Khela hobe Chief Minister Mamata Banerjee,Slogan khela hobe,Trinamool supporters of Bhavanipur,Trinamool’s assembly victory,Durgapujo Bangla news,খেলা হবে থিম,মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়,খেলা হবে স্লোগান,ভাবনীপুরের তৃণমূল সমর্থক,তৃণমূলের বিধানসভা জয়,দুর্গাপুজোর বাংলা খবর

 

আর সেকথা মাথায় রেখেই এবার পুজোর ময়দানেও খেলতে নামছে মমতা ভক্তরা। বেছে নিয়েছেন থিম হিসাবে। সূত্রের খবর, থিম সজ্জায় জ্যাভলিন হাতে দুর্গাকে পাহারায দিতে চলেছেন এবারের টোকিয়ো অলিম্পক্সের সোনা জয়ী সোনার ছেলে নীরজ চোপড়া। পাশাপাশি মণ্ডপে নানা খেলোয়াড়দের আদলে তৈরি হচ্ছে বিভিন্ন স্কাল্পচার ও মূর্তিও। একইসঙ্গে থাকছে ক্রিকেট, টেনিস, ব্যাডমিন্টন সহ অন্যান্য খেলা ও বিখ্যাত খেলোয়ারদের মডেলও।

এদিকে থিমে রয়েছে আরও চমক। এও জানা যাচ্ছে থিম সজ্জাতেই দেখা যাবে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাব মোহনবাগান-ইস্টবেঙ্গলের ফুটবলাররা মায়ের মূর্তি কাঁধে করে মণ্ডপে নিয়ে যাচ্ছেন। থিমের কাজে প্রধান শিল্পী সৌমেন ঘোষ সাহায্য করছেন আরেক প্রখ্যাত শিল্পী সুবর্ণা ঘোষ। সব মিলিয়েই ভাবানীপুরের খেলা হবে থিম ঘিরে উন্মদনা শুরু হয়ে গিয়েছে এখন থেকেই। তবে করোনার চোখ রাঙানি উপেক্ষা করে দর্শকের দল আদৌও মণ্ডপে পৌঁছাতে পারে কিনা এখন সেটাই দেখার।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর