fbpx

Tulika Bose: ছোট পর্দার মিষ্টি শাশুড়ি! আত্মীয়ের সুবাদে অভিনয়ে আসা, কেমন ছিল তুলিকা বসু টলিপাড়া যাত্রা?

একজন গৃহবধূ থেকে কীভাবে টলিউডের দাপুটে অভিনেত্রী? দেখে নিন অভিনেত্রী তুলিকা বসু’র অজানা কাহিনী

মন্টি শীল, কলকাতা: সম্প্রতি বাংলা তথা বাঙালি দর্শকদের কাছে বাংলা ধারাবাহিক বিপুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। যা টলিউডের বাংলা সিনেমাকে হার মানতে বাধ্য করেছে। তবে শুধুমাত্র ধারাবাহিক নয়, তাতে অভিনীত তারকারাও ইতিমধ্যেই দর্শকদের একজন আপনজন হিসেবে বিবেচিত হয়েছেন। আর আজ যেই টেলি তারকার কথা বলা হতে চলেছে তিনি একাধিক বাংলা ধারাবাহিকে মা এবং শাশুড়ি হিসেবে অগণিত দর্শকদের মন জয় করেছেন। হ্যাঁ তিনি আর কেউ নন, জনপ্রিয় টেলি অভিনেত্রী তুলিকা বসু ( Tulika Bose )। সচরাচর এই অভিনেত্রীর অভিনয় কৌশলে রীতিমত মুগ্ধ অগণিত দর্শক।

শোনা যায়, এই জনপ্রিয় অভিনেত্রী একাধিক ধারাবাহিক এবং সিনেমাতে অভিনয় করেছেন। কিন্তু তুলিকা বসু ( Tulika Bose ) সবচেয়ে বেশি প্রশংসা কুড়িয়েছেন ‘ওগো বধু সুন্দরী’ ধারাবাহিকে ললিতার স্নেহময়ী শাশুড়ি হিসেবে। সূত্র অনুযায়ী, বিগত ২৫ বছর ধরে বাংলা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন অভিনেত্রী তুলিকা বসু ( Tulika Bose )। এককথায় বলতে গেলে তিনি টলিউডের একজন ভার্সেটাইল অভিনেত্রী। তিনি তাঁর অভিনয়ের দক্ষতা দিয়ে একের পর এক সিনেমা ও ধারাবাহিকে অভিনয় করে গিয়েছেন। কিন্তু একজন গৃহবধূ থেকে কীভাবে টলিউডের একজন দাপুটে অভিনেত্রী হয়ে উঠলেন তা শুনলে অবাক হবেন আপনিও।

6c52

শোনা যায়, অভিনেত্রী তুলিকা বসু অভিনয়ের জগতে প্রবেশ করেছিলেন তাঁর বিবাহের পর। তাঁর এক নিকট আত্মীয় প্রীতম বসু ছিলেন টলিউডের সেই সময়কার জনপ্রিয় চিত্রনাট্যকার। সেই সুবাদে মাঝে মধ্যেই সিনেমা দেখতে যেতেন তুলিকা বসু। কিন্তু এরই মাঝে ঘটল এক অবিস্মরণীয় ঘটনা, অভিনেত্রীর সঙ্গে পরিচয় হল টলিউডের জনপ্রিয় পরিচালক বুদ্ধদেব বসুর। এরপর পরিচালকের সূত্র ধরেই বাংলা ধারাবাহিকে প্রথম অভিনয় করার সুযোগ পান তিনি। যার পর আর ফিরে তাকাতে হয়নি অভিনেত্রীকে, পেতে শুরু করেন একের পর এক ধারাবাহিকে অভিনয় করা সুযোগ। শোনা যায়, ‘মহাপ্রভু’ ধারাবাহিকের জন্য বিশেষ ভাবে নির্বাচিত হন তুলিকা বসু।

6c53

কিন্তু সন্তানসম্ভবা হওয়ার দরুন তাঁর সফলতার পথে বাঁধা সৃষ্টি হতে শুরু করে। যদিও তাঁর পরিবারের সদস্যদের সহায়তায় তিনি ফের অভিনয়ে ফেরার সুযোগ পান। এক সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী বলেছিলেন, ‘সেই সময় তাঁর স্বামী এবং পরিবারের সকল সদস্যরা তাঁকে ভীষণ সহায়তা করেছিল। তাঁদের এই সহায়তা ছাড়া আজকের এই সফলতা অর্জন করা সম্ভব হত না’। এরপর দু’দশকেরও বেশি সময় ধরে বাংলা ধারাবাহিকের অত্যন্ত পরিচিত মুখ হয়ে ওঠেন তিনি। এমনকী একজন দক্ষ অভিনেত্রী হিসেবে তাঁর দাপট দেখা যায় বাংলা সিনেমা এবং থিয়েটারের জগতে। তবে হয়তো কোনও ক্ষেত্রেই মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করার সুযোগ পাননি তিনি, কিন্তু একজন সহ অভিনেত্রী হিসেবে তুলিকা বসু টলিউড ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে যে অবদান রেখে গিয়েছেন তা কোনও অংশে কম নয় বলে মনে করেন তাঁর অনুরাগীদের একাংশ।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর