fbpx

Mithu Mukherjee: উত্তম কুমার-রাজ কাপুরের নায়িকা, দক্ষ অভিনেত্রী হয়েও ইন্ডাস্ট্রি ভুলেছে মিঠু মুখার্জির কথা

মর্জিনা আব্দুল্লাহ, স্বয়ংসিদ্ধার মত হিট সিনেমার পরেও কেন রূপোলি পর্দা থেকে সরে দাঁড়ালেন মিঠু মুখার্জি? জেনে নিন আসল কারণ

মন্টি শীল, কলকাতা: বর্তমানে দর্শক মহল রূপোলি পর্দার তারকাদের জনপ্রিয়তা ঠিক কতখানি তা ইতিমধ্যেই প্রমাণিত। কিন্তু এই জনপ্রিয় তারকাদের মধ্যে এমন কিছু নাম রয়েছে যারা দীর্ঘদিন বিনোদনের আলোকোজ্জ্বল জগৎ থেকে সরে দাঁড়ালেও তাঁরা আজও দর্শকদের মাঝে সমান ভাবে চর্চিত। আর এই তালিকায় যার নামটা সবার আগে উঠে আসে তিনি হলেন, বাংলা চলচ্চিত্র জগতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী মিঠু মুখার্জি ( Mithu Mukherjee )। সাতের দশকের এই জনপ্রিয় অভিনেত্রী একদা বিনোদন জগতের অন্যতম দাপুটে অভিনেত্রী হিসেবে পরিচিত ছিল। তাঁর অসাধারণ অভিনয়ের রীতিমত মুগ্ধ ছিল আট থেকে আশি সকলেই।

তবে শুধুমাত্র বাংলা চলচ্চিত্রই নয়, এরই সঙ্গে সঙ্গে অভিনেত্রীকে হিন্দি চলচ্চিত্রতেও নিজের অভিনয়ের দক্ষতা প্রকাশ করতে দেখা গিয়েছে। সূত্র অনুযায়ী, বাংলা চলচ্চিত্র জগতের বিখ্যাত অভিনেতা উত্তম কুমার, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, রঞ্জিত মল্লিক থেকে শুরু করে হিন্দি চলচ্চিত্র জগতের জনপ্রিয় তারকা শত্রুঘ্ন সিনহা, রাজ কাপুরের বিপরীতে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে এই অভিনেত্রীকে। কিন্তু একটা সময় জনপ্রিয়তার মধ্য গগনে থাকা সত্তেও অভিনেত্রী মিঠু মুখার্জি ( Mithu Mukherjee ) বিনোদনের জগৎ থেকে সরে দাঁড়ান। যা আজও বিষন্ন করে তোলে তাঁর অনুরাগীদের। কিন্তু কেন এমন সিদ্ধান্ত নিলেন অভিনেত্রী?

20c52

সূত্র অনুযায়ী, ১৯৭১ সালে পরিচালক চিত্ত বোসের সিনেমা ‘শেষ পর্ব’এর হাত ধরে চলচ্চিত্র জগতে প্রবেশ করেন অভিনেত্রী মিঠু মুখার্জি। কিন্তু প্রথম সিনেমাতেই ব্যর্থতার সম্মুখীন হতে হয় অভিনেত্রীকে। এরপর ১৯৭৩ সালে বড়পর্দায় মুক্তি পায় জনপ্রিয় বাংলা সিনেমা ‘মর্জিনা আব্দুল্লাহ’। যেখানে অভিনেত্রী মিঠু মুখার্জি’র অনবদ্য অভিনয় মন ছুঁয়ে যায় দর্শকদের। এরপর আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি অভিনেত্রীকে। মুক্তি পেতে শুরু করে একের পর এক হিট সিনেমা, যার মধ্যে অন্যতম হল ‘মৌচাক’, ‘স্বয়ংসিদ্ধা’। যেখানে অভিনেতা রঞ্জিত মল্লিকের বিপরীতে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে অভিনেত্রী মিঠু মুখার্জিকে।

20c51

মৌচাক এবং স্বয়ংসিদ্ধা থেকে বিপুল জনপ্রিয়তা পাওয়ার পরপরই মিঠু মুখার্জি হিন্দি চলচ্চিত্র জগৎ থেকে একাধিক সিনেমার প্রস্তাব পেতে শুরু করেন। যার পর ধীরে ধীরে টলিউড ছেড়ে বলিউড মুখি হতে শুরু করেন অভিনেত্রী এবং ১৯৭৬ সালে মুক্তি পায় তাঁর অভিনীত প্রথম হিন্দি সিনেমা ‘খাস দোস্ত’। যেখানে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছিল মিঠু মুখার্জিকে। এরপর তিনি একাধিক হিন্দি সিনেমা যেমন ‘সফেদ ঝুট’, ‘দিললাগি’র মতো সিনেমাতে কাজ করার সুযোগ পান। এরপর তিনি ফের একবার ফিরে আসেন টলিউডে, সুযোগ পান জনপ্রিয় বাংলা সিনেমা ‘আশ্রিতা’তে। কিন্তু এই সিনেমা মুক্তি পাওয়ার পর আর সেভাবে রূপোলি পর্দায় দেখতে পাওয়া যায়নি অভিনেত্রীকে। শোনা যায়, এই ‘আশ্রিতা’ সিনেমার নির্মাতা চন্দ্র ব্যারোটের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন অভিনেত্রী। বর্তমানে তাঁর সঙ্গেই মুম্বাইতে থাকেন মিঠু মুখার্জি। যদিও পরবর্তী সময়ে ভক্তরা অভিনেত্রীকে পর্দায় ফিরে আসার অনুরোধ জানালেও তিনি আর ফিরে আসেননি। যা স্বাভাবিক ভাবেই কিছুটা হতাশ করেছে তাঁদের।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর