fbpx

Kolkata chalantika: ঠাকুর-দেবতার ‘দিব্যি’ অতীত! ‘গীতবিতানের দিব্যি’ খেয়ে মিষ্টি প্রেমে মজেছেন দিতিপ্রিয়া-কিরণ

ভালোবাসার শহর কলকাতা। প্রেমিক-প্রেমিকা যুগল এই শহরের বুকেই প্রেমে পড়ে। হাতে হাত রেখে উত্তর কলকাতার অলিগলি থেকে নন্দন। ভিক্টোরিয়া থেকে জোড়াসাঁকো শহরের কোণায় কোণায় তৈরি হয় প্রেমের নানারকম জলছবি। আর এই ভালোবাসা বুকে নিয়েই কলকাতা আছে কলিকাতাতেই। সেই ছবিই আরও একবার ফুটে উঠবে রূপালি পর্দায়। এই প্রেমের সাক্ষী রবীন্দ্রনাথ। তাই গীতবিতানের দিব্যি খেয়ে সুরের মায়ায় ভেসে গেছে কিরণ- দিতিপ্রিয়া। সিন্থেসাইজারের কোমল সুরে প্রেমে পরেছেন তরুণ তরুণী। আবার ধনী-গরীবের ব্যবধান চুকিয়ে ভালোবাসায় জড়িয়েছেন সৌরভ-ঈশা। আর সেই গল্পের একটা ক্ষুদ্র সংস্করণ জায়গা করে নিয়েছে ‘কলকাতা চলন্তিকা’ ছবির ‘গীতবিতানের দিব্যি’ প্রথম গানে।
img 20220808 130723

img 20220808 133238

‘গীতবিতানের দিব্যি’ গানে সিনেমার টুকরো টুকরো ছবির কোলাজ জায়গা করে নিয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে কিরণ, দিতিপ্রিয়া, সৌরভ, ঈশা, ঝিলম একাধিক পরিচিত মুখ। এনাদের মধ্যে কেউ কেউ অভিনেতা নন, জনপ্রিয় ইউটিউবারও। গীতবিতানের দিব্যি গানটি রনজয় ভট্টাচার্যের কম্পোজিশন, পৃথা চট্টোপাধ্যায়ের সুরেলা কন্ঠস্বরে প্রাণবন্ত হয়ে উঠেছে। সত্যি যেন ক্যামেরার ফোকাস বদলানোর সঙ্গে সঙ্গেই চলছে কলকাতা। গানটি পরিচালক পাভেলের লেখা। ইতিমধ্যেই ৯ হাজার মানুষ পছন্দ করেছেন নতুন গানটি। অনেক প্রবাসী বাঙালি লিখছেন, পরিচালকের হাত ধরে নতুন এক কলকাতার সঙ্গে পরিচয় হচ্ছে। কেউ লিখছেন,’ খুব মিস করি তোমায় কলকাতা, আমার ভালোবাসার শহর।’

শুধুই কী ভালোবাসা? এ শহরে কী নেই! রাজনীতি, সমাজনীতি, প্রেম- পলিটিক্স,খুন যখম, চক্রান্ত যেন এক সরলরেখায় দাঁড়িয়ে রয়েছে। এতগুলো দিনের প্রেমের নগরী একদিনে একঝটকায় কীভাবে আতঙ্ক ত্রাস আর মৃত্যুর আর্ত কলরবে পরিণত হতে পারে সেই কাহিনী বলবে ‘কলকাতা চলন্তিকা’। মনে আছে, ২০১৬ সালের পোস্তা ব্রিজ দুর্ঘটনা! আজও যার ক্ষয়িত চিহ্ন ছড়িয়ে আছে কলকাতার রাজপথে। নিহতদের মৃতদেহ আর আহত আর্ত চিৎকার সিনেমায় সেই ঘটনাই নগরীর দগদগে ক্ষতকে আরও একবার উস্কে দেবে। আগামী ২৫ শে আগস্ট মুক্তি ‘কলকাতা চলন্তিকার’

img 20220808 133800
পরিচালক পাভেল সবসময়ই নতুনদের প্রাধান্য দেয়। সে সিনেমার কনসেপ্ট হোক বা অভিনেতা অভিনেত্রী। ‘রসগোল্লা’ ছবিতে প্রথম দেখা গিয়েছিল কৌশিক ও চূর্ণী গাঙ্গুলীর পুত্র উজান গাঙ্গুলীকে। তারপর ‘বাবার নাম গান্ধীজি’ ও ‘অসুর’ সিনেমাতেও নিজস্বতার ছাপ রেখেছেন পাভেল।’ কলকাতা চলন্তিকা’ অন্যতম মাস্টার স্ট্রোক। এখানে অভিনয় করছেন ইউটিউবার বং গাই ওরফে কিরণ দত্ত ও ঝিলম সেনগুপ্ত। মার্কেটিং স্ট্রাটেজি নয়, নতুনদের মধ্যে থেকে অভিনয় প্রতিভাকে বের করে আনার জন্যই ইউটিউব জগতের জনপ্রিয় মুখদের সিনেমায় নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন পাভেল

google-news-icon

লেটেস্ট খবর