fbpx
Friday, October 7, 2022

বিদ্যুতের ফাঁদে সিনেপাড়া! বিদ্যুৎ বিল মেটাতে গিয়ে লাখ টাকা খুইয়ে বসলেন অভিনেতা শান্তিলাল মুখোপাধ্যায়

অহেলিকা দও, কলকাতা : সাইবার জালিয়াতির ঘটনা যুগ যুগ ধরে ক্রমশ বেড়েই চলেছে। ভুয়ো লিংকে ক্লিক করায় অ্যাকাউন্ট নিমেষে ফাঁকা হয়ে গিয়েছে অনেকের। সাধারণ মানুষকে বিপাকে ফেলতে নিত্যনতুন ফন্দি আঁটছে হ্যাকাররা। কখনো টাকার লোভ দেখিয়ে, আবার কখনো আপডেটের চাল দিয়ে নিমেষেই তারা হাতিয়ে নেন অ্যাকাউন্টে থাকা সমস্ত টাকা। এবার প্রতারণার শিকার অভিনেতা শান্তিলাল মুখোপাধ্যায় ( Shantilal Mukherjee )। তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে উধাও হয়ে গিয়েছে আড়াই লক্ষ টাকা।

জানা গেছে, গত ১৩ জুন অভিনেতার ( Shantilal Mukherjee ) ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বরে একটি এসএমএস আসে। যে এসএমএসে লেখা ছিল, রাতের মধ্যে ইলেকট্রিক বিল জমা দিতে হবে। নইলে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হবে। ওই এসএমএস দেখে তড়িঘড়ি ইলেকট্রিক বিল মেটান অভিনেতা। তারপরই তাঁর কাছে অচেনা নম্বর থেকে একটি ফোন আসে। ফোনের অপর প্রান্ত থেকে পেমেন্ট আপডেট করার জন্য ১১ টাকা তাকে দিতে হবে বলে জানানো হয়। একটি লিংকে ক্লিক করে ওই টাকা দেওয়ার কথা বলা হয়। সেই মতো অভিনেতা ওই লিংকে ক্লিক করেন। এরপরই অভিনেতা জানতে পারেন, তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে উধাও হয়ে গিয়েছে আড়াই লক্ষ টাকা।

shantilal mukherjee

প্রতারণার শিকার যে তিনি ( Shantilal Mukherjee ) হয়েছেন, তা বুঝতে আর বিশেষ অসুবিধা হয়নি অভিনেতাকে। বাধ্য হয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হন তিনি। সরশুনা থানা এবং লালবাজারের সাইবার সেলে অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগের প্রমাণ হিসাবে এসএমএস এবং ওই অচেনা নম্বর থেকে আসা ফোন সংক্রান্ত সমস্ত তথ্য পুলিশকর্তাদের জানিয়েছেন তিনি। তবে এখনও পর্যন্ত কেউই পুলিশের জালে ধরা পড়েনি।

shantilal mukherjee

সাইবার বিশেষজ্ঞদের দাবি, সম্প্রতি ইলেকট্রিক বিল মেটানোর অছিলায় সাধারণ মানুষকে ফাঁদে ফেলার চেষ্টায় প্রতারকরা। এভাবে বহু গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট ফাঁকা করে দিচ্ছে হ্যাকাররা। তাই যেকোনও লিংকে ক্লিক না করার পরামর্শই দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। এই ধরনের কোনো লিঙ্ক ফোনে এলে কোথা থেকে এসএমএস এসেছে, তা ভালভাবে খতিয়ে দেখতে হবে। বিদ্যুৎ বিভাগ থেকেই আদৌ মেসেজ এসেছে কিনা, তা যাচাই করতে হবে। অফিশিয়াল অ্যাপের মাধ্যমে বিল মেটানোর চেষ্টা করুন। কোনও ব্যক্তিগত নম্বর বা অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠাবেন না। কোনও ব্যক্তিগত তথ্য শেয়ার করবেন না। এইধরনের হ্যাকারের কবজায় চলে যাওয়া আটকাতে আরও সাবধানী হওয়ার পরামর্শ সাইবার বিশেষজ্ঞদের।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর