fbpx

পুত্রবধূূর সঙ্গে মনমালিন্য! শুরুর আগে কি এবার তালা পড়বে লক্ষ্মী কাকিমার নতুন ব্যবসায়?

ধারাবাহিকের শুরুর সময় থেকেই লক্ষ্মী এবং তার পুত্রবধূ হংসিনী একসূত্রে বাঁধা। তবে এখন সম্পর্কের সমীকরণ কিছুটা হলেও বদলেছে। হংসিনীর সাথে আর গভীর সম্পর্ক নেই লক্ষ্মীর।

অনীশ দে, কলকাতা: মাত্র কয়েকমাসের মধ্যেই দর্শকদের মনে জায়গা করে নিয়েছে ধারাবাহিক লক্ষ্মী কাকিমা সুপারস্টার (Lokkhi Kakima Superstar)। এই ধারাবাহিকের মুখ্য চরিত্রে রয়েছেন অভিনেত্রী অপরাজিতা আঢ্য (Aparajita Adhya)। ধারাবাহিকের শুরু থেকেই লক্ষ্মী কাকিমাকে নানা অবতারে দেখে আসছে দর্শক। আর বাকি পাঁচজনের মতোই যে কোনও পরিস্থিতি সামলাতে সক্ষম তিনি। মধ্যবিত্ত পরিবারের একজন স্ত্রীলোক যেভাবে একা হাতে সবটা সামলান, তেমনটাই হচ্ছেন লক্ষ্মী কাকিমা (Lokkhi Kakima Superstar)। ধারাবাহিকের শুরুর সময় থেকেই লক্ষ্মী এবং তার পুত্রবধূ হংসিনী একসূত্রে বাঁধা। যে কোনও সমস্যা সমাধানের সময় একে অপরকে পাশে পেয়েছেন তাঁরা। তবে এখন সম্পর্কের সমীকরণ কিছুটা হলেও বদলেছে।

lokkhi kakima 3

হংসিনীর সঙ্গে আর গভীর সম্পর্ক নেই লক্ষ্মীর। দুজনের পথ এখন ভিন্ন। আর কোনওরকম প্রয়োজনেই হংসিনীকে তলব করেন না তিনি। সত্যি বলতে তিনি খুব একটা যে চান, তাও নয়। অন্যদিকে হংসিনীও আগের মতো এসে লক্ষ্মীর পাশে দাঁড়াতে অক্ষম। এই মুহূর্তে এক নতুন ব্যবসা নিয়ে বেজায় ব্যস্ত লক্ষ্মী কাকিমা। কিন্তু একবারের জন্যেও সাহায্য চাননি পুত্রবধূর কাছে বরং একা হাতেই সামলাচ্ছেন সবটা। বাড়ি থেকে একপ্রকার ঘাড় ধাক্কা দিয়ে হংসিনীকে তাড়িয়ে দিয়েছিলেন লক্ষ্মী। কিন্তু হংসিনী তা সত্বেও সেই বাড়ি ছাড়েননি কারণ সে জানে, নিজের বাড়ি তাঁর জন্যে নিরাপদ নয়।

lokkhi kakima 2

মূলত একসাথে কাজ করা ঘিরেই শুরু হয় মনোমালিন্য। তারপরেই একে অপরের থেকে মুখ ঘুরিয়ে নেন তাঁরা। সংসার ধরে রাখতে ও তা চালাতে একাই সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছেন লক্ষ্মী। সে কোনও মতেই হার মানে না। বরং সেই বাঁধা কাটিয়ে আবার সব কিছু ঠিক করে তলায় তাঁর লক্ষ্য। কখনও বন্ধুকে হতে নিজের পরিবারকে রক্ষা করেছেন তিনি কখনও আবার পরিবারের সব ভুল ক্ষমা করে কাছে টেনে নিয়েছেন। এই চরিত্রে অপরাজিতাকে পেয়ে আপ্লুত দর্শক। তাদের মতে অপা যেন তাদের বাড়ির বউদের মতোই।

lokkhi kakima 1

শুরু হওয়ার কয়েকমাসের মধ্যেই টিআরপি লিস্টে নিজের জায়গা ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছে। বলাই বাহুল্য, অপরাজিতার (Aparajita Adhya) উপস্থিতি এই ধারাবাহিককে অন্য মাত্রায় পৌঁছে দিয়েছে। সবসময়ই ধারাবাহিক নির্মাতারা সামাজিক চরিত্রদের সাথে মিল রেখেই ধারাবাহিকের চরিত্র রচনা করেন। কিন্তু লক্ষ্মী কাকিমা যেন আমাদের সমাজেরই একজন, যাকে রাস্তায় বেরোলেই দেখা যায়। ঘরের মেয়ে হিসেবে অপরাজিতাকে আগেই মেনে নিয়েছিল দর্শক। এই সপ্তাহে লক্ষ্মী কাকিমা সুপারস্টারের (Lokkhi Kakima Superstar) টিভি রেটিং পয়েন্টস এসে দাঁড়িয়েছে ৭.৮। দ্বিতীয় স্থান দখল করে এই ধারাবাহিক প্রমাণ করে দিয়েছে জনপ্রিয়তার নিরিখে অন্যান্য ধারাবাহিকের চেয়ে অনেক গুণ এগিয়ে লক্ষ্মী কাকিমা।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর