fbpx

Lokkhi Kakima Superstar: ক্যাপ বন্ধুক ফাটিয়ে তাড়ালেন দুষ্কৃতী! নেটমাধ্যমে ফের ট্রোলের শিকার লক্ষ্মী কাকিমা

জয়িতা চৌধুরি,কলকাতাঃ গত ফেব্রুয়ারি মাস থেকে জি বাংলায়ে ( Zee Bangla ) শুরু হয়েছে নতুন ধারাবাহিক ‘লক্ষ্মী কাকিমা সুপারস্টার’ ( Lokkhi Kakima Superstar )। আর শুরু হওয়ার পরই দর্শকের মন জয় করেছে লক্ষ্মী অর্থাৎ অপরাজিতা আঢ্য ( Aparajita Adhya )। আসলে যারা এই ধারাবাহিক দেখেন, তারা জানেন লক্ষ্মী কাকিমা সত্যিই ‘সুপারস্টার’। কখনও তিনি ভ্যান চালাচ্ছেন তো কখনও পুত্রবধূকে খুশি করতে তার জন্মদিনে বাড়িতেই রেস্তরা বানিয়ে দিচ্ছেন।

আবার কক্ষনো দাড়ি, গোঁফ, পাগড়ি, শার্ট, ব্লেজার, সানগ্লাস পরে তিনি হয়ে উঠেছেন পাঞ্জাবি মধ্য বয়স্ক ভদ্রলোক। এক ঝলক দেখলে বোঝা দায় তিনি আসলে কাকিমা নাকি কোন পাঞ্জাবি ভদ্রলোক। তবে আবার তিনি ধরা দিলেন নতুন রুপে। সম্প্রীতি রিলিজ হয়েছে লক্ষ্মী কাকিমার নতুন ট্রিজার। দর্শকদের চমকে দিয়ে লক্ষ্মী কাকিমা দুষ্কৃতীদের পিছনে ছুটছেন হাতে বন্ধুক নিয়ে। ট্রিজারের শুরুতে দেখা যাচ্ছে দুজন দুষ্কৃতী হংসিনীকে কিডন্যাপ করে গাড়িতে তুলছে। পিছন থেকে দৌরে এসে তাদের থামায়ে লক্ষ্মী কাকিমা।

lks 1

বন্ধুক উঁচিয়ে কিডন্যাপারকে বলেন “বন্ধুক তুললেই বুক ঝাঁজরা করে দেব! একদম গুলি ফাটিয়ে দেব কিন্ত!” আর তার পরেক্ষনেই খেলনা বন্ধুকের ক্যাপ ফাটাতে শুরু করেন তিনি। তাতেই ভয় পেয়ে কিডন্যাপার দে দৌর। এর এই দৃশ্য দেখেই হাসির রোল নেটপাড়ায়। এক নেট নাগরিক বলছেন, ‘বাংলা ধারাবাহিকে আর কত জল ঢালবে এরা’, আরেকজন কমেন্ট করেছেন, ‘গুণ্ডাটা ভাবছে কেন জন্মেছিলাম আমি ভাই, এরকম অপমান হওয়ার আগেই তো মরে যেতে পারতাম’।

lks 2

এমনকি কটূকথা বাদ যায়নি লক্ষ্মী -অপরাজিতাকে নিয়েও। একজন লিখেছেন, ‘উফ! ন্যাকামির শেষ থাকে মাইরি।’ আরেকজন আবার সরাসরি আক্রমণ করেন অপরাজিতাকে, ‘এত ওভারঅ্যাক্টিং দিদি কেন করছ একটু বলবে প্লিজ।’ কেউ লিখেছেন, “খুব ঢং এবং নাটকীয় অভিনয়, আগে আমিও অপরাজিতা ম্যামকে পছন্দ করতাম। কিন্তু তাঁর এই অদ্ভুত সিরিয়ালের একটি পর্ব দেখার পরে আমার মনে হয়েছে এটি আসলেই খারাপ।” অন্য আরেকজন আবার লিখেছেন, “যত ন্যাকামি ভালো লাগে না। এক নেটিজেন লিখেছেন, “পৃথিবীতে না থেকে এবার মঙ্গল গ্রহে চলে যাব…।”

দিনকয়েক আগে অপরাজিতা আঢ্য শিরনামে ছিলেন ‘দিদি নম্বর ১’ ( Didi Number 1 )-এর একটি এপিসোডের জন্য। ১০ জুলাই সম্প্রচারিত হবে এপিসোডটি। যেখানে অপরাজিতা ওরফে লক্ষ্মী কাকিমাকে ( Aparajita Adhya as Lokkhi Kakima ) নিজের দুঃখের কাহিনি দিদি রচনাকে শোনাতে গিয়ে ঝরঝরিয়ে কেঁদে ফেলেছিলেন। তিনি বলছেন, ‘আমি যে বাড়িতে ভাড়া গেছি সেখানে কিছু নেই গো! আমার কত শখ ছিল আমার একটা প্রেসার কুকার হবে’।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর