fbpx

এ যেন রং বদল! ভিন্ন মত নিয়েও বন্ধুত্বে নেই কোনও ফাঁকি, দেখে নিন জনপ্রতিনিধিদের অন্দরমহল

অনীশ দে, কলকাতা: একটি বিশেষ সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে রাজনৈতিক হত্যার দিক দিয়ে সারা দেশের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ সবার প্রথমে রয়েছে। অর্থাৎ আমাদের রাজ্যে জমি দখল, টাকা পয়সা সংক্রান্ত কারণে যে সংখ্যক খুন হয় তার চেয়ে বহু গুন বেশি খুন হয় ভিন্ন রাজনৈতিক মতবাদের কারণে (West Bengal Politician)। কিন্তু এর বীজ রোপণ করা হয়েছিল অনেকদিন আগেই। এছাড়াও দীর্ঘ ৩৪ বছর ধরে ক্ষমতার শিখরে থাকা সিপিআইএম এই রাজনৈতিক পরিবেশের পরিপন্থী। কিন্তু ছোটবেলায় আমরা সবাই একটা কথা শুনতাম, তা যেন বারংবার বাস্তবে রূপায়িত হয়েছে (West Bengal Politician)।

kunal

কথাটি হলো, ‘রাজায় রাজায় যুদ্ধ হয় উলু খাগড়ার প্রাণ যায়’। আগের বছর বিধানসভা নির্বাচনের সময় চারিদিকে চাপানউতোর চলছিল। বিরোধী দলকে যথাযথ প্রচার করতে দেওয়া হচ্ছে না, এমন অভিযোগ বারংবার করা হয়েছে। কিন্তু সেই সময়ে একটি ছবি ঘিরে নেট দুনিয়া হয়ে ওঠে উত্তাল। নির্বাচনের প্রাক মুহূর্তে ৪ টি ভিন্ন দলের নেতাদের একসাথে হাসিমুখে ছবি তুলতে দেখা যায়। আর এই ছবি ঘিরে উঠতে থাকে নানা প্রশ্ন (West Bengal Politician)।

তবে কি এই রাজনৈতিক বিরোধিতা লোক দেখানো? আসল জীবনে সবাই সবার বন্ধু? আসলে সম্প্রতি একটি অনুষ্ঠানে তৃণমূলের বড়িষ্ঠ নেতা থেকে শুরু করে বিজেপির দীর্ঘদিনের কর্যকর্তা, সিপিআইএম এর কমরেড উপস্থিত ছিলেন সবাই। আর এই ঘটনাতেই তাজ্জব সবাই। সাধারন মানুষের প্রশ্ন তবে দেখনদারির জন্যই ক্যামেরার সামনে বিরোধী বক্তব্য রাখতে পিছপা হন না রাজনৈতিক নেতারা? যার উত্তরে রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বরা জানান, রাজনৈতিক আদর্শের বিস্তার ফারাক রয়েছে তাদের মধ্যে কিন্তু তার জন্য সাধারন সৌজন্যতা ত্যাগ করা সম্ভব নয় তাদের পক্ষে।

আরও পড়ুন:খাস কলকাতায় অটোর ভিতর থেকে উদ্ধার তাজা বোমা, ঘটনা ঘিরে চাঞ্চল্য এলাকায়

এই অনুষ্ঠানেই একই ফ্রেমে বন্দী হলেন বঙ্গ রাজনীতির লাভ বার্ডস শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং বৈশাখী বন্দোপাধ্যায়ের সাথে তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক কুনাল ঘোষ। তেমনি সিপিআইএম নেতা মহম্মদ সেলিমের সাথে এক ফ্রেমে দেখা যায় বিজেপি নেতা শিশির বাজোরিয়া। বলাই বাহুল্য, বিজেপিতে যোগ দেওয়ার আগে রাজনৈতিক মহলে শিশির কমিউনিস্ট ঘেঁষা বলে পরিচিত ছিলেন। এতদিন পর দেখা হওয়ায় সেই পুরোনো সম্পর্কই যেনো ঝালিয়ে নিলেন দুজনে।

আরও পড়ুন:এক গানের বাঁধনে হিরো আলম-রানু! জুটির নয়া গানে হাসির ফোয়ারা নেটপাড়ায়, রইল ভিডিও

খেলা এবং খেলোয়াড়ও বাদ যান না আজকের রাজনীতি থেকে। কিন্তু খেলা মানুষকে একসাথে চলতে দেখায়, নিষ্ঠাবান হতে শেখায়। সেই অভ্যাস কি ত্যাগ করা এত সহজ। ঠিক সেই কারণেই একসাথে হাসি মুখে ছবি তুলতে ভোলেননি তৃণমূল কংগ্রেসের মনোজ তিওয়ারি এবং বিজেপির অশোক দিন্দা। এছাড়াও রাজ্যের ২ নেত্রী অগ্নীমিত্রা পাল এবং মহুয়া মৈত্রকে একসাথে সময় কাটাতে দেখা যায়।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর