fbpx

Leena Manimekalai: মা কালী দিচ্ছেন সুখটান! তথ্যচিত্রের পোস্টার ঘিরে হিন্দুদের রোষের মুখে পরিচালক লীনা

মন্টি শীল, কলকাতা : সাধারণত হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ক্ষেত্রে লক্ষ্য করা যায়, যে আস্থা এবং বিশ্বাস এর জন্য মা কালীর পুজো অর্চনা করে থাকেন তাঁর স্মরনাপন্য হয়ে থাকেন। কিন্তু সম্প্রতি যেই ঘটনাটি সকলের প্রকাশ্যে এল তা দেখার পর রীতিমতো হতবাক হয়েছেন অনেকেই। এমনকী মা কালীর প্রতি থাকা শ্রদ্ধা ভক্তি বিসর্জন দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন অনেকেই। আর এই গুরুতর অভিযোগের আঙ্গুল উঠেছে ডকুমেন্ট্রি ফিল্ম মেকার লীনা মানিমেকালাই ( Leena Manimekalai )। কিন্তু কি এমন ঘটল যার দরুন এই ধরনের অস্বস্তিকর পরিস্থিতি তৈরী হল।

জানা গিয়েছে, সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়াতে লীনা মানিমেকালাই (Leena Manimekalai ) তাঁর আসন্ন তথ্যচিত্রের পোস্টার শেয়ার করেছেন। যাতে রীতিমতো নজরে এসেছে একজন মহিলা মা কালীর বেশ ধারন করছেন। আর সেই বেশেই দেদার ধূমপানে মজে রয়েছেন সেই মহিলা। প্রকাশিত তথ্যচিত্রের ওই পোস্টারের ব্যাকগ্রাউন্ডে দেখা গিয়েছে, এলজিবিটি কমিউনিটি প্রাইভ এর ফ্ল্যাগ। লীনা মানিমেকালাই ( Leena Manimekala ) এর এই ছবি প্রকাশ পাওয়া মাত্রই মুহূর্তের মধ্যে হইচই শুরু হয়ে যায়।

4c62

এমনকী সোশ্যাল মিডিয়াতে নেটিজেনরা এই পোস্টার নিয়ে তীব্র সমালোচনা ব্যক্ত করেছেন। তাদের মতে, ‘এই পোস্টারের দরুন লীনা মানিমেকালাই ( Leena Manimekalai ) হিন্দু ধর্মের ভাবাবেগকে আঘাত করার চেষ্টা করছেন। অবিলম্বে প্রকাশিত এই তথ্যচিত্রের পোস্টার বাতিল করা হোক।’ শুধু তাই নয়, পোস্টার বাতিলের সঙ্গে সঙ্গে পরিচালকে অবিলম্বে গ্রেফতার এবং আইনি প্রক্রিয়া শুরু করাও আবেদন জানিয়েছেন সমালোচকরা। যদিও সূত্র অনুসারে জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যেই ‘গও মহাসভা’-র নেতা অজয় গৌতম ইতিমধ্যেই আইনি প্রক্রিয়া কার্যকর করার লক্ষ্যে দিল্লি পুলিশের দরবারে হাজির হয়েছেন।

যদিও এত বিতর্কের মাঝে দাঁড়িয়ে পরিচালক লীনা মানিমেকালাই ( Leena Manimekalai ) বলেছেন, ‘সর্বদা ভালোবাসাকে নির্বাচন করুন, ঘৃণাকে নয়।’ পরিচালকের মতে, ‘সম্প্রতি টরোন্টো মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির তরফে তাঁর কাছে একটি আমন্ত্রণ পত্র এসে পৌছায়। সেখানে তাকে সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্যের উপর একটি তথ্যচিত্র নির্মাণ করতে বলা হয়। তাই তিনি এই তথ্যচিত্র তৈরী করেছেন।’ লীনা মানিমেকালাই-এর বক্তব্য অনুযায়ী, তিনিও এই তথ্যচিত্রে অভিনয় করেছেন। অভিনেত্রী সবশেষে বলেছেন, ‘এই তথ্যচিত্র একবার দেখলে তাঁর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার কথা ভুলে গিয়ে তখন লীনা মানিমেকালাইকেই ভালোবাসবেন।’ কারণ পরিচালকের মতে, ভালোবাসাই শ্রেষ্ঠ ধর্ম, আর মা কালী এখানে বর্ণবিদ্বেষকে দুরে রেখে মানুষকে ভালোবাসার কথা বলবেন।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর