fbpx

Madhobilata: ‘মাধবীলতা’, ‘ঝিলাম’, ‘রাখি’ চরিত্রের খোলস বদলালেও, নাচকে আজও ভোলেননি অভিনেত্রী শ্রাবণী ভুঁইয়া

বাংলা ধারাবাহিকের পুরানো গল্পই নতুন মোড়কে ফিরে আসছে বারংবার। ধারাবাহিকের জোরদার লড়াইয়ের এখন কোন মেগা টিকে থাকতে পারে সেটাই দেখার। সেজন্যই চ্যানেল গুলি দক্ষ ও পরিচিত মুখ ফিরিয়ে আনছে। সম্প্রতি স্টারের পর্দায় আসতে চলেছে,জি-এর ‘জীবনসাথী’ খ্যাত অভিনেত্রী শ্রাবণী ভুঁইয়া ( Shrabani Bhunia )। দর্শক নিশ্চয়ই ভুলে যাননি, ‘রাখি বন্ধন’-এর রাখিকে?

না! ছোট্ট রাখি অর্থাৎ শিশুশিল্পী কৃতিকা চক্রবর্তীর কথা বলছি না। রাখির বড়ো বয়সের চরিত্রের জন্য টেলি দুনিয়ায় পা দিয়েছিলেন শ্রাবণী। রাখির হাত ধরেই প্রথম মানুষের মনের অন্দরে প্রবেশ করেন। এরপর ‘কনক কাঁকন’ ও ‘জীবনসাথী’ ধারাবাহিকে দ্বিতীয় ‘লিড’ চরিত্রে ছিলেন তিনি। ঝিলামের চরিত্রে একাধিক স্তর ছিল। নিপুণ দক্ষতায় ছোটপর্দায় তুলে ধরেন চরিত্রের সেইসব জটিল ধাপ। ফলে অভিনেত্রী হিসেবে যথেষ্টই প্রশংসিত হয়েছেন শ্রাবণী।

শুধু অভিনেত্রী নন, নৃত্যশিল্পী হিসেবেও তিনি অসাধারণ। তিনি একজন ক্ল্যাসিক্যাল নৃত্যশিল্পী। অনেক ছোট বয়সে নাচে হাতে খড়ি হয়েছিল তার। অভিনেত্রী না হলে হয়তো নৃত্যশিল্পীই থাকতেন। অনেক জায়গায় মঞ্চে নাচের অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন তিনি। অভিনয় ছাড়াও মডেলিংও করতেন অভিনেত্রী শ্রাবণী। রবীন্দ্রভারতী থেকে স্নাতক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। স্নাতক হওয়ার পর মডেলিং দিয়ে কর্মজীবনের শুরু করেন। ধীরে ধীরে ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী হয়ে ওঠেন শ্রাবনী ভুনিয়া। মডেল হওয়ার সুবাদে বেশ কিছু পপুলার ব্র্যান্ডের হয়ে কাজ করেছেন তিনি।

‘মাধবীলতা’য় ( Madhobilata ) একেবারে জঙ্গল কন্যা হিসেবে ধরা দেবেন অভিনেত্রী শ্রাবণী। কোমরে কাপড় গুঁজে হাতে কাস্তে নিয়ে গাছ বাঁচাতে জঙ্গলকে আটকে রাখবে মাধবীলতা। কিন্তু বড়লোক ও ক্ষমতাশালী পুষ্পরঞ্জন চৌধুরী এলাকার জঙ্গল কেটে সাফ করে দিতে চান। তার ছেলে ওয়াইল্ড লাইফ ফটোগ্রাফার। নায়ক চরিত্রে রয়েছেন বরণের রুদ্রিক, ধারাবাহিকে যার নাম সুস্মিত মুর্খাজী। জঙ্গলে ঘুরে ফটো তুলতে গিয়ে সে দেখে গাছ কাটতে এসেছে একদল চোরাশিকারি। আদিবাসী মেয়ে মাধবীলতা রুখে দাঁড়ায় লাঠি আর দাঁ নিয়ে, জানিয়ে দেয়-‘এই জঙ্গল আমার প্রাণ আছে, আর গাছ আমার মা। আর যে গাছ কাটতে আসবে, তার হাত আমি কেটে নেব’।

জঙ্গলের গল্প যেমন পছন্দ হয়েছে। তেমন শুরুতেই বেশ ট্রোলডও হয়েছে। ঘুরিয়ে ফিরিয়ে সেই একই গল্প। গরীব মেয়ের সঙ্গে বড়লোক ছেলের বিয়ে। তবে মাধবীলতার প্রতিবাদী লুকের অনেকেই প্রশংসা করেছেন। এখন ধারাবাহিক শুরু হলেই মাধবীলতাকে মানুষ কতটা ভালোবাসেন সেটাই দেখার।

 

google-news-icon

লেটেস্ট খবর