fbpx

Maharshtra: পা ভিতরে, বাকি অর্ধেক শরীর বাইরে! চলন্ত লিফট কেড়ে নিল শিক্ষিকার প্রাণ

লিফটে উঠতে গিয়ে মর্মান্তিক দুর্ঘটনার শিকার হলেন একজন স্কুল শিক্ষিকা। অর্ধেক শরীর লিফটের মধ্যে বাকিটা তখনও বাইরে। আচমকাই চলতে শুরু করল লিফট। এক ভয়ংকর দৃশ্য দেখল মহারাষ্ট্রের এক বেসরকারি স্কুল। দিনে দুপুরে সাংঘাতিক ভাবে মৃত্যু হল ২৬ বছরের স্কুল শিক্ষিকার।

স্কুল সূত্রে জানা গেছে, মৃত শিক্ষিকার নাম গিনেল ফার্নান্দেজ। শুক্রবার দুপুরে শিক্ষিকা স্কুলের লিফ্ট ব্যবহার করেই সাততলা থেকে দোতলা নামতে গিয়েছিলেন। সেই অনুযায়ী লিফ্টে পা দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই দুর্ঘটনার মুখে পড়েন। একটা পা সবেমাত্র লিফ্টে দিয়েছেন। এমন সময় আচমকাই বন্ধ হয়ে যায় লিফ্টের দরজা। বাকি পুরো শরীর তখনও বাইরে। লিফ্ট হঠাৎই ওপরে ওঠা শুরু করে। দেওয়াল ও লিফটের মধ্যে আটকে থাকেন ঐ তরুণী। কয়েক মুহুর্ত, তারস্বরে চিৎকার। আর তারপরেই সব শেষ। স্কুলের নিরাপত্তা রক্ষী ও অন্যান্য শিক্ষাকর্মীরা ছুটে এসে দেখেন এই যন্ত্রনাদায়ক দৃশ্য। মহিলাকে উদ্ধার করে দ্রুত নিকটবর্তী হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। আকস্মিক এই ঘটনায় শোকাবহ ও ভয়ের পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে স্কুলটিতে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ক্লাসের উদ্দেশ্যেই যাচ্ছিলেন শিক্ষিকা। এমন সময় তার চিৎকার শুনে ছুটে আসেন স্কুলের বাকিরা। কিন্তু তখন এমন দৃশ্য দেখে অনেকেই রীতিমতো স্তম্ভিত হয়ে যান। যতটা সম্ভব দ্রুত উদ্ধার করা হলেও আঘাত এতটাই গুরুতর ছিল যে বাঁচার সম্ভাবনা ছিল ক্ষীণ। ঘটলও তাই। লিফটের যান্ত্রিক গলযোগের কারণে দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীদের অনুমান।

তবে পুলিশ ইতিমধ্যেই বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। পুলিশের তরফে অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু হয়েছে। লিফটের যান্ত্রিক সমস্যা প্রাথমিক অনুমান হলেও আরও তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর