fbpx

Melisa Raouf : নিজের সৌন্দর্যেই বিশ্বাস, মেকআপ ছাড়াই বিউটি কনটেস্টে আত্মবিশ্বাসী মেলিসা

নেহা চক্রবর্ত্তী, কলকাতা : ইতিহাসে ৯৪ বছরের মধ্যে এই প্রথম বার মিস ইংল্যান্ড ( Miss England ) প্রতিযোগিতার জন্য এক মডেল মেক আপ ছাড়াই অংশ নিতে চলেছেন। বাহ্যিক সৌন্দর্য যে কখনওই মনের সৌন্দর্যকে ছাপিয়ে যায় না তা প্রমাণ করেছেন অনেকেই। ঠিক এরকমই আবার প্রমাণ করার জন্য প্রস্তুত হচ্ছেন ওই মডেল ।

img 20220828 164703

সূত্র অনুযায়ী জানা গিয়েছে মডেলের নাম মেলিসা রাউফ( Melisa Raouf )। মাত্র ২০ বছর বয়সি ওই মডেল রাষ্ট্রবিজ্ঞানের ছাত্রী।সংবাদমাধ্যমকে মেলিসা জানান তিনি কৃত্রিমতা ছাড়াই নিজের অন্তরের সৌন্দর্য সকলের সামনে প্রকাশ করতে চান। মেকআপ ছাড়া সুন্দরী প্রতিযোগিতায় মেলিসার অংশগ্রহণ আরও অসংখ্য মেয়েকে উৎসাহিত ও আত্ম বিশ্বাসী করেছে নিজের প্রতি। মেলিসা জানান, “অনেক মেয়ে আমাকে টেক্সট পাঠিয়ে জানিয়েছে যে, আমি কীভাবে তাদেরকে উৎসাহিত করেছি। ওরা বলেছে যে, আমি ওদের আত্মবিশ্বাস বাড়াতে সাহায্য করেছি।” তরুণীর আরও বলেন, সমাজ ও নেটমাধ্যমে সৌন্দর্যের এক ধরনের ধরাবাঁধা মাপকাঠি থাকে ঠিক সেটাকেই ভাঙতে বদ্ধপরিকর তিনি।

তিনি বলেন ‘আমাদের মানসিক স্বাস্থ্য নিঃসন্দেহে গুরুত্বপূর্ণ। আমি চাই প্রত্যেকটি মেয়েই নিজের স্বাভাবিক সৌন্দর্য নিয়ে ভালো বোধ করুক, আত্মবিশ্বাসী থাকুক। আমি তথাকথিত সব ধরনের বিউটি স্ট্যান্ডার্ডের ইতি টানতে চাই। আমি যা করছি তা প্রত্যেকটি মেয়ের জন্যই করছি।’তিনি ছোটবেলায় যখন মেকআপ করতেন তখন নিজের ত্বক নিয়ে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেননি কখনওই।

আগামী অক্টোবরে ইংল্যান্ডের শীর্ষ এ সুন্দরী প্রতিযোগিতার ফাইনালে ৪০ জন শীর্ষ প্রতিযোগীর সাথে লড়তে যাচ্ছেন মেলিসা। ফাইনালের মঞ্চেও মেকআপ ছাড়াই উঠবেন বলে জানিয়েছেন মেলিসা। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ন্যাচারাল বিউটি আর টক্সিক বিউটি স্ট্যান্ডার্ডের বিরুদ্ধে আমার অবস্থান জানাতে কোনো মেকআপ ছাড়াই ফাইনালের মঞ্চে উঠবো আমি। মেকআপ ছাড়াই আমি আত্মবিশ্বাসী একজন মানুষ। মেকআপ করলে আমার সব আত্মবিশ্বাস মেকআপের নিচে ঢাকা পড়ে যায়। এটাই আমি, আমার সত্যিকারের ব্যক্তিত্ব প্রকাশে আমি কখনো ভয় পাই না। আর এটা আমি সবাইকে দেখাতে চাই।’

 

 

 

google-news-icon

লেটেস্ট খবর