fbpx

Mithai: আদরে-আহ্লাদে কাটছে দিন, মিঠাইয়ের কোলেই মাথা রেখে ঘুমের জগতে সিড

যতই এগিয়ে আসছে বিপদের ছায়া। ততই বাড়ছে রোমান্সের ঘোর। মিঠাইয়ের বকুনি আর আদর মাখছে সিড

মিঠাইয়ের গুলি লাগার পরই যেন অতিরিক্ত দুর্বল হয়ে পড়েছে সিড। আর এই জন্যই ধারাবাহিকে আসছে একাধিক ‘সি-ধাই মোমেন্টস’।একদিকে যেমন বিপদ ঘিরে ফেলেছে মিঠাই পরিবার। তেমনই রোমান্সে কোনও ঘাটতি থাকছে না। মিঠাই-সিড হাতে হাত রেখেই বিপদের মোকাবিলা করছে। মিঠাই অসুস্থ হতেই সিড ভীষণ উতলা। সমস্ত ঘটনাকেই দেখছে সন্দেহের চোখে। তাঁর সন্দেহ যে মিথ্যা নয় তার প্রমাণ পেয়েছে দর্শক। মিঠাই আগলে রাখছে তাঁর উচ্ছে বাবুকে। আর তখনই তৈরি হচ্ছে রোমান্টিক মুহূর্ত।

ওমির মৃত্যুর খবরকে একদমই বিশ্বাস করতে পারেনি সিড। তাই অপরিচিত মাষ্টার মশাই বাড়িতে আসতেই তার সম্বন্ধে খোঁজ খবর নিতে শুরু করেছে সিড। রুদ্রর সঙ্গে ফোন আর ম্যাসেজে তৎপর হয়ে উঠেছে সে। তবে অনাহারে অর্ধাহারে ভারি চিন্তায় থাকা সিডকে দেখে মিঠাইয়ের মন-খারাপ। তাই সিদ্ধার্থের বকাঝকা এখন অতীত! মিঠাই বকুনি দিয়ে ফোন কেড়ে নিল সিদ্ধার্থের থেকে। তারপরই ঘুমাতে যেতে আদেশ দিয়েছে। মিঠাই রানির আদেশ সিদ্ধার্থ ফেলতে পারেনি। তবে চিন্তিত সিড দু চোখের পাতা এক করতে পারছে না। সেই দেখেই মিঠাই আদর করে, পিঠে চাপড় দিয়ে বাচ্চাদের মতো ঘুম পাড়িয়ে দিল সিডকে। এত মিষ্টি মুহূর্ত দেখে মুগ্ধ হয়েছে মিঠাই ভক্তরা।

তবে অনেকেই বলছেন, ‘পুরোই ন্যাকামি’ ও কেউ বলেছেন, ‘আগের সিড আর নেই’, কারও মতে ‘ গল্প বলতে আর কিছু নেই শুধু মিঠাই সিডকে দেখিয়ে TRP নেওয়ার চেষ্টা। তবে মিঠাই ভক্তরা খুব খুশি। তাঁরা চান আরও আসুক এমন রোমান্টিক মুহূর্ত। মিঠাই সিডের আসন্ন বিপদে আর ওমির পাতা ফাঁদ নিয়ে তাদের মুখেও দুশ্চিন্তার ছাপ। বোম বিকল করতে গিয়েই কী বিপদে পড়বেন সিড-মিঠাই? একসঙ্গেই কী জীবন সংকট হবে তাঁদের? নাকি এই বিপদে একসঙ্গে লড়াই করার মানসিকতা আরও কাছাকাছি আনবে তাদের? অপেক্ষায় সিরিয়াল-প্রেমীরা

google-news-icon

লেটেস্ট খবর