fbpx

Mithai: মোদক পরিবার এখন ‘মনোহরা’ হারা! জানেন কি মিঠাই আর হল্লাপার্টির নতুন ঠিকানা?

সিদ্ধার্থ আর সন্দীপ মিলে একটি বাড়ি খুঁজে বার করে। কিন্তু বাড়িওয়ালা যে 'খিটখিটে'!

জয়িতা চৌধুরি,কলকাতাঃ শেষ পর্যন্ত বিফলে গেল না শত্রুদের চক্রান্ত। আদিত্য আগ্রবালের ষড়যন্ত্রের স্বীকার গোটা মোদক পরিবার। ঘরছাড়া হয়ে এবার আবার নতুন বিপদের সম্মুখীন তাঁরা। সিদ্ধেস্বরের বিরুদ্ধে উঠেছে দুর্নীতির অভিযোগ। দাবি করা হচ্ছে মিষ্টি ব্যবসার আড়ালে নাকি তিনি অন্য কারবার চালান। তদন্তের দায়িত্ব পুলিশের হাতে থাকায় মোদক পরিবারের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট সিল করে দেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গেই আসে ‘মনোহরা’ ছেড়ে দেওয়ার নির্দেশ।

এমতাবস্থায় উদ্বিগ্ন পরিবারের সদস্যরা আঁচ করতে থাকেন কে এই সমস্যার কারিগর? কিন্তু হাতে যথার্থ প্রমাণ থাকায় কোনও সিদ্ধান্তে উপনীত হতে পারেন না তাঁরা। তাঁরা আঁচ করেন, হয়ত ভাই ওমির মৃত্যুর প্রতিশোধ নিচ্ছে আদিত্য। তাঁকে সাহায্য করছে স্থানীয় কাউন্সিলার প্রমীলা। আসলে, ‘মনোহরা ‘-র জমি কিনতে চায় আদিত্য। যাতে মোদক বাড়ি ধূলিসাৎ করে ভাইয়ের মৃত্যুর প্রতিশোধ নিতে পারে সে। তাঁকে সাহায্য করছে প্রমীলা। সিদ্ধেস্বরকে ফ্ল্যাট ও মোটা টাকার প্রলোভনও দেখায় সে। কিন্তু সিদ্ধেস্বর বাড়ি বেচবেন না বলে পরিষ্কার জানিয়ে দেন।

mithai 1

এরপর সোজা আঙ্গুলে ঘি উঠছে না দেখে, আঙ্গুল বেঁকায় আদি। বাস্তুহারা সিদ্ধেস্বর নাত জামাইয়ের সাহায্যও প্রত্যাখ্যান করেন। সিদ্ধার্থকে তাই কম খরচের বাড়ি ভাড়া নিতে বলেন তিনি। সিদ্ধার্থ আর সন্দীপ মিলে একটা বাড়ি খুঁজে বের করলেও বাড়িওয়ালা যে ‘খিটখিটে’! বাড়িতে থাকতে হলে বেশি জল খরচ করা চলবে না, রাত ১০টার পর আলো জ্বালানো চলবে না— এমনই সব ফতোয়া চাপিয়েছে। কিন্তু উচ্ছেবাবুও কি মেনে নেওয়ার পাত্র? বাড়িওয়ালার সঙ্গে ঝগড়া শুরু করে দেয় সে।

অবশেষে পরিস্থিতি সামলে সন্দীপ নতুন বাসস্থান সাজানোর কাজে লেগে পড়তে বলে মিঠাই আর হল্লাপার্টি। হাতে ঝাড়ু তুলে নেয় সিদ্ধার্থও। বিপদে মনোবল হারাতে কোন মতেই রাজি নন মনোহরার সদস্যরা। শেষমেশ কি আদিত্যর ষড়যন্ত্র সামনে আসবে? ‘মনোহরা’ ফিরে পাবে মিঠাইরা? শুধুই সময়ের অপেক্ষা।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর