fbpx

Mithai: “দুষ্টুমির জন্য বকা খেতাম!” কার সঙ্গে দস্যিপনা করতে গিয়ে বিপদে পড়তেন মিঠাই?

বাংলা ধারাবাহিকে দুষ্টু-মিষ্টি গল্প মানেই মানুষের মাথায় আসে মিঠাইয়ের ( Mithai ) কথা। যখন ছোট পর্দার সব সিরিয়াল ব্যস্ত সাংসারিক কূটনীতি নিয়ে। সেই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে মোদক পরিবার যেন এক অন্য ধারার গল্পকে তুলে ধরে মানুষের সামনে। মিঠাইয়ের প্রতিদিনের দুষ্টু-মিষ্টি আচরণ প্রভাব ফেলে বাড়ির মা-মাসিদের মনে। সাপ্তাহিক টিআরপি’র ( TRP ) খেলায় বেশ অনেকটা পিছিয়ে পড়লেও, পুনরায় নিজের জন্য শীর্ষ স্থান দখল করে নিয়েছে মিঠাই। অনুরাগীদের মন জয় করা কাহিনীর মধ্যে দিয়ে ফের ‘বাংলার টপার’ আপাতত সকলের প্রিয় মিঠাইরানি ( Mithai )। 

তবে জানেন কি, অনস্ক্রিন জীবনের মতোই ঠিক যেন বাস্তবেও একই রকম মিষ্টি আচরণ মিঠাইয়ের। ছোট থেকেই নাকি বেশ দুষ্টু-মিষ্টি স্বভাবের সে। কিন্তু মোদক পরিবারে যেমনটা প্রাণচ্ছল জীবন কাটান মিঠাই, ঠিক এমনটাই কি সে? অভিনয়ের জন্য শিল্পীকে বিভিন্ন চরিত্র ও সেই চরিত্রের নানা আচরণের মধ্যে দিয়ে যেতে হয়। অনেক সময়ই দেখা যায়, শিল্পী যে চরিত্রকে অনস্ক্রিন বা বলা চলে পর্দায় ধারণ করে চলে, বাস্তব জীবনে তার একেবারে উল্টোটা হয়ে থাকে। এক্ষেত্রে একটি প্রশ্ন মাথা চাড়া দেয়, অন্যদের মতো বাস্তব জীবনেও মিঠাইয়ের মতোই প্রাণ খোলা প্রকৃতির সৌমিতৃষা ( Soumitrisha Kundu )। 

mithai 5

এই প্রসঙ্গে একটি সাক্ষাৎকারে কথা বলতে গিয়েই তিনি টেনে আনেন নিজের ছোটবেলার কথা। এদিন তিনি জানান, ছোট থেকেই দারুণ দুষ্টু প্রকৃতির সে। এদিক-ওদিক লাফিয়ে-ঝাপিয়ে বেড়ানো এই ছিল তাঁর ওই বয়সের দৈনিক রুটিন। তবে এখানেই থামেননি অভিনেত্রী।  তিনি আরও জানিয়েছেন, “নিজের দুষ্টুমির জেরে মায়ের কাছে প্রচন্ড বকা খেতাম। তবে শুধুই দুষ্টু নয়, সঙ্গে ছিলাম প্রচন্ড সাহসীও।” তবে এখানেই শেষ নয়, এদিন সৌমিতৃষা আরও জানান, তাঁর মা-বাবা নাকি চেয়েছিলেন ছেলে না হয়ে মেয়ে হোক। যাতে বেশি দুষ্টুমি না করতে পারে। কিন্তু সব আশাতেই পড়েছিল জল। অভিনেত্রীর কথায় তাঁর দুষ্টুমিতে নাকি মাঝে মধ্যে নাজেহাল হয়ে উঠতেন তাঁর বাবা-মা। 

প্রসঙ্গত, অল্প বয়সে মিঠাই যে বড়ই দস্যি ছিল, তা তাঁর স্বভাবেই বোঝা যায়। আর সত্যি বলতে দর্শকদের মনে তাঁর এই দুষ্টু-মিষ্টি স্বভাবটাই যেন বেশি জায়গা করে নিয়েছে। যার জেরে আপাতত বেঙ্গল টপার সে। এককালে ছোট পর্দায় সহশিল্পীর কাজ করলেও মিঠাই ধারাবাহিকের হাত ধরে জীবনে এক নতুন মোড়ের সন্ধান পায় সৌমিতৃষা।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর