fbpx

Khelna Bari: মন ভেঙেছে সীমা! রিমঝিম বৃষ্টির ধারায় মাঝরাস্তায় আদরে-সোহাগে মেতেছে ইন্দ্র-মিতুল

ধারাবাহিকের সাম্প্রতিক একটি এপিসোডে দেখা গেল সেই ছবি। বৃষ্টিভেজা দুজনের রসায়নে বেশ মন মজেছে দর্শকদের।

জয়িতা চৌধুরি,কলকাতাঃ কিছুদিন আগেই জি বাংলায় শুরু হয়েছিল নতুন ধারাবাহিক ‘খেলনা বাড়ি’। ধারাবাহিকের মূল দুই চরিত্র মিতুল ও ইন্দ্র। ধারাবাহিকের শুরু থেকেই দুজনের সম্পর্কের মধ্যে দিয়েব অনেক ঝড়-ঝাঁপটা গেছে। তবে সব বাঁধা বিপত্তি কাটিয়ে কাছাকাছি এসেছে মিতুল ও ইন্দ্র। নায়কের প্রেমে রীতিমত হাবুডুবু খাচ্ছেন নায়িকা। ধারাবাহিকের সাম্প্রতিক একটি এপিসোডে দেখা গেল সেই ছবি। বৃষ্টিভেজা দুজনের রসায়নে বেশ মন মজেছে দর্শকদের।

romance in rain

সিরিয়ালের শুরুতে দেখা গেছিলো মাত্র ১৬ বছর বয়সে বাবাকে হারিয়ে ছিল মিতুল। তখনই মিতুল সিদ্ধান্ত নেন তিনি বাবার কাজটিকে এগিয়ে নিয়ে যাবেন অর্থাৎ পুতুল বানাবে। সেই থেকে পুতুল বানিয়ে সংসার চালায় ধারাবাহিকের নায়িকা। মিতুলের সঙ্গী ছিল ধারাবাহিকের এক খুদে সদস্য গুগলি। মিতুলের জীবনে বেশ গুরুত্বপূর্ণ এই ভূমিকা গুগলির।

romance in rain 2

ধারাবাহিকে মিতুলের ভূমিকায় করেছেন আরাত্রিকা মাইতি ( Aratrika Maity ) ও ইন্দ্রজিত লাহিড়ীর ভূমিকায় রয়েছেন অভিনেতা বিশ্বজিৎ ঘোষ ( Bishwajit Ghosh )। কলকাতা শহরের এক নামজাদা ব্যবসায়ী এই ইন্দ্রজিৎ। মিতুলের গ্রামে একটি রিসর্ট বানানোর পরিকল্পনা আছে তাঁর। গ্রামেই দেখা দুজনের। গল্পের নায়ক ইন্দ্রজিতের মনে অতীতের কিছু ঘটনার জন্য দৃঢ় বিশ্বাস ছিল, যে মেয়েরা কোনও কিছুতেই সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারে না। কিন্তু মিতুলের অনুপ্রবেশে ইন্দ্রর সেই ধারণা বদলে গেছে।

romance in rain 3

সাম্প্রতিক ধারাবাহিকের এপিসোডগুলি দেখলেই বোঝা যাচ্ছে ইন্দ্রর প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছেন নায়িকা। প্রথমে তা নিয়ে সন্দেহ থাকলেও এখন তা পরিষ্কার। অনেক ঝর-ঝাঁপটা সামলে দুজন দুজনের বন্ধু হয়ে উঠেছেন। বন্ধুত্বের মধ্যেই প্রেমের সুত্রপাত হয়েছে তাঁদের। আর ইন্দ্র মিতুলের জন্য আরও কেয়ারিং উঠেছেন,। প্রবল বৃষ্টিতে মাথায় ব্যাগ দিয়ে ঢাকার প্রচেষ্টা চলছে। তবে পরে দুজনকেই বৃষ্টিতে ভিজতে দেখা যায়। খনো মিতুলকে বৃষ্টির মধ্যে কোলে তুলে নেয় ইন্দ্র তো কখনো তাঁর হাত ধরে একসঙ্গে বৃষ্টিতে ভেজে, এই বৃষ্টির মধ্যে দিয়েই শুরু হয় তাঁদের কাছে আসার গল্প।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর