fbpx

Mohua Moitra:‛লাখ টাকার’ ব্যাগ নিয়ে চর্চা তুঙ্গে! কোন রহস্যে মহিলাদের মধ্যে বাড়ছে এই কোম্পানির চাহিদা?

কোটি কোটি টাকা নয়, একটা ব্যাগই রাজনৈতিক মহলে শোরগোল ফেলে দিল। আর সেই চর্চাকে কেন্দ্র করে বিতর্কের মধ্যমনি হয়ে উঠলেন সাংসদ মহুয়া মৈত্র ( Mohua Mitra )। না কোনও রাজনৈতিক বক্তব্য নয়, কোনও টাকার গন্ধও নয় তাঁর ব্যবহৃত সুদৃশ্য ব্যাগ টি তার সমস্ত বিপত্তির কারণ। নেটিজেনদের চোখ টাকা থেকে সরে এখন আঁটকে গিয়েছে মহুয়া মৈত্রর ব্যাগে। কী এমন বিশেষত্ব আছে ঐ ব্যাগের? আসলে আর কিছুই নয়,ব্যাগটি লুই ভিতোঁর ব্যাগ( Louis Vuitton Bag )। তাতে কী হল! ব্যাগ তো ব্যাগই হয়। তাছাড়াও ব্যাগটি আজ নয় তিনি ২০১৯ থেকেই ব্যবহার করছেন। সংসদ ভবনেও একাধিকবার এই ব্যাগ হাতে দেখা গিয়েছে তাঁকে। তবে আজ নতুন কী এমন ঘটল যে ব্যাগের সাথে মহুয়া মৈত্র ট্রেন্ডিং হয়ে গেলেন?

সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার লোকসভায় মূল্যবৃদ্ধি প্রসঙ্গে মন্তব্য রাখছিলেন। এই সময় তিনি জিনিস পত্রের চড়া দাম নিয়ে সওয়াল করছিলেন। কাঁচা বেগুনে কামড় দিয়ে প্রতিবাদ জানাচ্ছিলেন তিনি। গ্যাসের দাম নিয়ে সরব হয়ে বলেছিলেন, যেমন চড়া মূল্য হয়েছে গ্যাসের তাতে কাঁচা সবজি খেতে হবে। যখন রীতিমতো যখন হাসির ফোয়ারা ছুটছে লোকসভায় তখনই কাকলী ঘোষ দোস্তিদার ও মহুয়া মৈত্রের চোখ চাওয়া চাওয়ি হয়। এসময় মুচকি হাসছিলেন মহুয়া মিত্র। তারপরই বেশ কিছুটা সতর্ক হয়েই নিজের লুই ভিতোঁর ব্যাগ টি নামিয়ে রাখেন। ব্যস্ আর যাবেন কোথায়? সাংসদ থেকে নেটিজেন সকলের কটাক্ষের মুখে পড়তে হল তাকে।

তৃণমূল যখন মূল্য বৃদ্ধি নিয়ে সংসদ তোলপাড় করছে। তখনই এক সাংসদ তাঁর বহুমূল্য ব্যাগ লোকাচ্ছেন। এই দেখেই হাসির রোল নেট পাড়ায়। দিলীপ ঘোষ থেকে বিরোধী দলের একাধিক সদস্য সমালোচনায় মুখর হয়েছে।

অবশ্য যোগ্য জবাব দিয়েছেন মহুয়া মৈত্র। তিনি ছবি পোস্ট করে জানিয়েছেন, ব্যাগটি ২০১৯ থেকেই তার সঙ্গী। ‘ঝোলা লেকে চল পড়েঙ্গে’ বলে রাজনৈতিক ব্যক্তিদের কটাক্ষ করতে ছাড়েননি। আসলে তাঁর ব্যাগের দাম কমপক্ষে ২ লক্ষ টাকা। ফলে যারা গরীব মানুষের হয়ে কথা বলছেন তাদের ব্যবহৃত জিনিসের দাম এত বেশি যে সেখানে সমালোচনা হতে বাধ্য।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর