fbpx

মিস্টার পারফেকশনিস্ট তিনি! নাগা চৈতন্য যা ১২ বছরে শেখেননি তা ৪৫ দিনে শিখিয়ে দিয়েছেন আমির

জয়িতা চৌধুরী, কলকাতা: দক্ষিনী তারকা নাগা চৈতন্য ( Naga Chaitanya ) বলিউডে আত্মপ্রকাশ ( Bollywood ) করতে চলেছেন অদ্বৈত চন্দন ( Adwit Chandan ) আমির খানের আসন্ন ছবি ‘লাল সিং চাডহা’ –র ( Laal Singh Chadda ) হাত ধরে। সম্প্রীতি ছবিটির ট্রেলারও মুক্তি পেয়েছে। আর সেই সুবাদেই একটি সাক্ষাতকারে দক্ষিণের এই সুপারস্টার তার সহ- অভিনেতা আমির খানের সম্পর্কে বলেন গত 12 বছরে যা শিখেছেন তা মাত্র ৪৫ দিনে আমিরের কাছে যা শিখেছেন তার সমান।

দক্ষিনী তারকা নাগা চৈতন্য ( Naga Chaitanya ) আরও যোগ করেছেন যে বলিউড সুপারস্টার আমির খান ( Amir Khan ) তাকে তার চেয়েও বেশি শিখিয়েছেন। চৈতন্যের মতে, আমিরের কিছু আশ্চর্যজনক জাদুকরী ক্ষমতা আছে যেখানে সে চেষ্টা না করেও মানুষকে প্রভাবিত করতে পারে। আরও বিশদভাবে তিনি বলেন যে আমির নাকি সর্বদা কন্টেন্ট অনুসরণ করেন। তিনি সংখ্যা বা প্যাকেজিং সম্পর্কে মাথা ঘামান না। কিন্তু যখন তারা শুটিং করছেন , এবং যতক্ষণ না তারা টেক শেষ হচ্ছে, আমির নাকি কেবল কন্টেন্টের পেছনে ছুটছেন। এতটাই স্রধা তার কাজের প্রতি।

naga chaitanya and amir khan

আমির খান প্রোডাকশন্স, কিরণ রাও, ভায়াকম ১৮ স্টুডিওস দ্বারা প্রযোজিত লাল সিং চাড্ডাতে আমির খানের পাশাপাশি করিনা কাপুর খান, মোনা সিং এবং দক্ষিণী অভিনেতা চৈতন্য আক্কিনেনিকে। এই ছবি মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল এই বছরের এপ্রিলে। কিন্তু সেটি পিছিয়ে ১১ আগস্ট ২০২২ শে মুক্তি পাবে এই ছবি। ১৯৯৪ সালে মুক্তি পাওয়া টম হ্যাঙ্কস-এর জনপ্রিয় সিনেমা ফরেস্ট গাম্প-এর অনুপ্রেরণায় আমির খানের লাল সিং চাড্ডা তৈরি করা হয়েছে।

laal singh chadda

২০১৮ সালে ‘ঠগস অব হিন্দুস্তান’-এ দেখা গিয়েছিল শেষবার আমির খানকে। সেই ছবিও বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়েছিল। তাই এবার যেন একটু বেশিই সতর্ক আমির খান। সেই কারণেই শুরু থেকেই একটু অন্যরকম ভাবে ‘লাল সিং চাড্ডা’র প্রোমোশন শুরু করতে চাইছেন আমির খান। ছবি নিয়ে ইতিমধ্যেই টানটান উত্তেজনা শুরু হয়েছে দর্শকদের মধ্যে। আমির খান ও করিনা কাপুরকে একসঙ্গে দেখার জন্য মুখিয়ে রয়েছেন অনুরাগীরা।

অন্যদিকে ‘‌ভারত অসহিষ্ণু’‌ সহ একাধিক পুরনো বিষয় নিয়ে আমির খানকে ট্রোলড করা শুরু করেন নেটিজেনের একাংশ। তারা  লাল সিং চাড্ডা বয়কট ( Boycott Lal Singh Chadda ) করার আহ্বান জানান। আমির খানের পুরনো বিবৃতি যা বিতর্কের সৃষ্টি করেছিল সেগুলি উল্লেখ করে নেটিজেনদের একাংশ এই সিনেমা বয়কট করার জন্য বলেছেন। যদিও ট্রোলারদের সম্মুখে দাঁড়িয়ে আমির খানের ভক্তরা এই ট্রেলারের প্রশংসা করেছেন।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর