fbpx

৯/১১ হামলায় ওসামা বিন লাদেনের ভূমিকার প্রমাণ নেই, চাঞ্চল্যকর দাবি তালিবানদের

তালিবানেরা রয়েছে তালিবানেই। ২০ বছর পর ক্ষমতায় ফিরেই ফের স্বমহিমায় ফিরতে শুরু করেছে তালিবরা। কাবুলের মসনদে বসেই এবার ভাবগুরু লাদেনকে ক্লিনচিট দিল উগ্রপন্থীরা। তালিবান মুখপত্রের দাবি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৯/১১ সন্ত্রাসবাদী হামলার মূল পরিকল্পনাকারী ওসামা বিন লাদেন ওই হামলার সাথে জড়িত ছিল না। সাম্প্রতি মার্কিন সংবাদ মাধ্যম এনবিসি নিউজের সাথে কথা বলার সময় তালিবান মুখপাত্র জাবিবুল্লাহ মুজাহিদ বলেন, ” যুদ্ধের কুড়ি বছর পরেও তার (লাদেন) জড়িত থাকার প্রমাণ নেই।

তালিবান মুখপাত্রের আরও দাবি “এই যুদ্ধের কোনো যৌক্তিকতা ছিল না, আমেরিকানরা যুদ্ধের জন্য এই অজুহাত কে ব্যবহার করেছিল।” তালিবান কি পারবে আফগানিস্থানে আল-কায়দার মত সন্ত্রাসবাদি সংগঠনের প্রতিরোধ করতে? জবাবে তালিবান মুখপাত্র বলেন, তারা বরাবর প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন সন্ত্রাসবাদ আর নিরাপদ আশ্রয় পাবে না আফগানিস্তানের মাটিতে। আর সেই প্রতিশ্রুতি তারা রাখবেন। তবে কে আর কোন পটভূমিকায় সন্ত্রাসবাদীর তকমা পাবে সে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।

Taliban,Osama bin Laden,afganistan,attack in USA,9/11 attack,মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র,তালিবান,ওসামা বিন লাদেন,আফগানিস্তান,হামলা,Osama,USA,terrorism,সন্ত্রাস,ওসামা বিন লাদেন।

এদিকে জাবিবুল্লাহ মুজাহিদ আরও বলেন, ” যখন লাদেন আমেরিকানদের জন্য সমস্যা হয়ে দাঁড়ায়, তখন তিনি আফগানিস্তানেই ছিলেন। কিন্তু তার জড়িত থাকার কোন প্রমাণ মেলেনি। আমরা এখন প্রতিশ্রুতি দিয়েছি যে আফগান মাটি আর কারো বিরুদ্ধে ব্যবহার হবে না।” অন্যদিকে তালিবান শাসনের অধীনে আফগান নারীরা ফের অধিকার হারানোর ভয়ে কাঁপছে। সেই সম্পর্কে জানতে চাইলে মুজাহিদ বলেন, ” আমরা নারীদের সম্মান করি, তারা আমাদের বোন। তাদের ভয় পাওয়ার কোন কারণ নেই। তালিবান দেশের জন্য লড়ছে। নারীদের আমাদের জন্য গর্বিত হওয়া উচিত, ভীত নয়।”

Taliban,Osama bin Laden,afganistan,attack in USA,9/11 attack,মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র,তালিবান,ওসামা বিন লাদেন,আফগানিস্তান,হামলা,Osama,USA,terrorism,সন্ত্রাস,ওসামা বিন লাদেন।

এনবিসি র সাক্ষাৎকারে তালিবান ‘সন্ত্রাসের’ জেরে আফগান শরণার্থীদের প্রসঙ্গ উঠতেই মুজাহিদ বলেন ” আমরা চাইনা আমাদের দেশবাসী দেশ ছেড়ে যাক। অতীতে যা ঘটেছে তার জন্য আমরা তাদের ক্ষমা করে দিয়েছি। আমাদের দেশের উন্নতির জন্য তরুণ এবং শিক্ষিত লোকের দরকার। কিন্তু তারা যদি দেশ ছাড়তে চায়, আমরা তাদের আটকাবো না। প্রসঙ্গত ১৫ই আগস্ট তালিবান আফগানিস্তানের দখলে নেয়। তারপর থেকেই হাজার হাজার আফগান কাবুল বিমানবন্দরে বাইরে ভিড় করে আসে দেশ ছাড়ার জন্য।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর