fbpx

Nusrat-Yishaan : আজও ক্যামেরার আড়ালে ঈশান! এত দিন কাটলেও এখনও কেন এক সিদ্ধান্তে অনড় নুসরত?

নেহা চক্রবর্ত্তী, কলকাতা : নুসরত জাহান ( Nusrat Jahan ) অনেকদিন হল টলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে( Tollywood ) কাজ করে চলেছেন। নিজের অভিনয়ের মাধ্যমে বেশ জনপ্রিয়তা তৈরী করে নিয়েছেন দর্শকদের মনেও। যদিও তাঁর ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া মুখিয়ে রয়েছে সবসময়ই। ট্রোলের শিকারও হন প্রায়শই তিনি। যদিও এই তারকা সাংসদ কটাক্ষ বা ট্রোলিং-কে একেবারেই পাত্তা দেননি কখনও। উল্লেখ্য, গত বছর ২৬শে অগস্ট মা হন নুসরত। নায়িকার অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর হইচই ফেলেছিল টলিউড তথা সোশ্যাল মিডিয়ায়। জন্ম দেন পুত্র সন্তান ঈশানকে( Nusrat-Yishaan )। ঈশানের বাবা কে এই নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল অনেকবার তাতে অভিনেত্রী জানান ওর পিতা যশ দাশগুপ্ত( Yash Dasgupta )। এই নিয়ে দেখতে দেখতে ১১ মাস বয়স হল ঈশানের। যশ ঈশান নিয়ে সুখে সংসার করছেন নুসরত। কিন্তু এখনও তিনি ঈশানের ছবি প্রকাশ্যে আনেননি। যদিও গত বছর দীপাবলি ও ক্রিসমাসে ছেলের একটু ঝলক দেখিয়েছিলেন ছবিতে। কেন তিনি ঈশানকে সামনে আনেননি এখনও! কারণ বললেন অভিনেত্রী নিজেই।

img 20220726 101602

এক সংবাদমাধ্যমের সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী জানালেন তিনি ও যশ ঈশানের এক বছরের জন্মদিন সেলিব্রেট করবেন যেভাবে। অভিনেত্রী বললেন, “ওটা একদম পারিবারিক একটা অনুষ্ঠান হবে। শুধু পরিবার আর কাছের বন্ধুরা থাকবেন। এই বয়সে ও তো বুঝবে না এই সেলিব্রেশনটার অর্থ। তাই সেই মুহূর্তগুলো আমরা সুন্দর করে লেন্সবন্দি করে রাখব। যাতে বড় হয়ে ও সবটা বুঝতে পারে।”

টলিউডের অভিনেতা অভিনেত্রীদের ছেলে মেয়ে এখন সকলের কাছে স্টারকিড। সে স্বস্তিকার মেয়ে হোক বা শ্রাবন্তীর ছেলে। কিন্তু ঈশানকে লোকচক্ষুর আড়ালে বড় করছেন যশ ও নুসরত। কেন এমন ধরনের সিদ্ধান্ত নিলেন তাঁরা? এই প্রশ্নের উত্তরে নুসরত জানালেন, “বাবা-মা হিসাবে এটা আমাদের সিদ্ধান্ত। যশের বড় ছেলেকেও মিডিয়া থেকে দূরেই রাখা হয়। আমরা চাই ওরা নিজেদের মতো করে বড় হোক, কোনওরকম ট্যাগ ছাড়া বা স্পেশ্যাল অ্যাটেনশন ছাড়া জীবনটা গড়ে তুলুক।”

এছাড়াও অভিনেত্রী জানান মাতৃত্ব বদলে দিয়েছে তাঁকে জীবনে অনেকখানি। অভিনেত্রীর কথায়, “আমি প্রত্যেক দিন নতুন কিছু শিখি, আমরা মধ্যে যে এত্ত শক্তি, ধৈর্য আর আত্মত্যাগ- আছে আমি আগে তা জানতাম না। নিজের সন্তানকে সুস্থ আর হাসিখুশি দেখবার সুখের কাছে এই পৃথিবীর সব ধনদৌলত আর পুরস্কার ফিকে।”

 

 

google-news-icon

লেটেস্ট খবর