fbpx

পল্লবীর সাথে সম্পর্ক থাকাকালীন পরকীয়ায় মেতেছিল সাগ্নিক! এক রাত কাটিয়ে ছিল ঐন্দ্রিলার সাথে

অনীশ দে, কলকাতা: আগের বছর সুশান্ত সিং রাজপুত, কয়েকদিন আগে মালায়ালাম অভিনেত্রী সাহানা, এবং এবার বাংলার অভিনেত্রী পল্লবী দে (Pallavi Dey)। পরপর অভিনেতাদের মৃত্যু ঘিরে উঠছে নানা প্রশ্ন। পল্লবীর মৃত্যুর পর একের পর অজানা তথ্য সামনে উঠে এসেছে। প্রথমদিকে পল্লবীর পরিবার আঙুল তোলে তার প্রেমিক সাগ্নিকের দিকে। এবার সামনে উঠে এলো এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। পল্লবীর (Pallavi Dey) বান্ধবী ঐন্দ্রিলা মুখোপাধ্যায়ের সাথে নাকি সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন সাগ্নিক (Pallavi Dey death)।

17c42

এমনটাই দাবি জানিয়েছে পল্লবীর পরিবার। এমনকি তার নামে পুলিশের কাছে খুনের অভিযোগ দায়ের করেছে পল্লবীর বাবা-মা। কিন্তু একথা জানার পর পল্লবীর মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ে। সে যেন বিশ্বাসই করতে পারছে না। তিনি জানিয়েছেন পল্লবী ও সাগ্নিক তার খুব ভালো বন্ধু ছিল। এমনকি পল্লবী তার বাল্যকালের বন্ধু ছিলেন বলে জানিয়েছেন ঐন্দ্রিলা। ছেলেবেলা থেকেই চেনেন পল্লবীর বাবা-মাকে।

আরও পড়ুন:কেচ্ছায় ভরা জীবন! বিচ্ছেদের পরও দুই বউয়ের সাথেই থাকেন আমির খান

পল্লবীর পরিবারের দাবি, অভিনেত্রীর লিভ ইন সঙ্গী সাগ্নীকের সাথে তার বান্ধবী ঐন্দ্রিলা জড়িয়েছিলেন সম্পর্কে। কিন্তু এই অভিযোগ নাকজ করে দেয় ঐন্দ্রিলা। পল্লবীর বাবা মা বলেছেন ঐন্দ্রিলা প্রায়শই তার মেয়ের গরফার ফ্ল্যাটে আসতেন। তবে ঐন্দ্রিলা জানিয়েছেন তিনি মাত্র একবারই গিয়েছিলেন পল্লবীর ফ্ল্যাটে।

img 20220516 214522

এক বিয়েবাড়ি সেরে ফিরছিলেন পল্লবী, ঐন্দ্রিলা ও তাদের কিছু বন্ধু। কিন্তু বেশি রাত হয়ে যাওয়ায় সেদিন ঐন্দ্রিলাকে তার ফ্ল্যাটে থাকতে বলেন পল্লবী (Pallavi Dey death)। পরেরদিন সাগ্নিকের রক্তবমি হওয়ায় পল্লবী ঐন্দ্রিলাকে সেদিন থাকতে বলে (Pallavi Dey death)। কিন্তু এর জেরে ঐন্দ্রিলাকে এত হেনস্থা হতে হবে জানলে সে থাকত না সেদিন, এমনটাই জানিয়েছেন তিনি।
আরও পড়ুন:দিদি নম্বর ১-এর মঞ্চে সাগ্নিকের গল্প প্রকাশ পল্লবীর, তারপরই মৃত্যুকে আপন করল অভিনেত্রী
ঐন্দ্রিলা আরও জানান, যদি পল্লবীর বাবা-মা আগে থেকেই এইসব জেনে থাকে এবং তাদের এতটাই সমস্যা ছিল তবে তারা আগে কেন জানাননি। সবশেষে তিনি বলেন, “আমার যেটুকু বন্ধুত্ব পল্লবীর সঙ্গেই ছিল। সাগ্নিকের সঙ্গে বিশেষ কথা হত না। পল্লবীর হাওড়ার বাড়িতে ওর জন্মদিন, পারিবারিক অনুষ্ঠান ছাড়াও বহুবার গিয়েছি। এমনকী, রাতেও থেকেছি। ও আমাদের বাড়িতে আসত”।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর