fbpx

কোভিড-১৯ এর চোখ রাঙানির মাঝেই এবার কোভিড-২২ আতঙ্ক, অপেক্ষা করছে আরও বড় বিপদ

করোনা ভাইরাসের দাপটে নাজেহাল গোটা দেশ। করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের কারণেই ভারতের উপর আছড়ে পড়েছিল করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। ডেল্টার সবচেয়ে ভয়ঙ্কর প্রজাতি ডেল্টা প্লাস নিয়ে এখনও ত্রস্ত মানুষ। ভারতের উপর কবে আছড়ে পড়বে করোনার তৃতীয় সুনামি, এখন সেই আশঙ্কায় দিন গুনছে ভারতবাসী। এই পরিস্থিতিতে আতঙ্কের পূর্বাভাস দিলেন জুরিখের প্রখ্যাত ইমিউনোলজিস্ট, প্রোফেসর সাই রেড্ডি। জানালেন, ডেল্টার থেকেও নাকি ভয়ঙ্কর রূপে দেখা দেবে করোনা ভাইরাসের আরও একটি ভ্যারিয়েন্ট, কোভিড-২২।

কিছুদিন আগেই করোনা নিয়ে স্বস্তির বার্তা শুনিয়েছিলেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা-র প্রধান বিজ্ঞানী সৌমা স্বামীনাথন। তিনি জানান, “করোনার ‘এন্ডেমিক’ পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছে ভারত। এই পর্যায়কেই অতিমারীর শেষ পর্যায় হিসাবে গণ্য করা হয়।” তাঁর এই আশার বাণী শোনার পর ভাইরাস মুক্তির স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছিল গোটা দেশের মানুষ। কিন্তু তার মধ্যেই করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট-এর পূর্বাভাস ভয় ধরাচ্ছে মানুষের মনে।

করোনা ভাইরাস,করোনার দ্বিতীয় ঢেউ,করোনার তৃতীয় ঢেউ,কোভিড-২২,ডেল্টা প্লাস ভাইরাস,জুরিখের প্রোফেসর,Corona virus,Corona second wave,Corona third wave,Covid-22,Delta plus virus,Professor of Zurich

প্রোফেসর সাই রেড্ডির মতে, বর্তমানে করোনার যে স্ট্রেনগুলি রয়েছে সেগুলি মিলে একটি ভয়াবহ স্ট্রেন তৈরি হতে পারে। যা ডেল্টা, বিটা, গামার থেকেও ভয়াবহ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এই স্ট্রেন কোভিড-১৯ ও অন্যান্য ভ্যারিয়্যান্টগুলির থেকেও ভয়ঙ্কর হতে পারে। তাঁর দাবি, যদি এই ধরনের কোনও স্ট্রেন আসে, সেক্ষেত্রে টিকা প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলিকে আগে থেকে প্রস্তুত থাকতে হবে নতুন প্রতিষেধক তৈরির জন্য। একমাত্র নতুন প্রতিষেধকই এই ভ্যারিয়্যান্টটিকে সমূলে উচ্ছেদ করতে পারবে।

করোনা ভাইরাস,করোনার দ্বিতীয় ঢেউ,করোনার তৃতীয় ঢেউ,কোভিড-২২,ডেল্টা প্লাস ভাইরাস,জুরিখের প্রোফেসর,Corona virus,Corona second wave,Corona third wave,Covid-22,Delta plus virus,Professor of Zurich

এর মধ্যে আশঙ্কা বাড়িয়ে ভারতে ফের মাথাচাড়া দিতে শুরু করেছে করোনা সংক্রমণ। বাড়তে শুরু করেছে সংক্রমিতের সংখ্যা। কিছুদিন আগেই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের কাছে একটি রিপোর্ট পেশ করেছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী। রিপোর্টে বলা হয়েছে যে দেশে ইতিমধ্যেই আছড়ে পড়েছে করোনার তৃতীয় ঢেউ। আর পুজোর মুখেই তা সর্বোচ্চ শিখরে পৌঁছতে পারে!
তবে রিপোর্টে সবচেয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে জানানো হয়েছে, তৃতীয়ে ঢেউয়ে ব্যাপক ভাবে আক্রান্ত হতে পারে শিশুরা। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৪ হাজার ৫৫৮ জন, বাড়তে শুরু করেছে দৈনিক মৃতের সংখ্যাও। সংক্রমণ ফের যেভাবে মাথাচাড়া দিতে শুরু করেছে, তা নিয়ে রীতিমতো উদ্বেগের মধ্যে রয়েছেন চিকিত্সকেরা। প্রশ্ন উঠছে, গত বছরের মতো এবছরও কি তাহলে উত্সবে কোপ পড়তে চলেছে বাঙালির ?

google-news-icon

লেটেস্ট খবর