fbpx

Raja Goswami: “সবাই রাস্তায় দেখলে হাসে”, হটাৎ এ কী বললেন ‛ভালোবাসা ডট কম’-এর ওম?

সম্প্রতি অভিনেতাকে দেখা যাচ্ছিল, স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘ধুলোকণা’-তে । নায়কের ভাই রুপাঞ্জনের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যায় রাজাকে। ছোট পর্দার জনপ্রিয় নায়ক থেকে সরাসরি পার্শ্বচরিত্র। কেমন ছিল অভিনয় করার অভিজ্ঞতা?

জয়িতা চৌধুরি,কলকাতাঃ ভালবাসা ডট কমের পর প্রায় এক দশক কেটে গেছে। কিন্তু সিরিয়ালপ্রেমীদের মধ্যে আজও সমান ভাবে জনপ্রিয় অনস্ক্রীন জুটি রাজা ও মধুবনী ( Madhubani Goswami )। দশটা বছর কেটে যাওয়ার অবশ্য দুজনের সম্পর্কের সমীকরণ বদলে গেছে। তাঁরা দুজন আর কো-স্টার নন, বাস্তবে তাঁরা স্বামী-স্ত্রী। চলতি বছরে এক ফুটফুটে সন্তানের আগমনও হয়েছিল তারকা দম্পতির জীবনে। রাজা এক টানা কাজ করলেও, অভিনয় থেকে নিজেকে একেবারে নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছিলেন মধুবনী।

raja goswami
সম্প্রতি অভিনেতাকে দেখা যাচ্ছিল, স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘ধুলোকণা’-তে ( Dhulokona ) । নায়কের ভাই রুপাঞ্জনের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যায় রাজাকে ( Raja Goswami )। ছোট পর্দার জনপ্রিয় নায়ক থেকে সরাসরি পার্শ্বচরিত্র। কেমন ছিল অভিনয় করার অভিজ্ঞতা? প্রশ্নের উত্তরে রাজা জানান, ‘খড়কুটো’র আগে তথাকথিত নায়কের চরিত্রে অভিনয় করেছি। মানুষ তখন আমার সঙ্গে নিজস্বী তুলতে চাইতেন। বেশ অন্য রকম একটা ব্যাপার ছিল। কিন্তু রূপাঞ্জনের চরিত্র করার পর যেন আমি পাশের বাড়ির ছেলে। সবাই এখন আমাকে দেখে হাসে। আমায় দেখলে বোধ হয় পর্দার কান্ডকারখানাগুলোর কথা মনে পড়ে যায়!’

এই প্রসঙ্গে অভিনেতা আরও জানান মুখ্যচরিত্রে অভিনয় থেকে সরে আসার অনেকগুলি কারণ রয়েছে, ‘তার মধ্যে একটি হল, সময়ের অভাব। আমি টানা টেলিভিশনে কাজ করে গিয়েছে। একটুও বিরতি পাইনি। সেই ব্যস্ততার জন্য তখন ছবি করে উঠতে পারিনি। অনেক সময় আবার পছন্দসই কাজের প্রস্তাব আসেনি। এ ছাড়াও প্রযোজনা সংস্থা বাছাইয়ের ক্ষেত্রেও মনোযোগী হয়েছি।‘

raja goswami 2
অভিনেতা আরও জানান, ‘সবাই সবাইকে ভালো অভিনয় করতে সাহায্য করেছে। আমি আগে কখনও পর্দায় কমেডি করিনি। রূপাঞ্জনের চরিত্র করার সময় খুব ভয়ে ভয়ে ছিলাম। অম্বরীশদা আমাকে অনেক কিছু শিখিয়েছে। এই ধারাবাহিক করতে গিয়ে একটা পরিবার পেয়েছি।‘ ‘ভালোবাসা ডট কম’ থেকে ‘খরকুটো’ এক দশক অভিনয় জগতে কাটানোর পর এবার পরবর্তী পরিকল্পনা কি? অভিনেতা জানান, ‘আপাতত আমার ছেলেকে সময় দেব। এই দু’বছর টানা শ্যুট করতে হয়েছে। করোনার ভয়ে ওর কাছে যেতে পারিনি। এখন ওর সঙ্গে থাকব। ঘুরতে যাব। আর আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটা নিয়ে আরও মন দিয়ে কাজ করব। কিন্তু এর বেশি আর কিছুই পরিকল্পনা করিনি।‘

তবে শেষমেষ গোটা দুবছরের সফর শেষ। ভালবাসা ডট কমের জনপ্রিয় জুটি ওম এবং তোড়া এই মুহূর্তে ছেলে কেশব ও ইউটিউব চ্যানেল নিয়ে ব্যস্ত থাকতে চান। বড়পর্দা এবং ডিজিটাল মাধ্যমে কিছু কাজের প্রস্তাব এসেছিল তাঁর কাছে, কিন্তু রাজি হননি তিনি। তবে ভাল কাজ পেলে যেকোনো মাধ্যমেই তিনি কাজ করতে রাজি বলে জানান রাজা।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর