fbpx

shehnaaz gill: মনে সিদ্ধার্থের বেদনা, অভিনয়ের জন্য ছেড়েছিলেন পরিবার! দিন শেষে স্মৃতি আঁকড়ে চোখে জল শেহনাজের

তারকাদের পর্দার রঙিন জীবন মুগ্ধ করে দর্শকদের।অভিনয় জীবনের আড়ালে থাকে বিস্তর লড়াইয়ের গল্প। কথায় আছে ‘কিছুর বিনিময়ে, কিছু প্রাপ্তি’। অভিনয় জীবন বেছে নিয়ে অনেক বড়ো বড়ো ত্যাগ স্বীকার করতে হয় তারকাদের। সকলেই সোনার চামচ মুখে নিয়ে জন্মায় না। নিজের সাফল্যের পথ নিজেই রচনা করেন। ‘পঞ্জাব কি ক্যাটরিনা’ শেহনাজ জানালেন নিজের সংগ্রামের গল্প।
img 20220823 160642

বিনোদন জগত শেহনাজকে আকর্ষণ করত বরাবর। অনেক ছোট বয়সেই বিনোদন জগতে আসার জন্য ঘর ছেড়েছিলেন তিনি। না! অর্থাভাবে নয়। পাশে থাকেনি বাড়ির কেউ। দীর্ঘদিন পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ রাখেননি। ছোট খাটো অভিনয় দিয়ে নিজেকে প্রমাণ করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিলেন। এক সাক্ষাৎকারে শেহনাজ বলেছিলেন, পরিবার ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে যোগদানের সিদ্ধান্তকে পুরোপুরি সমর্থন করেননি। তবে পরিবারের নিষেধে কান দেননি শেহনাজ। শেহনাজ তার বাবা-মাকে অত্যন্ত ভালোবাসেন, কিন্তু কাজের বিষয়ে তাদের মতামত শোনেন না।

শাহনাজ বলেন, “আমার স্বপ্নগুলি আমার নিজস্ব, এবং সেগুলিকে বাস্তব করতে যা যা করা দরকার আমি তা করব”। কীভাবে শুরু হয় শেহনাজের সাফল্যের পথ? তিনি বলেন, “আমি বাড়ি থেকে পালিয়ে এসেছি। তাঁরা আমাকে খুঁজে পায়নি দীর্ঘ দিন। আমার যখন খ্যাতি হয়েছিল তখনই ফিরে গিয়েছিলাম।” মাত্র ২২-২৩ বছর বয়সে এই ঘটনা ঘটিয়েছিলেন শাহনাজ।

শাহনাজ জানালেন, “আমি প্রায় ১৫০০০ টাকা আয় করতাম, পিজিতে থাকতাম, নিয়মিত শ্যুটিংয়ে যেতাম। তারা আমাকে ফোন করত রোজ, কিন্তু আমি আমার পরিবারেরসকলের ফোন নম্বরগুলি ব্লক লিস্টে রাখতাম, যদিও আমি আমার দাদীর সাথে খুব যোগাযোগ ছিল। আমি পরিবারের সঙ্গে কথা বলার আগে নিজেকে প্রমাণ করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু ধৈর্যের ফল পাওয়া যায় এবং এখন তারা সবাই আমাকে নিয়ে গর্বিত।”

শেহনাজ বলেছেন,তিনি যখন পালিয়ে গিয়েছিলেন তখন তিনি অনেক ছোটো ছিলেন। সেই সময় তিনি অনেক ভালো মন্দের মধ্যে দিয়ে জীবন কাটিয়েছেন।এমনকী অনেক খারাপ লোকের সংস্পর্শেও এসেছিলেন। এসময় তিনি বলেন, “আমি অনেক ভুল করেছি কারণ আমি সঠিক উপায় জানতাম না, কিন্তু আমি কঠোর পরিশ্রম করেছিলাম বলে আজ এখানে দাঁড়িয়ে।” জীবনের ময়দানে লড়াই করেই সাফল্য খুঁজে নিয়েছেন। অনেক খারাপ অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নিয়ে জীবনে এগিয়ে গেছেন।
img 20220823 160418
শেহনাজের জীবনে সবচেয়ে বড়ো ব্রেক ‘বিগ বস’। শেহনাজ বিগ বসের একজন প্রতিযোগী হিসাবে খ্যাতি অর্জন করেছিলেন। সিধনাজকে ভালোবাসতে শুরু করে আম জনতা। তবে এখানেও পথ মসৃণ ছিল না। প্রাণপ্রিয় বন্ধু সিদ্ধার্থ শুক্লাকে হারান শেহনাজ। প্রয়াত অভিনেতা সিদ্ধার্থ শুক্লার সাথে তার সম্পর্কের গুজবের কারণে খবরের শিরোনামে ছিলেন তিনি। তবে সেই শোক নিজের কর্মজীবন দিয়ে ভুলতে চেয়েছেন শেহনাজ। গত বছর, তিনি দিলজিৎ দোসাঞ্জের বিপরীতে পাঞ্জাবি ছবি ‘হোনসালা রাখ’-এ অভিনয় করেছিলেন। এখন সলমান খান থেকে বলিউডের তাবড় অভিনেতা ও পরিচালকদের সঙ্গে কাজ করতে চলেছেন তিনি।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর