fbpx

Mithai: কেটেছে সকল অভিমান, জ্ঞান ফেরাতে গিটার কাঁধে মিঠাইয়ের কাছে গান ধরল সিড

প্রত্যুষা সরকার, কলকাতা: ওমি আগারয়াল এর গুলিতে আহত মোদক পরিবারের মিষ্টি বৌমা মিঠাই ( Mithai )। সারা বাড়িটাকে আনন্দে মাতিয়ে রাখা সেই মিঠাই আজ হাসপাতালে। তাই মোদক পরিবারে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। বাড়ির বড় থেকে ছোট সবারই মন ভারাক্রান্ত। গুলি লাগার পর তড়িঘড়ি তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে গুলি বের করা হলেও জ্ঞান ফেরেনি তাঁর। ওদিকে মিঠাইয়ের এমন অবস্থা দেখে উচ্ছেবাবুরও একেবারে পাগলের মতো অবস্থা।

মিঠাইকে বাঁচাতে মরিয়া সিদ্ধার্থ। নাওয়া-খাওয়া ভুলে গেছে সিড। মিঠাইকে জাগিয়ে তুলতে নানান রকম পদক্ষেপ নিয়ে চলেছে সে। কয়েক দিন আগে ডাক্তার যখন বলল মিঠাই ( Mithai ) সাড়া না দিলে কোমাই চলে যাবে। তখন তাঁকে সুস্থ করতে মিঠাইয়ের সব থেকে পছন্দের জিনিস মিষ্টি বানান। সিড ভাবে মিঠাইয়ের সামনে মিষ্টি বানাতে ভুল করলে নিশ্চয় সাড়া দেবে সে। সেই মতো কেবিনেই মিষ্টি বানানোর আয়োজন করে। ডেকে আনে ময়রাদের। কিন্তু তাতেও সাড়া দেয়না মিঠাই রানী।

img 20220801 120822

মিঠাইকে সুস্থ করতে তোর্সার কাছেও সাহায্য চায় সিড। বৌমার এমন অবস্থায় ভেঙে পরেছেন সমরেশ মোদকও। তাঁকে সান্তনা দিয়ে ভেঙে পরতে বারন করে স্ত্রী অনুরাধা। শেষমেশ সাহায্য চায় তোর্সার কাছে। সিড মনে করে টেস কিছু বললে মিঠাই সাড়া দেবে। কিন্তু কোথায় কি! মিঠাই রানী সেই নীরবই। সেই কারণে মানসিকভাবে বিধ্বস্ত হয়ে পড়েছে উচ্ছে বাবু।

সিডের কথায় হাসপাতালে হাজির হয় তোর্সা। মিঠাইয়ের বড় জাও তার সাধ্যমতো চেষ্টা করে মিঠাই রানিকে জাগিয়ে তোলার। মিঠাইকে ( Mithai ) কফি করে এনে দিতে বলে তোর্সা। এমনকি এও বলে যে এখন নাকি মিঠাই রানীর হাতের কফি ছাড়া আর কারোর হাতের কফি তার মুখে রোচে তাঁর। কিন্তু সারা দেয় না মিঠাই। এরপর একসঙ্গে মিঠাই রানিকে সুস্থ করার দায়িত্ব নেয় হল্লা।

img 20220801 120747

হাসপাতালে পৌছে গেছে হল্লা পার্টি। তাঁরা ঠিক করে যে গান গেয়ে মিঠাই রানীর জ্ঞান ফেরাবে তাঁরা। সেই মতো সিড গিটার তাঁর গিটার নিয়ে হাজির হাসপাতালে। এরপর একে একে সিড আর বাকি সবাই গান ধরে। তাঁদের সঙ্গে যোগ দেয় দাদাই। কিন্তু তবুও চোখ খোলে না মিঠাই। তবে হঠাৎ সিড দেখতে পায় মিঠাইয়ের পা নড়ছে। আর তাতে একটু আশার আলো দেখছে সকলে। এবার মিঠাই কবে চোখ খুলবে সেটার অপেক্ষায় ভক্তরা।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর