fbpx

Hrithik Roshan: পাঞ্জাবি হয়েও মাছে ভাতে বাঙালি ঋত্বিক, কোন কারণে এমন বাংলার প্রতি টান তাঁর?

মন্টি শীল, কলকাতা: সম্প্রতি রূপোলি পর্দার তারকারা বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন কারণে নেটিজেনদের আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে চলে এসেছেন, এমনকী হয়েছে একাধিক বিতর্ক। যদিও সেই সমস্ত আলোচনার বিষয় তাঁদের অভিনয় কেরিয়ার নয়, তারকাদের ব্যক্তিগত জীবন। আর এই আলোচিত বলি তারকাদের মধ্যে এক অন্যতম নাম হল অভিনেতা ঋত্বিক রোশন ( Hrithik Roshan )। বলিউডের জনপ্রিয় তারকাদের তালিকায় একজন অন্যতম তারকা হলেন এই অভিনেতা। ঋত্বিক রোশন তাঁর সমগ্র অভিনয় কেরিয়ারে একাধিক হিট সিনেমা বক্স অফিসে উপহার দিয়েছেন। কিন্তু জানেন কি বলিউডের এই জনপ্রিয় অভিনেতার সঙ্গে এক নিবিড় যোগসূত্র রয়েছে বঙ্গের।

অবাক মনে হলেও এটাই সত্যি। অভিনেতা ঋত্বিক রোশনের ( Hrithik Roshan ) বয়স প্রায় ৫০ ছুঁইছুঁই। তাঁর অনুরাগীদের একাংশ হয়তো জানেন যে তিনি জন্ম সূত্রে একজন পাঞ্জাবী পরিবারের সন্তান। তবে পুরোপুরি পাঞ্জাবী না বলে আধা পাঞ্জাবী বলাও ভুল হবে না। কিন্তু কীভাবে বাঙালি পরিবারের সঙ্গে যোগসূত্র তৈরী হল বলিউডের এই জনপ্রিয় সুপারস্টাররের। সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, অভিনেতা ঋত্বিক রোশনের ( Hrithik Roshan ) ঠাকুমা অর্থাৎ রাকেশ রোশনের মা ইরা রোশন ছিলেন একজন বাঙালি পরিবারের সন্তান।

31c12

মাত্র কুঁড়ি বছর বয়সে অল ইন্ডিয়া রেডিওতে কাজের সূত্রে দিল্লি পাড়ি দিয়েছিলেন। এরপরেই ইরা রোশনের জীবনে আসে এক নাটকীয় মোড়। জানা গিয়েছে, অভিনেতা ঋত্বিক রোশনের ঠাকুমা অর্থাৎ ইরা রোশন একজন বিশিষ্ট সঙ্গীত শিল্পী ছিলেন। এমনকী ঘটনা চক্রে ঋত্বিক রোশনের ঠাকুরদা অর্থাৎ রোশনলাল নগরাথ ছিলেন সেই সময়ের একজন বিশিষ্ট সঙ্গীত পরিচালক। শোনা যায়, এই গানের সূত্রেই নাকি আলাপ হয়েছিল তাঁদের। এরপর ধীরে ধীরে শুরু হয় তাঁদের নতুন প্রেম কাহিনী, যা পরবর্তী সময়ে এই সম্পর্ক বিয়ের পিঁড়িতে এসে পৌছায়। সূত্র অনুযায়ী, অভিনেতা তথা পরিচালক রাকেশ রোশন বাংলা ভাষায় বেশ দক্ষ্য হলেও ঋত্বিক রোশন কিন্তু তা একেবারেই পারেননা। তবে বাঙালি সংস্কৃতি এবং বাঙালি খাওয়ার বিশেষত রসগোল্লা এবং মিষ্টি দইয়ের বড় ভক্ত ঋত্বিক।

31c13

শোনা গিয়েছে, মা ইরা রোশন রাকেশ রোশনের ডাক নাম রেখেছিলেন গুড্ডু। এমনকী অভিনেতা ঋত্বিক রোশনের জন্মগ্রহণের পর তাঁর ছেলের নামানুসারে নাতির নাম রাখতে চেয়েছিলেন। আর তাঁর জন্যই শৈশবে ঋত্বিকের ডাকনাম হয় ডুগগু। অভিনেতা ঋত্বিক রোশন এক সাক্ষাৎকারে তাঁর ঠাকুমার প্রসঙ্গে জানিয়েছিলেন, ‘তাঁর হাতের তৈরি করা মাছ সে ভীষণ পছন্দ করতেন। একদা ঠাকুমা ইরা রোশন চেয়েছিলেন যে তিনি যেন কলকাতা থেকেই তাঁর কেরিয়ারের সূচনা করেন। কিন্তু ঘটনা ঘটনা চক্রে তা সম্ভবপর না হলেও, অভিনেতা হিসেবে তাঁর প্রথম স্টেজ অ্যাপিয়ারেন্স হয়েছিল কলকাতাতেই।’ শোনা যায়, নাতি হিসেবে ঠাকুমার ভীষণ প্রিয়পাত্র ছিলেন ঋত্বিক। কিন্তু বিগত ২০০৫ সালে তিনি প্রয়াত হয়েছেন। আর সেই প্রসঙ্গে একদা এক সাক্ষাৎকারে বক্তব্য পেশ করতে গিয়ে কিছুটা বিষন্ন হয়ে পড়েছিলেন অভিনেতা।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর