fbpx

কংগ্রেস-বিজেপি না-পসন্দ, কেন আপে মন মজল গরিবের ‘মাসিহা’ সোনু সুদের

করোনার সময় দুঃস্থ ও পরিযায়ী শ্রমিকদের সাহায্যে এসে শিরোনামে এসেছিলেন বলিউড তারকা সোনু সুদ। কিন্তু সম্প্রতি সম্পূর্ন অন্য কারণে তাকে নিয়ে আবার চর্চা তুঙ্গে উঠেছে। খুব শীঘ্রই এবার প্রত্যক্ষ রাজনীতির ময়দানে দেখা মিলতে পারে সোনুর এই জল্পনায় মেতেছে সিনেমা প্রেমী থেকে ওয়াকিবহাল মহল। কিন্তু কোন পার্টির হাত ধরতে চলেছেন রিল জগতের এই প্রখ্যাত ভিলেন? মূলত তা নিয়েই আভাস পাওয়া গেল, এমনটাই মনে করছেন অনেকে। আম আদমি পার্টির নেতা কেজরিওয়ালের পাশে বসে সাংবাদিক বৈঠকে বসার পর থেকেই অভিনেতার আম আদমি পার্টিতে যোগ দেওয়ার সম্ভবনা প্রবল হয়ে উঠেছে।

সম্প্রতি দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়ালের সাথে ‘দেশ কে মেন্টর’ নামের একটি ক্যাম্পেনের সাংবাদিক বৈঠকে উপস্থিত হন সোনু। তবে কি আম আদমি পার্টির সঙ্গ দিতে চলেছেন সোনু সুদ। নতুন করে এই জল্পনা তুঙ্গে উঠেছে। এর আগে কংগ্রেস মুম্বইয়ের মেয়র পদে পদপ্রার্থী করতে চলেছে সোনুকে এমন কথা রটেছিল। কিন্তু এই নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছেন অভিনেতা। তার মধ্যেই দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রীর সাথে সোনূর প্রকাশ্যে আসা অন্য ইঙ্গিত দিচ্ছে বলে মনে করছেন অনেকে। এখনই এ নিয়ে কোনো পক্ষ মুখ না খুললেও সম্ভাবনা জিইয়ে রাখছেন আপ শীর্ষ নেতৃত্ব।

Sonu Sood's Politics,AAP Chief Arvind Kejriwal,Join Politics,Aap Sonu Sood,Bollywood's Bangla Khabar Aam Aadmi Partyসোনু সুদের রাজনীতি,আপ প্রধান অরবিন্দ কেজরিওয়াল,রাজনীতিতে যোগ,আপে সোনু সুদ,বলিউডের বাংলা খবর আম আদমি পার্টি

সামনেই পাঞ্জাবে বিধানসভা নির্বাচন। মুখ্য প্রতিদ্বন্দ্বী কংগ্রেস ও আপ। এদিকে সোনু নিজে পাঞ্জাবের ঘরের ছেলে। পাঞ্জাব প্রদেশেই তাঁর জন্ম। তাই দুই পক্ষই সোনুকে নিজের দিকে টেনে তাদের দল ভারী করতে চাইবেন এমনটাই স্বাভাবিক। কংগ্রেসের তরফে অনেকেই সোনুকে নিজেদের শিবিরে টানতে চান এমন খবরও রয়েছে। অন্যদিকে আম আদমি পার্টিও সেই একই চেষ্টা করছে।

তবে সোনু কি চাইছেন? এ খবর অনেকের কাছে নেই। তবে সূত্রের খবর সোনু কোনো জাতীয় দলে যোগ দিতে ইচ্ছুক নয়। সম্ভবত কোনো আঞ্চলিক দলেই যোগ দিতে পারেন তিনি। অপর একটি আঞ্চলিক দল চন্দ্রশেখরের তেলেঙ্গানা রাষ্ট্র সমিতি এর আগে সোনুকে দলে নেওয়ার চেষ্টা করলেও আম আদমি পার্টির পাল্লাই সবচেয়ে ভারী এমনটাই মনে করা হচ্ছে। আগামী পাঞ্জাব নির্বাচনে গরিব এবং দুস্থ এবং করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে মানুষের সাহায্য করায় সোনুর তুঙ্গে থাকা জনপ্রিয়তাকে আপ কাজে লাগাতে পারে এমনটা মনে করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য মহারাষ্ট্রে শিবসেনা এবং বিজেপির সাথেও সোনুর সম্পর্ক খুব ভালো। মহারাষ্ট্রের বিজেপি এমপির উদ্যোগে অনেক পরিযায়ী শ্রমিককে ঘরে পাঠাতে সাহায্য করেছিলেন সোনু সুদ। তবু আপেই কেন মন মজলো সোনুর এর পেছনে জাতীয় রাজনৈতিক দলের প্রতি সোনুর কম মোহ থাকতে পারে। তবে সোনু এবং আপ কেউই তারকার রাজনীতিতে যোগ নিয়ে কিছু স্পষ্ট করেননি। তবে ভবিষ্যতে এমনটা হলে সোনুর জনপ্রিয়তার রথে সওয়ার হয়ে আপের পাঞ্জাব বিজয় অনেকটাই সহজ হবে তা বলাই যায়।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর