fbpx

Sonu Sood: ‘সিং ইজ কিং’ ছবিতে অভিনয় করার আগে রোজ কাঁদতেন সোনু! এক সময় ছাড়তে চেয়েছিলেন অভিনয়

রাখী পোদ্দার, কলকাতা : বলিউডের ( Bollywood) নামকরা অভিনেতাদের অন্যতম অভিনেতা হলেন তিনি। করোনা অতিমারির সময় যখন গোটা দেশ ছিল গৃহবন্দী। আর বেশিরভাগ বলিউড তারকারা ছিল মালদ্বীপে ছুটি কাটাতে ব্যস্ত। তখন সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। বড় পর্দায় খলনায়কের ভূমিকায় বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই অভিনয় করে থাকলেও আসল জীবনে যে তিনি একজন রিয়েল লাইফ হিরো তা তিনি প্রমাণ করে দেন সেই সময়। নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন কার কথা বলা হচ্ছে? তিনি আর অন্য কেউ নন তিনি হলেন, বলিউড অভিনেতা সোনু সুদ ( Sonu Sood)। আজ ৩০শে জুলাই এই মহান অভিনেতার জন্মদিন। ৪৯ বছরে পা রাখলেন এই অভিনেতা। নিজের অভিনয় জীবনে একাধিক সফল সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। তবে আপনি কী জানেন এক সময় এরকম এসেছিল যখন এই অভিনয় জগতই ছেড়ে দিতে চাইছিলেন তিনি।

কী শুনে অবাক লাগছে তাই না? তবে এটাই সত্যি। একটি জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকার চলাকালীন এমন অবাক করা তথ্য সকলের সঙ্গে শেয়ার করে নেন সোনু ( Sonu Sood)। তিনি তখন অক্ষয় কুমার ও ক্যাটরিনা কাইফ অভিনীত ‘সিং ইজ কিং’ ছবিতে অস্ট্রেলিয়ার আন্ডারওয়ার্ল্ডে গ্যাংস্টার ‘লাকি’ ভূমিকায় অভিনয় করছিলেন তিনি। একবার এক স্টুডিওতে ‘যোধা আকবর’ ছবির শুটিংয়ের সময় তাঁর মা এসেছিলেন সেখানে তাঁর সঙ্গে দেখা বলেন, এটা নাকি তাঁর জীবন দেবে বদলে। এরপর তিনি সোনুর থেকে ২০০৭ সালে ৪ই অক্টোবর চলে আসেন পাঞ্জাবে। যেহেতু তাঁর বোনের ১৬ই অক্টোবর বিয়ে ঠিক হয় তাই সোনুও ১৪ তারিখ বাড়ি ফিরবে বলে ঠিক করেন। কিন্তু ১৩ই জুলাই ঘটে যায় এক দুর্ঘটনা। সনুকে ফোন করে জানানো হয় তাঁর মা ঘুমের মধ্যে পরলোক গমন করেন তাঁর মা।

Sonu Sood and his Mother আর এই ঘটনার পরই সম্পূর্ণ রূপে ভেঙে পড়ে সোনু সুদ ( Sonu Sood)। এমনকী এই ঘটনায় সে বিদ্ধস্ত হয়ে পড়েন যে, সে সিদ্ধান্ত নিয়ে নেয় অভিনয় ছেড়ে দেওয়ার। সেই মুহুর্তে সনুর বাবা তাঁকে সামলেছিলেন সব দিক থেকে। তিনি সেইসময় সোনুকে বোঝান তাঁর মায়ের স্বপ্নটাকে এইভাবে ভেঙে না দিতে। এর ঠিক এক বছরের মাথায়, যখন ‘সিং ইজ কিং’ ( Singh Is Kinng) ছবিতে কমেডির পার্ট করতে যেতেন তখন তিনি নাকি তার আগে স্টুডিওর এক কোণে বসে কেঁদে নিতেন। তারপর যেতেন কমেডি রোলে অভিনয় করতে।

Sonu Sood
Sonu Sood

অভিনেতা এটাও জানান, তাঁর যতই কাজ থাকুক না কেন তিনি প্রত্যেক বছর ১৩ই অক্টোবর সব কাজ ছেড়ে চলে যান পাঞ্জাবে। সেখানে তিনি তাঁর মায়ের মতো অভুক্তদের খাবার খাওয়ান এবং কলেজ পড়ুয়াদের যাদের সাহায্যের প্রয়োজন তাঁদের সাহায্য করেন। এরপর ২০১৬ সাল অভিনেতা হারান তাঁর বাবাকে। সেই বছরই সোনু তাঁর পিতার নামে একটি প্রোডাকশন হাউজ খোলেন। যার নাম দেন শক্তি সাগর প্রোডাকশন হাউজ। সোনুকে শেষবার দেখা গিয়েছে, পৃথ্বীরাজ ছবিতে চাঁদ বরদাই চরিত্রে, যেখানে তিনি অক্ষয় কুমার এবং মানুশি চিল্লারের সাথে অভিনয় করেছিলেন।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর