fbpx

Sourav Ganguly: “সোনার চামচ মুখে নিয়ে জন্মেছি…..” নিজের পরিবার নিয়ে হটাৎ এ কী বললেন সৌরভ

খেলার মাঠে নয়, জীবনের ময়দানেও হাফসেঞ্চুরি হাঁকালেন বাঙালির মহারাজ। ১৯৯৬ সালে লর্ডসের মাঠে বাঁ হাতি ব্যাটসম্যানের দাদাগিরি দেখেছিল গোটা বিশ্ব। সেই দিনের বাঙালি যুবক থেকে আজকের বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট। সৌরভের সাফল্যের রাস্তাটা ঠিক কেমন ছিল? নিজের মুখেই জানালেন সেই সাফল্যের চাবিকাঠি।

সোনার চামচ মুখে নিয়ে জন্মেছেন সৌরভ। পারিবারিক সুখ-স্বাচ্ছন্দ্য থেকে প্রভাব প্রতিপত্তি কিছুরই অভাব ছিল না বনেদী গাঙ্গুলী পরিবারের। একজন নিম্ন মধ্যবিত্ত বাঙালি ছেলের পক্ষে কী ক্রিকেট দুনিয়ার দরজাটা পাওয়া এত সহজ হতো, যা সৌরভ অনায়াসেই পেয়েছেন তার পারিবারিক পরিসরে। পারিবারিক স্বচ্ছলতার কারণেই কি হাতের মুঠোয় চাঁদ পেয়ে গেছেন সৌরভ? এক সাক্ষাৎকারে মহারাজ নিজেই জানালেন, “হ্যাঁ। আমি সোনার চামচ মুখে নিয়ে জন্মেছি সেটাতে আমার কিছু করার নেই, কিন্তু সোনার চামচ নিয়ে জন্মালেই লাইফে প্রফেশনালি সাকসেসফুল হওয়া যায় না।” তিনি আরও বলেন যে সোনার চামচটা নিয়ে জন্মালেও সেটা বিভিন্ন ক্ষেত্রে ধরে রাখতে হয়, সেটা ক্রিকেট, ব্যবসা, পড়াশোনা যে কোন ক্ষেত্রেই। তিনি আর্থিক স্বাচ্ছন্দ্যকে সাফল্যের কৃতিত্ব দিতে নারাজ। সৌরভের কাছে স্কিলটাই আসল। যেকোন কাজে সে যত স্কিলড হবে সে তত সাফল্যের সিঁড়ি বেয়ে উঠতে সক্ষম হবে। তবে তিনি এটা স্বীকার করেছেন যে স্বচ্ছল পরিবার বলেই হয়তো খেলার কেরিয়ারে ঝুঁকি নিতে পেরেছেন।

img 20220709 154911

আইটি কর্তা সৌরভের চোখে ভারতীয় ক্রিকেটের সেরা অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। তবে আইটি আসনে বসে, ক্রিকেটার সৌরভের সাফল্যকে রসিকতা করে ‘অসম্ভব বাড়াবাড়ি’ বলেছেন নিজেই। কেরিয়ারের শুরু থেকেই পাঁচশো টি ম্যাচ, দু’শো ম্যাচের অধিনায়কত্ব জীবনের পঞ্চাশে এসে দাঁড়িয়ে অবিশ্বাস্য লাগে মহারাজের।

img 20220709 160055

যখনই কোথাও চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছেন, তখন ঘুরে দাঁড়িয়ে জবাব দিয়েছেন দাদা।এর আগেও দাদাগিরিতে তিনি বলেছিলেন সংকটের সময় মাথা কীভাবে ঠান্ডা রাখেন সৌরভ।গ্রেগ চ্যাপেলের জন্য যখন ৬ মাসের জন্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বাদ পড়েছিলেন, খেলতে হত ঘরোয়া ক্রিকেট তখন কীভাবে সামলে ছিলেন নিজেকে? তার উত্তরে মহারাজ জানিয়েছিলেন, ‘আমার কাছে ওটা সেভাবে চ্যালেঞ্জিং লাগেনি। কারণ তার আগে ১১ বছর আমীি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলে ফেলেছি।”তিনি আরো বলেন,শুরুর দিকে হলে হয়তো কেরিয়ার শেষের ভয় পেতেন সৌরভ কিন্তু নিজের ওপর ভরসা রেখেছিলেন দুঃসময়েও। আত্মবিশ্বাসের জোরেই পৌঁছে গেছেন সাফল্যের চূড়ায়।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর